সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণে প্রধান ভূমিকা রাখে বাবা, মা নয়

বন্যা আহমেদ:

দুঃখের ব্যাপার যে এখনও এই একুশ শতকে বসেও এ ধরনের বিষয় নিয়ে ভিডিও বানাতে হয় বা লেখালেখি করতে হয়! এখনও খবরের কাগজের পাতায় দেখা যায় মেয়ে সন্তান জন্মানোর কারণে বউকে তালাক দিচ্ছে বা বিভিন্নভাবে নিপীড়ণ করা হচ্ছে। ভারতে বা চায়নায় তো সিস্টেমেটিকভাবে মেয়ে সন্তান বা মেয়ে সন্তানের ভ্রূণ মেরেও ফেলার ঘটনাও শোনা যায়! ছোটবেলায় মনে আছে, আমরা তিনবোন বলে পাড়ার অন্য নারীরা আমার মাকে ইনিয়ে বিনিয়ে বলার চেষ্টা করতো, ‘আহারে, আপা আপনার তিনটাই মেয়ে, ছেলে নাই? সম্পত্তি খাবে কে…?’ সেই ৭০-৮০র দশকের কথা।

অবস্থা আজ কতটা বদলেছে? বদলেছে কি?

সন্তান ছেলে হবে না মেয়ে হবে অর্থাৎ সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণে কার ভূমিকা প্রধান? মায়ের নাকি বাবার? জেনেটিক্সের জ্ঞান থেকে আজ আমরা জানি যে, সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণের পিছনে প্রধান ভূমিকা পালন করে বাবার শুক্রাণু, মায়ের ডিম্বাণু না, যদিও এতে কারোরই আসলে সক্রিয় ভূমিকা নেই! কিন্তু আজও পৃথিবীর বহু সমাজেই প্রচলিত ধারণা সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণ করে মা!!

তাই থিংক বাংলার পক্ষ থেকে এই ভিডিওটি বানানো হয়েছে, পুরনো অবৈজ্ঞানিক এই ধারণাটাকে একটু হলেও ধাক্কা দেওয়ার জন্য।

চলুন তাহলে আজকের এই ভিডিও থেকে বুঝে নেই, কীভাবে এক্স ( X ) ও ওয়াই ( Y ) ক্রোমোজোমের কারণে, ছেলে হোক কিংবা মেয়ে হোক, সন্তানের লিঙ্গ নির্ধারণে প্রধান ভূমিকা রাখে বাবা, মা নয়! তাহলে কি আজকে আমরা ছেলেদের দোষী করবো যেভাবে সমাজ এতোকাল ধরে মেয়েদের করে এসেছে? নাহ থাক, কেউই যে আসলে দায়ী নয় এবং ছেলে ও মেয়ের মধ্যে যে আসলে কোন পার্থক্য সেটা মেনে নিলেই আমরা খুশি!

আশা করি এরকম আরো ভিডিও দেখতে আমাদের ইউটিউবের থিংক বাংলার চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করবেন এবং সেই সাথে ভিডিওটি শেয়ার করে ছড়িয়ে দিতে সাহায্য করবেন

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.