চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন ম্যান্ডেলা

mendelaউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক (জুন ১৩): দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট নেলসন ম্যান্ডেলা ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন। দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, চিকিৎসায় সাড়া দিতে শুরু করেছেন ম্যান্ডেলা।

মি. জুমা পার্লামেন্টে বলেন, ‘বেশ কয়েকটা দিন কঠিন একটা সময় পার করেছি আমরা, এখন তার অগ্রগতি দেখে বেশ খুশি’।
ফুসফুসের সংক্রমণের কারণে ৯৪ বছর বয়সী নেলসন ম্যান্ডেলা বেশ অনেকদিন ধরেই ভূগছেন। প্রিটোরিয়া হাসপাতালে পঞ্চম দিনের মতোন আছেন তিনি। তাঁর স্ত্রী গ্রাসা মিশেল, কন্যা এবং দুই নাতনী গত বুধবার ম্যান্ডেলাকে হাসপাতালে দেখে গেছেন।

তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মি. ম্যান্ডেলার স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যে উদ্বেগ দেখানো হয়েছে তাতে তারা গভীরভাবে কৃতজ্ঞ সবার কাছে। বিবৃতিতে এটাও বলা হয়েছে যে, সাধারণ মানুষের কাছ থেকে অভূতপূর্ব সাড়া পাচ্ছেন তারা।

মি. জ্যাকব জুমা বিশেষভাবে উল্লেখ করেন ম্যান্ডেলার ৪৯তম বন্দী জীবনের বার্ষিকীর কথা। তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশ এখন অনেক উন্নত আর জীবনযাপনের জন্য অনেক ভাল একটি স্থান। যা কিনা ১৯৯৪ সালের আগে এটা চিন্তাও করা যায়নি। ও বছরই মি. ম্যান্ডেলা প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তবে জুমা এটাও বলেন যে, এখনও অনেক কাজ করা বাকি’।

জুমা বলেন, আমরা বুঝতে পারি এবং প্রশংসাও করি বিশ্বের এই আইকন (ম্যান্ডেলা) সম্পর্কে বৈশ্বিক আগ্রহ দেখে। তিনি যে আমাদের লোক, এটাই আমাদের গর্ব’।

দক্ষিণ আফ্রিকা এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মি. জুমা বলেন, প্রেসিডেন্ট ম্যান্ডেলা এবং তার মেডিকেল টিমকে যেন সর্বক্ষণ তাদের চিন্তা ও প্রার্থনায় রাখেন।

একনজরে নেলসন ম্যান্ডেলার জীবনের প্রধান দিকগুলো:
• ১৯১৮- পূর্ব কেপে জন্ম
• ১৯৪৩ – আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসে যোগদান
• ১৯৫৬ – দেশদ্রোহিতার অভিযোগে অভিযুক্ত, তবে অভিযোগ প্রত্যাখ্যাত
• ১৯৬২ – গ্রেপ্তার, বিশৃঙ্খলার অভিযোগে অভিযুক্ত, পাঁচ বছরের কারাদণ্ড
• ১৯৬৪ – আবারও দেশদ্রোহিতায় অভিযুক্ত, আজীবন কারাদণ্ড
• ১৯৯০ – বন্দীদশা থেকে মুক্তি
• ১৯৯৩ – নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভ
• ১৯৯৪ – প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নেতা নির্বাচিত
• ১৯৯৯ – নেতৃত্ব থেকে পদত্যাগ
• ২০০৪ – সরকারি জীবন থেকে অবসর গ্রহণ
• ২০১০ – বিশ্বকাপ ফুটবল ফাইনালে প্রথম জনসম্মুখে আসা
(বিবিসি থেকে সংগৃহীত)

মি. জুমা আরও বলেন, চিকিৎসকরা তাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করে যাচ্ছে। তাছাড়া, সাবেক এই প্রেসিডেন্ট নিজেও একজন লড়াকু। নেলসন ম্যান্ডেলার সাবেক স্ত্রী উইনি মাদিকিজেলা-ম্যান্ডেলা এবং অন্যান্য আত্মীয়স্বজন গত মঙ্গলবার অসুস্থ ম্যান্ডেলাকে দেখে গেছেন। গত শনিবার হাসপাতালে আনার পর থেকে মি. ম্যান্ডেলাকে ইনটেনসিভ কেয়ারে রাখা হয়েছে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.