নারীর পোশাক বিতর্কের শেষ কোথায়?

Noor Tusherআবদুন নূর তুষার: কিছুদিন আগে আমি একটি নারী বিষয়ক সেমিনারে উপস্থাপক ছিলাম। একজন দাঁড়িয়ে বললেন , রাস্তাঘাটে নারীদের উত্যক্ত হবার কারন তাদের পোষাক। তারা বড় খোলা মেলা পোষাক পরে। আমি জানতে চাইলাম, সবচেয়ে বেশী উত্যক্ত করা হয় স্কুলগামী বয়োসন্ধিকালের নারী শিশুদের। স্কুলের পোষাকতো বাংলাদেশে সবচাইতে শালীন ও ভদ্রোচিত পোষাক। তাহলে তারা কেন

উত্যক্তকারীদের নোংরা আচরণের শিকার হয়? আর কোন উত্তর নাই। সকলে নীরব।

গতকাল পত্রিকাতে পড়লাম মোহাম্মদপুর এলাকার নারীদের একটি হোস্টেলে বখাটেরা হামলা করেছে। সেখানকার নারী অধিকর্তা বলেছেন, “ তোমরা শার্ট প্যান্ট পরো বলেই এমনটা হয়।”? শুধু শার্ট প্যান্টের দোষ ? শাড়ী কিংবা জামা পরলে কি এমন হয় না? পরনে যাই থাকুক , বখাটেরা নারী পেলেই উত্যক্ত করে। এর সাথে পোষাকের কোন সম্পর্ক নাই।

পুরো ইউরোপ আমেরিকাতে নারীরা শার্ট প্যান্ট এমনকি শর্টস পরে রাস্তায় হাঁটে। তাদের তো এমন অবস্থার শিকার হতে হয় কালে ভদ্রে। লুংগী পরা পুরুষের লুংগী ধরে কি কেউ টান দেয় বা হাফপ্যান্টের তলায় ঢিল মারে ?

পোষাক নয়, আমাদের সমাজে শিক্ষা ও রুচির অভাব এর জন্য দায়ী। আমাদের ব্যবহার শেখানো হয় না, কোন ভাষা প্রশংসার আর কোন ভাষাটি অন্যায়, সেটা আমরা জানি না। আমরা সমাজে কাংখিত পুরুষের কোন উদাহরন স্থাপন করি না, অন্যদিক নারীকে ভোগ ও লালসার উপকরণ হিসেবে চিহ্নিত করি। পাকিস্তান, আফগানিস্তান বাদে দক্ষিণ ও দক্ষিণ পুর্ব এশিয়ার সবদেশে মেয়েদের স্কুলের পোষাকে স্কার্ট টপসের প্রাধান্য। নেপাল, ভুটান, শ্রীলংকা, মালয়েশিয়া , সিংগাপুরে তো মেয়েদের সংগে এমন আচরণ হচ্ছে না।

২০২১ সালে মধ্যম আয়, টাকা আর টিকা কেবল সামাজিক উন্নতির সূচক নয়। সমাজের উন্নতিতে শিক্ষা, সামাজিক নিরাপত্তা, রুচির বিকাশ এর গুরুত্ব আছে। আছে লিংগভিত্তিক সমআচরন সহ নানা রকম বিষয়। এই দেশে মেয়েদের স্কুলের দেয়াল জেলখানার মতো উঁচু কারণ বাইরে জানোয়ারদের আনাগোনা। এই জানোয়ারগুলিকে বন্দী না করে আমরা আমাদের মেয়েদের বন্দী করি দেয়াল দিয়ে। মেয়েদের স্কুলের উঁচু দেয়াল, বিরাট গেট, আমাদের হীণ মানসিকতা ও অনিরাপদ পরিবেশের নিদর্শন।

কবে যে আমাদের নারী সন্তানেরা, মা, বোন, স্ত্রী , বান্ধবী ও প্রেমিকারা নির্ভয়ে পথ হাঁটবে! কবে যে আমাদের মনের দেয়াল সরবে !

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.