পিয়ানো বাজানোই কাল হলো তার

Spanish Pianistউইমেন চ্যাপ্টার: পিয়ানো বাজানোর কারণে এক নারী পিয়ানো বাদকের বিরুদ্ধে শব্দদূষণের অভিযোগ আনা হয়েছে। এই অভিযোগে তাঁর ২০ মাসের কারাদণ্ড চেয়েছেন আইনজীবীরা। শুধু তাই নয়, ছয় মাসের জন্য তাঁকে পিয়ানো বাদন থেকে নিষিদ্ধ করারও দাবি করেছেন তারা। ঘটনাটি ঘটেছে স্পেনে।

বিবিসি অনলাইনে এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, মিউজিশিয়ান লাইয়া মার্তিন এবং তার মা-বাবার বিরুদ্ধে শব্দদূষণের অভিযোগটি করেছেন তাদেরই সাবেক প্রতিবেশী সোনিয়া বোসম। পিয়ানোর শব্দে মনস্তাত্ত্বিক ক্ষতির অভিযোগও করেছেন ওই প্রতিবেশী। এদিকে মার্তিন এবং তার বাবা-মা বলেছেন, তারা যথাসাধ্য চেষ্টা করেছেন নিজের রুমটি ‘সাউন্ডপ্রুফ’ করতে।

আদালতে আইনজীবীরা ওই পিয়ানোবাদকের ২০ মাসের কারাদণ্ডাদেশ ও ছয় মাসের জন্য তাঁর পিয়ানো বাজানো নিষিদ্ধ করার আবেদন জানিয়েছেন। দোষী প্রমাণিত হলে তাঁদের জরিমানা করা হতে পারে। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে এই মামলার রায় হওয়ার কথা।

অভিযোগে বলা হয়, ওই পিয়ানোবাদক ২০০৩ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত সপ্তাহে পাঁচ দিন আট ঘণ্টা করে পিয়ানো চর্চা করতেন। এতে বাদী মনস্তাত্ত্বিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। অবস্থা এমন হয়েছে যে পিয়ানোর প্রতি তাঁর একধরনের ভীতি তৈরি হয়েছে। এখন চলচ্চিত্রেও পিয়ানো বাজানো সহ্য করতে পারেন না তিনি।

আইনজীবীরা দাবি করেছেন, বাদী চার বছর ধরে এই অত্যাচার সহ্য করেছেন।
মার্টিনের পরিবার দাবি করেছে, পিয়ানো বাজানোর কক্ষটি শব্দরোধী করার চেষ্টা করা হয়েছে। অবিরাম পিয়ানো চর্চার বিষয়ে যে দাবি করা হয়েছে, তা সঠিক নয়।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.