কালকেও চলবে গণতন্ত্রের অভিযাত্রা কর্মসূচি

89_Khaleda+Zia_291213
ছবিটি বিডিনিউজ থেকে নেয়া

উইমেন চ্যাপ্টার: আগামীকাল সোমবারও গণতন্ত্রের অভিযাত্রা নামের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়া। বাড়ির ফটকে প্রায় এক ঘণ্টা অপেক্ষার পরও বের হতে পারেননি পুলিশি বাধার মুখে। পরে বিকল্প পথে বাড়ির ভিতরে ঢোকা সাংবাদিকদের কাছে তিনি ক্ষুব্ধ কণ্ঠে সরকারের পদত্যাগের দাবি জানান।  এর আগে তিনি কয়েকটি টেলিভিশনের ক্যামেরার সামনে বলেন, ‘এই সরকার অবৈধ সরকার, অগণতান্ত্রিক সরকার। সরকারের যদি লজ্জা থাকে তাহলে অবিলম্বে তাদের বিদায় নেয়া উচিৎ’।

খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘গণতন্ত্রের অভিযাত্রা’র যে কর্মসূচি আজ ছিল তা কাল সোমবারও অব্যাহত থাকবে। এ সময় তিনি  বলেন, এই সরকার অবৈধ সরকার, অগতান্ত্রিক সরকার। এই সরকার ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করতে সবকিছু করছে।

এর আগে বিকেল চারটার দিকে খালেদা জিয়ার বাড়ির প্রধান ফটকটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। এসময় তিনি বাড়ির লনে জাতীয় পতাকা হাতে বসে ছিলেন। এর কিছুক্ষণ পরে খালেদা জিয়া বাসার ভেতরে ঢুকেন।

এর আগে গুলশানের বাসভবনের সামনে পুলিশের নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়। বর্তমানে আট প্লাটুন পুলিশ বাড়িটি ঘিরে রেখেছে। আরও দুই প্লাটুন পুলিশ মোতায়েনের অপেক্ষায় রয়েছে বলে জানা গেছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ির সামনে একটি জলকামানও নেওয়া হয়।

এ ছাড়া বাড়ির সামনের রাস্তায় বালুভর্তি তিনটি ট্রাক ও পেছনের রাস্তায় দুটি ট্রাক আড়াআড়িভাবে রেখে সড়ক বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বাড়ির সামনে সাংবাদিকদের যেতে দেওয়া হয়নি।

গত মঙ্গলবার খালেদা জিয়া ২৯ ডিসেম্বর বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮-দলীয় জোটের ‘গণতন্ত্রের অভিযাত্রা’ কর্মসূচির ঘোষণা দেন। এরই অংশ হিসেবে আজ রোববার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করার কথা। কিন্তু পুলিশ তাঁদের সমাবেশ করার অনুমতি না দিলেও যেকোনো মূল্যে কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছিলেন বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮-দলীয় জোট। আর এই কর্মসূচিতে খালেদা জিয়া উপস্থিত থেকে গণতন্ত্রের অভিযাত্রায় নেতৃত্ব দেবেন বলে গতকাল দলের ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ জানান।

কিন্তু এই কর্মসূচিতে যোগদান ব্যাহত করার লক্ষ্যে গত দুদিন ধরেই ঢাকায় প্রবেশের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করা হয়। কোন ধরনের যানবাহন চলাচল করতে দেয়া হয়নি। হালকা যানবাহনে করে বা খালি পায়ে যারা প্রবেশ করেছেন তাদেরকেও ব্যাপক তল্লাশি করা হয়।

বিএনপির চেয়ারপারসনের বাড়ির আশপাশে সকাল থেকে সাংবাদিকদের প্রবেশে বাধা দিলে শেষ পর্যন্ত বিকল্প পথে খালেদা জিয়ার কাছে পৌঁছে যান সাংবাদিকেরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বেলা সাড়ে তিনটার দিকে গুলশানে খালেদা জিয়ার বাসভবনের দক্ষিণ-পূর্বপাশে একটি বাড়ির সীমানাপ্রাচীর বেয়ে সাংবাদিকদের একটি দল খালেদা জিয়ার বাড়ির সীমানাপ্রাচীরের কাছে যান। এ সময় খালেদা জিয়ার বাড়ির ভেতর থেকে তাঁদের জন্য একটি মই দেওয়া হয়। কয়েকজন সাংবাদিক সেই মই বেয়ে খালেদা জিয়ার বাড়িতে ঢোকেন। পরে তাঁরা খালেদা জিয়ার গাড়ির কাছে গিয়ে সংবাদ সংগ্রহ করেন।

খালেদা জিয়া একদিন আগে এক ভিডিও বার্তায় তিনি উপস্থিত হতে না পারলেও সমাবেশ চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। সেইসঙ্গে সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যেতে বলেন তিনি।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.