১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রাণভিক্ষার সময়সীমা

Kader Mollaউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: ৮ ডিসেম্বর থেকে সাত দিন পর্যন্ত একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে ফাঁসির দণ্ড পাওয়া জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লার রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার সুযোগ আছে।
আজ মঙ্গলবার ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ কারা তত্ত্বাবধায়ক (জেল সুপার) ফরমান আলী এ তথ্য জানান।

সকালে কারাগারের সামনে সাংবাদিকদের ফরমান আলী বলেন, ‘যেদিন ওয়ারেন্ট পেয়েছি, সেদিন থেকে সাত দিন কার্যকর হবে। ৮ তারিখ থেকে কাউন্ট ডাউন শুরু হয়েছে। এখন সরকারের আদেশ-নির্দেশের অপেক্ষায় আছি।’

রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন করার বিষয়ে কাদের মোল্লার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে বলে জানান ফরমান আলী। তবে কাদের মোল্লা এ বিষয়ে স্পষ্ট কোনো মতামত জানাননি বলে তিনি দাবি করেন।

এদিকে আবদুল কাদের মোল্লা শারীরিক ও মানসিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন বলে জানিয়েছেন তাঁর দুই আইনজীবী। আজ ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে কাদের মোল্লার সঙ্গে দেখা করার পর তাঁর দুই আইনজীবী সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

এ সময় আবদুর রাজ্জাক বলেন, যত দ্রুত সম্ভব রিভিউ আবেদন করা হবে। রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার বিষয়টি বিবেচনা করছেন কাদের মোল্লা। রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চেয়ে আবেদনের সময়সীমা গতকাল ৯ ডিসেম্বর থেকে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত দাবি করে তিনি বলেন, ২১ বা ২২ ডিসেম্বর তাঁরা আবারও কাদের মোল্লার সঙ্গে দেখা করবেন। তখন কাদের মোল্লা তাঁদের জানাবেন, তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করবেন, নাকি করবেন না।

কাদের মোল্লা নিজেকে সম্পূর্ণ নির্দোষ মনে করেন বলেও জানান আইনজীবী আবদুর রাজ্জাক। তাঁর দাবি, রায়ের কপি পাওয়ার অধিকার কাদের মোল্লার আছে।

গত রোববার আবদুল কাদের মোল্লার বিরুদ্ধে মৃত্যুপরোয়ানা জারি করা হয়।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.