বিপক্ষে হলেও কলম চলুক

মালবিকা শীলা:

কয়েকদিন ধরে বেশ কিছু লেখা পড়লাম, নারীপুরুষ অনেকেই নারীবাদী নারীদের লেখার বিপক্ষে, কলমে নিজের বুকের রক্ত দিয়ে ঝাঁঝালো মতামত প্রকাশ করেছেন। আপনারা যে আসলে পুরুষতন্ত্রের কীটদষ্ট ফসল, তাতে আমার কোনো সন্দেহ নেই। আমি নিজে স্বাধীনতা, মানবতাবাদ আর বাকস্বাধীনতা ছাড়া অন্যকিছুর পক্ষে নই। আপনাদের লেখা খুব প্রবলভাবে মানবতাবাদ এবং বাকস্বাধীনতার বিরোধী। দোষ আপনাদের নয়, আপনারা স্বকীয়তা বিকিয়ে বস্তাপচা কিছু অপআদর্শের ধ্বজা বহন করছেন।

অন্যকে ছোট করার উদ্দেশ্যে মৌখিক অথবা লিখিত ভাবে আক্রমণ করে আপনি অপরপক্ষের হাতে কিন্তু ওই একই অস্ত্র তুলে দিচ্ছেন। খারাপ কথা যতো অলংকার দিয়েই উপস্থাপন করুন না কেন, তা তো আর ভালো কথা হয়ে যায় না!

নারীদের লেখা নিয়ে কতিপয় শিক্ষিত(!) মানুষের লেখা পড়ে আমি চমকে গিয়েছি, কষ্ট পেয়েছি এইজন্য যে, এদের কয়েকজনের লেখা আমি খুবই পছন্দ করি। অন্ধ পুরুষবাদ অথবা অন্ধ নারীবাদ দুটোই মৌলবাদের পর্যায়ে পড়ে। সস্তা লাইক কামানো অথবা আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা ছাড়া এসব লেখার আর কোনো লক্ষ্য আছে বলে আমার মনে হয়নি।

আপনারা মেয়েদের অত্যন্ত আপত্তিকরভাবে আক্রমণ করেছেন। এর মাধ্যমে আপনি আসলে নিজের মা, বোন, স্ত্রী এদেরকেও অপমান করেছেন। গলার রগ ফুলিয়ে ঝগড়া করতে আসার আগে একটু ভেবে দেখুন তো, আপনি কারো মা, বোন, স্ত্রীকে নিয়ে বাজে কথা বললেন, এখন যাকে গালিগুলো দিলেন সে-ও তো আপনাকে একই কথা বলার অধিকার রাখে! রাখে না? আপনাকে গালি দিতে গিয়ে আপনার অপরপক্ষ কিন্তু আপনার ঘরের নারীদেরই যা-তা বলবে! সেটা আর আপনার আয়ত্বে থাকছে না কিন্তু! কারো চিন্তা আপনার অপছন্দ হতেই পারে! আপনার এই উগ্র স্বভাবের বলী আপনার ঘরের নারীরা কেন হবেন!

মেয়েদের সাথে প্রতিনিয়ত যে অত্যাচার অনাচার হচ্ছে, একজন শিক্ষিত উদার মানুষ তার প্রতিবাদ করবে, এটাই স্বাভাবিক। সেটা না করে আপনারা ঢালাওভাবে আক্রমণ শুরু করলেন মেয়েদেরকে, যারা নিজের কথা নিজের মতো করে বলছিলেন। এদের আপনারা আপনাদের লেখার মাধ্যমে খুব বুদ্ধিমত্তার সাথে বাজারে নামিয়ে আনলেন। জানি পুরুষও অনেকক্ষেত্রেই অত্যাচারিত হন, আপনারা সেগুলোর বিরুদ্ধে না লিখে, লেগে গেলেন নারীদের বিপক্ষে। এমনকি মেয়েদের সমঅধিকার চাওয়া পুরুষদেরও আপনারা আক্রমণ করতে ছাড়েননি!

একজনকে দেখলাম নারী স্বাধীনতায় বিশ্বাসী পুরুষদের অপারেশন করে নারী হয়ে যেতে বললেন! তাতো বলবেনই, নারী আপনাদের চোখে তো আপনাদের মতো পারফেক্ট ক্রিয়েশন নয়! নিজের মা, বোন, স্ত্রী, প্রেমিকার প্রতি আপনাদের কখনোই কোনো শ্রদ্ধাবোধ ছিলো না। যার আছে, সে এভাবে ভাবতে পারবে না। আপনাদের কাছের নারীদের প্রতি আমার সহমর্মিতা রইলো।

আধুনিক, প্রগতিশীল, উদার মানুষ হওয়া খুবই কঠিন, কোনো না কোনো ইস্যুতে আপনার স্বরূপ প্রকাশিত হয়েই যাবে। এতোকিছুর পরেও আমি আপনাদের ধন্যবাদ দেই। আপনারা মানুষ চিনতে আমাদের সহায়তা করলেন, আপনারা আমাদের নতুন করে উজ্জীবিত করলেন, গোপন বন্ধুর চেয়ে প্রকাশ্য শত্রু অনেক ভালো। তারপরও বলবো আপনাদের কলম চালু থাকুক। তবুও লিখুন, সেই লেখা আমার বিপক্ষে গেলেও লিখুন। মানবতা আর বাকস্বাধীনতার পথে চলতে গেলে কাঁটা মাড়িয়েই চলতে হবে। আমার লড়াই আপনার, আমার এবং আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের পথ কন্টকমুক্ত করার লড়াই।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.