নয়া বিপ্লবের মেয়েরা

alexandriastreetartbyayatarekউইমেন চ্যাপ্টার: সবসময় কথা দিয়ে, ভাষা দিয়ে, চিৎকার করেই যে প্রতিবাদ করতে হবে, তা নয়। প্রতিবাদ যুগে যুগে হয়ে এসেছে নানামুখী। বর্তমান সময়েও অনেক মেয়েই বেছে নিয়েছে ভিন্নধর্মী প্রতিবাদের ভাষা। কেউ গানের মাধ্যমে, রাস্তায় গেয়ে গেয়ে প্রতিবাদ করে যাচ্ছে সমাজের নানা কূপমণ্ডুকতার, কেউ বা দেয়াল লিখন বা শিল্পকর্মকে বেছে নিয়েছেন। সবারই লক্ষ্য সমাজ পরিবর্তন, সমাজে নারীর প্রতি বৈষম্য, নির্যাতন বন্ধ করা।

মায়াম মাহমুদ মিশরের এক অন্যরকম বিপ্লবীর নাম। রাস্তায় মেয়েদের উত্যক্ত করা রোধে তিনি বেছে নিয়েছেন তার গান। তার সময়ের ভিন্নধর্মী নারী শিল্পীদের অন্যতম তিনি। গানের মধ্য দিয়ে তিনি প্রতিবাদ করে যাচ্ছেন যা তাকে ছুঁয়ে গেছে, যা তাকে কষ্ট দিয়েছে, বা বন্ধুদের, এমনকি সমবয়সীদেরও মনের কথা।

তবে তিনিই একমাত্র নন। রাস্তায় হয়রানি বা উত্যক্ত করার বিরুদ্ধে নানারকম প্রতিবাদ চোখে পড়ছে বিশ্বজুড়ে। স্ট্রিট আর্ট বা গ্রাফিতির মধ্য দিয়ে নানারকম প্রতিবাদের ভাষা ফুটিয়ে তুলছেন ব্লগার সুজিইনদ্যসিটি।

মিশরে গ্রাফিতি স্ট্রিট আর্ট করেন ব্লগার সোরায়াইয়া মোরায়েফ। মোরায়েফ বলছিলেন, মিশরের বিপ্লব থেকে তিনি কিভাবে এই শিল্পের প্রতি অনুরাগী হয়ে উঠেন।

যেকোনো কথা বা ভাষার চাইতেও আর্ট যে একটা শক্তিশালী প্রতিবাদের মাধ্যম হতে পারে, এটা তিনি আগে জানতেন না। বিশেষ করে একজন নারী হয়ে রাস্তায় শিল্পকর্ম ফুটিয়ে তোলাটাই অনেক বড় প্রতিবাদ।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.