শ্রীলংকায় তামিল ইস্যুতে ক্যামেরনের আহ্বান

Cameronউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: শ্রীলংকায় গৃহযুদ্ধের অবসানের পর এখন মানবাধিকার ইস্যুসমূহ এবং ঐকমত্যের ওপর জোরারোপ করার জন্য দেশটির প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন।

শ্রীলংকার জাফনায় সংখ্যালঘু তামিল সম্প্রদায়ের অবস্থা সরেজমিন পরিদর্শন করে এসে প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকশের সাথে সাক্ষাত করেন ক্যামেরন। মি. ক্যামেরন জানান, যুদ্ধাপরাধের ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন রাজাপাকশের প্রতি, নয়তো জাতিসংঘের তদন্ত কমিটির মুখোমুখি হতে হবে বলেও হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন।

শ্রীলংকায় কমনওয়েলথ সম্মেলনের প্রাক্কালে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ডেভিড ক্যামেরন। তিনি বলেন, ধরেই নেয়া যায় যে, এজন্য সময় দরকার। তবে সবকিছু ঠিকমতো, ঠিকপথে এগোচ্ছে কিনা, সেটাও বিবেচনার বিষয়। জনগণের সাথে ঐকমত্যের ভিত্তিতেই বিষয়টির সমাধান হতে পারে।

মি. ক্যামেরন বিশ্বখ্যাত শ্রীলংকান ক্রিকেটার মুত্তিয়া মুরালিধরনের সাথেও সাক্ষাত করেন। মি. মুরালিধরণ দেশের ঐকমত্য স্থাপনে কাজ করে যাচ্ছেন। ক্যামরনের শ্রীলংকা সফরের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে মুরালিধরন বলেন, তবে দেশের পরিস্থিতি সম্পর্কে ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছে ক্যামেরনকে। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘অন্যরা মি. ক্যামেরনকে ভুলতথ্য দিয়েছে। লোকজন ঘটনাস্থলে না গিয়ে, পরিস্থিতি না দেখেই কথা বলছে। আমি সেখানে গিয়েছি। আমি নিজের চোখে সেখানকার উন্নতি দেখে এসেছি’।

শ্রীলংকা থেকে বিবিসির রাজনৈতিক সম্পাদক নিক রবিনসন বলেন, ডেভিড ক্যামেরন এবং রাজাপাকশের মধ্যকার সাক্ষাতটি স্পষ্টই উত্তেজনাপূর্ণ এবং কঠিন ছিল। ক্যামেরন বলেছেন, তিনি আগামী মার্চে মানবাধিকার কাউন্সিলের বৈঠকে জাতিসংঘকে নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠনের জন্য চাপ সৃষ্টি করবেন।

এদিকে রাজাপাকশে বলেছেন, যুদ্ধশেষে শ্রীলংকায় এখন শান্তি, স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে, দেশে উন্নয়ন ঘটছে।

 

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.