স্যালুট গার্লস গ্যাং’কে

Fightingফারহানা আনন্দময়ী: সামাজিক অনাচারের বিরুদ্ধে আমরা মুখে অনেক বড় বড় কথা বলি, ফেসবুকে বিপ্লব ঘটিয়ে ফেলি, কিন্তু মাঠের কাজে তার কোনো প্রয়োগ ঘটাই না। বেশির পক্ষে যেটা করি তা হলো একটা মানববন্ধন বা দু’দশজনের একটা সমাবেশ।

আমাদের মত বেশিরভাগ টাইপ মানুষের ভিতরে দু’একজন ব্যতিক্রমও আছে… তিনি গড়নে ছোট্টখাট্ট একজন নারী, নাম স্বপ্নিক টুপসী। বয়সে তরুণ, পেশায় সাংবাদিক, আমার ছোট বোনের মত। ছোট্টখাট্ট এজন্যে বলেছি কারণ দেখতে ছোট্ট এই নারী নিজের ভিতরে বিপুল বিশাল সাহস ধারণ করেন। ওর সঙ্গে আমার পরিচয় গভীর হয়েছে গত পয়লা বৈশাখে টিএসসি’তে যৌন-সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে। এরপরে নারী নির্যাতনের বিষয়ে কয়েকবার কথা হয়েছে, দেখা হয়েছে।

টুপসী নির্যাতনের বিরুদ্ধে শুধু কথা আর ফেসবুকের স্ট্যাটাসের মধ্যে প্রতিবাদটা সীমাবদ্ধ রাখতে চায়নি। ও আরো বড়, আরো কার্যকর কিছু করার স্বপ্ন দেখছিল, সেই লক্ষ্যে কাজও করছিল। এবং ক’রেও দেখালো আমাদেরকে। আমরা আজ জানলাম, কথায়, বয়সে, অভিজ্ঞতায়, ক্ষমতায় বড় হওয়া বরং সহজ, কাজে বড় হওয়াটা কঠিন। টুপসী কঠিন কাজটিই করেছে।

টুপসী Girls’ Gang নামে একটি ছোট্ট সংগঠন দাঁড় করিয়েছে, তাঁর কিছু কাছের বন্ধুদেরকে নিয়ে। ঘরে-বাইরে নারীরা আক্রমণের শিকার হলে প্রাথমিক আত্মরক্ষার কৌশল শেখানোর জন্যে এরা গত তিনদিনের একটি কর্মশালার আয়োজন করেছিল চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমিতে। ১৩জন কিশোরী-তরুণীকে এই কৌশল শিখিয়েছেন কয়েকজন ক্যারাটে শিক্ষক এবং টুপসী নিজেও।

আজকের প্রেক্ষাপটে এই উদ্যোগ খুবই কার্যকর এবং সময়োপযোগী। আজ সেই কর্মশালার সমাপনী দিন ছিল, টুপসীর আমন্ত্রণে ওর এই সাহসী পদক্ষেপে সংহতি জানাতে গিয়েছিলাম।
স্যালুট তোমাকে টুপসী,
তোমাকে আরো জানাই এরপরের কর্মশালায় আমি আর আমার মেয়ে প্রাথমিক আত্মকৌশল শেখার খাতায় নাম লেখাবো।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.