রোজ নামচা-আন্তর্জাতিক নারী দিবস ও একজন দিমিত্রির গল্প

Aparna 2Aparna 2লীনা হাসিনা হক: আমার প্রাণের বন্ধু মেয়েটি। সংসার ছিল, ভেঙ্গে গেছে। সন্তানদের নিয়ে একা থাকে বহু বছর। নিজে চাকরী করে সংসার চালায়। নিজের দিকে কোনদিন তাকানো হয়নি তার। বাংলাদেশের  নারীদের গড় আয়ু যদি হয় ৫৭ বছর, তাহলে বলা চলে জীবনের প্রায় এক তৃতীয়াংশ পার করে দেয়ার পরে তার জীবনে ভালবাসার আবির্ভাব।

আবির্ভাবই বলবো, কারণ আমার বন্ধুটি এর জন্য প্রস্তুত ছিল না, ভীত ছিল, জীবনে অনেক ঠকেছে সে। কিন্তু অপরপক্ষের আবেগের তোড়ে ভেসে যায় তার সব প্রতিরোধ। সেই মানুষটির একটি আধা ভাঙ্গা জীবন আছে, কিন্তু সে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল আমার বন্ধুকে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত পাশে থাকবে। আমরা সবাই বলেছিলাম, দেখো চিন্তা করে, যে মানুষ তার নিজের স্ত্রীকে ঠকাতে পারে, তোমার সাথেও তা হতে পারে। কিন্তু বন্ধু আমার ভালবাসায় অন্ধ।

বন্ধুটি আমার তাকে স্বর্গের দেবদূত বিবেচনা করে তার জীবনে স্থান দিয়েছিল। চলছিল ঠিক ঠাক প্রায় বছর পাঁচেক বা আরও বেশী। গত বেশ কিছুদিন থেকে দেবদুত সাধারন মানুষের মতন আচরন শুরু করলো। আমার বন্ধু তবু ভাবে, সাময়িক এই ব্যাপার, সময়ের সাথে সাথে ঠিক হয়ে যাবে। আসলে সময়ের সাথে অনেক কিছুই ঠিক হয় না। ক্রমে জানা গেলো দেবদূত আমার বন্ধুর কাছে মিছে কথা বলতে শুরু করেছে। সে অন্য মেয়ের সাথে মিশতে শুরু করেছে।
আমার বন্ধুর ফোন ধরে না, ধরলেও ১ মিনিটের বেশী কথা বলে না, দেখা করতে আসে না।

অন্য বন্ধুরা যারা জানতো ব্যাপারটা তারা জিজ্ঞেশ করলে পুরুষটির উত্তর, আসলে সম্পর্কটি তেমন গভীর কিছু ছিল না, আমাদের বন্ধুটিই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছে! আর সে কোনও প্রতিশ্রুতি দেয় নাই। দেবদূতের চেহারা শয়তানে বদল হতে মুহূর্তও লাগে না!

হায় কোথায় গেলো সেই সব আবেগে পরিপূর্ণ এসএমএস, চিঠি আর ফেসবুকের আলাপ। যা দেখে আমরা হাসতাম, ক্ষ্যাপাতাম, আবার খুশীও হতাম। প্রার্থনা করতাম, ঈশ্বর আমার এই বন্ধুটি যেন আর কোনও কষ্ট পায় না। ঈশ্বর নিরাকার, কিন্তু কোথায় যেন পুরুষের চরিত্র বলে আমার মনে হয়!

আমার বন্ধু হাহাকার করে, কোথায় গেলো সেই একসাথে বেড়ানো, গল্প করা আর ছবি তোলা! আমার এই বন্ধুটিও আমার মতোন গাছপালা ভালবাসে, ওর বাসায় গেলে নুতন গাছ দেখলেই বলে,’ ও  উপহার দিয়েছে!’ আমারাও খুশী হই বন্ধুর খুশীতে। এতদিনে মেয়েটা একটু শান্তি, একটু ভালবাসা পেলো। ভুল সবই ভুল!

জানা গেলো নুতন যে মেয়েটির সাথে পুরুষটির সম্পর্ক হয়েছে সেই মেয়েটি কম বয়সী আর চোখ ধাঁধানো সুন্দরী, কথা বার্তায় চৌকস! আর আমাদের বন্ধুতো আমাদের মতনই, মমতাভরা মন, মিষ্টি চেহারা, একদম বাঙ্গালী একটা মেয়ে। হায়, কবে পুরুষ বুঝবে ঘর থাকে মানুষের মনে, বাহ্যিক সৌন্দর্যে নয়।সম্পর্ক থাকে বিশ্বাসে, সাময়িক আনন্দে নয়।

আজ আন্তর্জাতিক নারী দিবসে যখন চারিদিকে উৎসব, নারী শক্তির জয়গান, আমি বসে আছি আমার প্রায় মানসিক ভারসাম্য হারানো বন্ধু দিমিত্রির পাশে তার হাত ধরে। আমার যে বলারও কিছু নাই।

 

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.