হাসিনা ও খালেদার সাথে কথা বললেন বান কি মুন

hasina-moon-khaledaউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: আসন্ন নির্বাচন ও দেশে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি জানতে প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধীদলীয় নেতার সাথে ফোনে কথা বলেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন।

শুক্রবার বেলা ১১ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সন্ধ্যা পৌনে ৭ টার দিকে বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়ার সাথে ফোনে কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করার বিষয়টি নিশ্চিত করেন প্রধানমন্ত্রীর গণমাধ্যম বিষয়ক উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

জাতিসংঘের মহাসচিবের সাথে কথোপকথনের সময় উভয়েই আসন্ন নির্বাচন নিয়ে নিজ নিজ অবস্থান জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের মহাসচিবকে বলেন, সংবিধান মেনেই আগামী জাতীয় নির্বাচন হবে।

জাতিসংঘের মহাসচিবকে প্রধানমন্ত্রী আরও জানান, আগামী মাসে সংসদের অধিবেশন ডাকা হয়েছে। বিরোধীদল যদি কোনো প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করতে চায়, তাহলে সরকার তাদের ওয়েলকাম জানাবে।

অন্যদিকে, বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়া নির্দলীয় সরকার না দিলে নির্বাচনে যাবেনা বলে বিএনপির দলীয় অবস্থানের কথা জাতিসংঘের মহাসচিবকে স্পষ্ট করেন।

বান কি মুনের সাথে কথোপকথন শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের জানান, “খালেদা জিয়া জাতিসংঘের মহাসচিবকে বলেন, তিনি বাংলাদেশের রাজনৈতিক অচলাবস্থা নিরসনের যে উদ্যোগ নিয়েছিলেন তা বেশি দূর এগোয়নি। বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে তিনি উদ্বিগ্ন।”

খালেদা জিয়া মহাসচিবকে নির্দলীয় সরকার ছাড়া দেশে অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না বলেও জানিয়েছেন।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথোপকথনে বান কি মুন প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকারের নেতৃত্বে বাংলাদেশে গণতন্ত্র, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ও মিলেনিয়াম ডেভেলপমেন্ট গোল অর্জনে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতির প্রশংসা করেন।

এসময় জঙ্গিবাদ দমনে প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকারের পদক্ষেপগুলো আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রশংসা কুড়িয়েছে বলেও জানান জাতিসংঘের মহাসচিব।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.