তিন ঘন্টা অবরুদ্ধ খালেদা

Khaleda 6উইমেন চ্যাপ্টার: নেতা-কর্মীদের কেউই ছিলেন না তখন। ব্যাপক ধরপাকড়ের মধ্যে তাদের পক্ষে সম্ভবও ছিল না নেত্রীর কাছে আসার। শুধুমাত্র একদল সাংবাদিকই এসময় প্রবেশের অনুমতি পেয়েছিলেন। গুলশানের বিএনপি কার্যালয়ে তিন ঘণ্টা এভাবেই অবরুদ্ধ ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে গুলশানের বাড়ি থেকে কার্যালয়ে যান বিরোধীদলীয় নেতা। সেখানে ব্যাপক সংখ্যক পুলিশ অবস্থান নিয়ে ছিল আগে থেকে।

খালেদার বাড়ি থেকে তার সঙ্গে আসা জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরীন সুলতানাই কেবল ঢুকতে পেরেছিলেন কার্যালয়ে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান ও ঢাকা মহানগর মহিলা দলের সভাপতি সুলতানা আহমেদ গাড়ি থেকে নেমে গুলশানের ওই ভবনের কাছেই কিছু সময় অপেক্ষা করার পরও পুলিশের অনুমতি পাননি।

রাত ৯টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত এভাবে চলার পর বিরোধী দলীয় নেতাও তার বাড়ির পথে রওনা হন।ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি রুহুল আমিন গাজীর নেতৃত্বে বিএনপি চেয়ারপারসনের সঙ্গে দেখা করতে যান জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য খোরশেদ আলম ও বাসির জামাল এবং ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান।

এদিকে এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপি বলেছে, তাদের রোববারের ‘গণতন্ত্র অভিযাত্রা’য় বাধা দিতেই দলীয় চেয়ারপারসনকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে।

নির্বাচন প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়ে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে কর্মসূচি ঘোষণার পর ওই রাত থেকেই খালেদার গুলশানের বাড়ির পাহারায় পুলিশের সংখ্যা দ্বিগুণ করা হয়। তবে পুলিশ বলছে, বিরোধী দলীয় নেতার নিরাপত্তার স্বার্থেই এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.