‘দ্য বাস্টার্ড চাইল্ড’-মুক্তির আগেই আলোচনার শীর্ষে

Raimaউইমেন চ্যাপ্টার: সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোতে বেশ কিছুদিন ধরেই চলছে ‘দ্য বাস্টার্ড চাইল্ড’ ছবির ট্রেলার। নতুন করে একাত্তরকে সামনে এনে দিয়েছে এই ছবি। চোখের জল ধরে রাখা কঠিন যেকোনো সচেতন বাঙালীর পক্ষে। একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে হানাদার বাহিনীর হাতে ধর্ষিত নারীদের দুঃখগাঁথা নিয়ে তৈরি হয়েছে চলচ্চিত্র ‘দ্য বাস্টার্ড চাইল্ড’। হিন্দি ভাষায় নির্মিত ছবিটি ভারতে মুক্তি পাচ্ছে আগামীকাল ২৭ ডিসেম্বর।

স্বাধীন বাংলাদেশকে কাঙ্খিত বিজয় অর্জনে নিজেদের স্বজন, সম্ভ্রম, জীবন সবকিছু দিতে হয়েছে এদেশের নারীদের। নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত, উচ্চবিত্ত কেউই বাদ যায়নি এই ত্যাগের তালিকা থেকে। দেশকে শত্রুমুক্ত করতে প্রত্যক্ষ সংগ্রামেও শামিল হয়েছিলেন নারীরা। পাকিস্তানি হানাদার আর তাদের দোসর, রাজাকার-আলবদরের প্রতিহিংসা ও লালসার শিকার হয়েছেন সাত থেকে সত্তুর বছর বয়সী বীরাঙ্গনারা। একাত্তরের সেই নারীদের একজনের চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়ে বীরাঙ্গনাদের দুঃখ উপলব্ধি করতে পেরেছেন ভারতীয় বাঙ্গালী অভিনেত্রী রাইমা সেন।

আলোচিত এই ছবিতে ফিদা চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাইমা সেন। তিনি বলেন, “ছবিটি বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধে ধর্ষণের শিকার নারীদের নিয়ে বানানো হয়েছে, যে যুদ্ধে ধর্ষণ ব্যবহৃত হয়েছিল অস্ত্র হিসেবে। টানা ২১ দিন আমরা অন্ধকারে শুটিং করেছি। দিনের আলো দেখতে পাইনি। বুঝতে পেরেছি, মুক্তিযুদ্ধের সময় নারীরা কী অবর্ণনীয় কষ্টের ভেতর দিয়েই না গেছেন।”

‘দ্য বাস্টার্ড চাইল্ড’ পরিচালনা করেছেন মৃত্যুঞ্জয় দেবব্রত। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন ভিক্টর ব্যানার্জি, ফারুক শেখ, ইন্দ্রনীল সেনগুপ্ত, ঋদ্ধি সেন, পবন মালহোত্রা প্রমুখ।

সেন্সর নামের জটিলতায় ছবির মুক্তি পিছিয়ে গেলেও, শেষ পর্যন্ত এই মাসের শেষ শুক্রবার ছবিটি মুক্তির মাধ্যমে রচিত হতে যাচ্ছে রূপালী পর্দায় মুক্তিযুদ্ধের অন্ধকার ইতিহাসের এক চিত্র। এ ছবির ট্রেইলার ইতোমধ্যে বাংলাদেশসহ বহু দেশের মানুষের মনকে নাড়া দিয়ে গেছে। বিশেষ করে একাত্তরে স্বজন হারানো পরিবারগুলো নতুন করে যেন একাত্তরকে দেখতে পাচ্ছে এই ছবিতে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.