চারদিনের রিমান্ডে ব্যারিস্টার ফখরুল

Judge Fakhrulউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে দণ্ডপ্রাপ্ত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর রায়ের খসড়া ফাঁসের অভিযোগে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় তার আইনজীবী ব্যারিস্টার এ কে এম ফখরুল ইসলামকে চার দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। পুলিশের রিমান্ড ও আসামির জামিন আবেদনের শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম এমদাদুল হক আজ এই আদেশ দেন। ফখরুলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে গত বৃহস্পতিবার সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। অন্যদিকে আসামির আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করেন।

ফখরুলের পক্ষে শুনানি করেন মাসুদ আহমেদ তালুকদার ও সানউল্লাহ মিয়া। শুনানি শেষে জামিন নাকচ করে হাকিম এমদাদুল হক চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত ২০ নভেম্বর সেগুনবাগিচায় পাইওনিয়ার রোডের চেম্বার থেকে আইনজীবী ফখরুলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, গত ১০ অক্টোবর ট্রাইব্যুনালের কর্মচারী নয়ন আলী এবং ১৩ অক্টোবর ট্রাইব্যুনালের সাঁটলিপিকার ফারুক হোসেন বিচারকের কাছে দেওয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ফখরুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ফখরুলের পরিকল্পনায় তার সহকারী মেহেদী হাসান পেনড্রাইভের মাধ্যমে রায়ের খসড়া কপি ট্রাইব্যুনাল থেকে সরিয়ে নিয়ে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করেন বলে ওই দুই আসামি আদালতকে জানিয়েছেন বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.