হরতালের সহিংসতায় অগ্নিদগ্ধ মনিরের মৃত্যু

monirউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: হরতালের সহিংসতার শিকার হয়ে শরীর ঝলসে যাওয়ার তিনদিন পর আজ মৃত্যুবরণ করল কিশোর মনির (১৫)।

মনিরের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চাপাইর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো: সেতু।

তিনি জানান, মনিরের লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা আছে। হাসপাতাল থেকে লাশটি বাড়ি নেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বিএনপির নেতৃত্বাধীন ১৮-দলীয় জোটের ৬০ ঘণ্টার হরতাল চলাকালে গত সোমবার সকাল ১০টার দিকে গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তায় হরতাল সমর্থকদের দেয়া আগুনে মনিরের শরীরের ৯৫ ভাগই পুড়ে যায়।

গুরুতর আহত অবস্থায় মনিরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা জানান, সাধারণত মানুষের শরীরের ১৪ ভাগের বেশি পুড়লেই অবস্থা আশঙ্কাজনক হিসেবে ধরা হয়। তবুও বাঁচানোর চেষ্টায় ত্রুটি করেননি তারা।

শেষ পর্যন্ত তিন দিন মৃত্যুর সাথে লড়াই করে হার মানে মনির।

মনির গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বড় কাঞ্চনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র ছিল।

ঘটনায় জয়দেবপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান জয়দেবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এম কামরুজ্জামান।

মামলায় আসামি করা হয়েছে গাজীপুর জেলা জামায়াতের আমির আবুল হাসেম খান, সাধারণ সম্পাদক এস এম সানাউল্লাহ, সহসাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক ও প্রচার সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর শহর জামায়াতের সভাপতি খায়রুল হাসান, বিএনপির নেতা সাবেক কাউলতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন, গাজীপুর সিটির ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তানবির আহমেদসহ ৫৪ জনের নাম উল্লেখ করে। অজ্ঞাতনামা আরও ২৫-৩০ জনকে আসামি করা হয়েছে। তবে, এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি বলে জানান ওসি কামরুজ্জামান।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.