খালেদার প্রতি বিক্ষুব্ধ চালকদের বিষোদগার

Transport strikersউইমেন চ্যাপ্টার: টানা অবরোধ ও ভাংচুর-অগ্নিসংযোগে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবহন চালক-শ্রমিকরা অবশেষে রাস্তায় নামতে বাধ্য হলেন। সোমবার তারা বিরোধী দলীয় নেতা খালেদা জিয়ার বাড়ি ঘেরাও করতে গুলশানের দিকে মিছিল নিয়ে এগিয়ে যান, তবে তার আগেই তাদের গতিরোধ করে পুলিশ। পরে তারা রাস্তায় বসে এবং শুয়ে প্রতিবাদ জানান।

ট্রাকচালকদের এ কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে ও বিরোধীদলীয় নেতার বাসভবনের আশপাশে ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। তবে বেলা একটার দিকে সেখান থেকে অতিরিক্ত পুলিশ প্রত্যাহার করা হয়।

বেলা সোয়া ১১টার দিকে ‘সম্মিলিত গাড়িচালক সমাজ’ ব্যানারে মহাখালী বাস স্ট্যান্ড থেকে হাজারখানেক চালক এই মিছিল বের করে।

‘দুনিয়ার মজদুর এক হও’; ‘আমার ভাই মরলো কেন, খুনি খালেদা জবাব দে’; ‘ঘেরাও ঘেরাও ঘেরাও হবে, খালেদা জিয়া ঘেরাও হবে’- ইত্যাদি স্লোগান দিতে দিতে তারা গুলশানে খালেদা জিয়ার বাড়ির দিকে এগোতে থাকেন।

মিছিলকারীরা বলেন, একের পর এক হরতাল-অবরোধে গাড়ি চালকরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। তাদের গাড়িতেই কেবল আগুন দেয়া হচ্ছে না, পুড়িয়েও মারছে। পেটের দায়ে গাড়ি নিয়ে বের হতেও এখন ভয় পাচ্ছেন বলে তারা জানান। এই ঘটনার প্রতিবাদে তারা বিরোধী দলীয় নেত্রীর বাসভবন ঘেরাওয়ের সিদ্ধান্ত নেন।

মিছিলটি কাকলী মোড় পার হয়ে গুলশান ২ মোড়ে পৌঁছানোর পর পুলিশ তাদের বাধা দেয়। পুলিশ জানায়, নিরাপত্তার স্বার্থে এবং বিশৃঙ্খলা এড়াতেই এই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

টেক্সিক্যাব চালক আশরাফ আলী একটি অনলাইন পত্রিকাকে বলেন, “হরতাল অবরোধের নামে সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মারা ও সহিংসতা বন্ধ করতে আমরা এই আন্দোলন শুরু করেছি। যতোক্ষণ না সহিংসতা বন্ধ না হচ্ছে, ততোক্ষণ আমাদের এই আন্দোলন চলবে।”

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.