পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম ৫৩০০ টাকা মজুরির প্রস্তাব

rmgউইমেন চ্যাপ্টার: তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকদের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের মুখে ৫ হাজার ৩০০ টাকা ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণের প্রস্তাব করেছে সরকার গঠিত মজুরি বোর্ড। আট হাজার টাকা মজুরির দাবিতে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন চালিয়ে আসছে শ্রমিক সংগঠনগুলো। সেই আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে অবশেষে কিছুটা অগ্রগতি হলেও মালিকপক্ষ তাতে অসম্মতি জানিয়েছে। সোমবার ঢাকার তোপখানা রোডে নিম্নতম মজুরি বোর্ডের কার্যালয়ে মালিক ও শ্রমিক পক্ষের প্রতিনিধিদের নিয়ে নবম সভায় এই প্রস্তাব চূড়ান্ত করা হয়।

তবে এই প্রস্তাবে আপত্তি জানিয়ে মালিকপক্ষের প্রতিনিধিরা সভা থেকে বেরিয়ে যান। তার এ প্রস্তাবের বিষয়ে ভোটও দেননি। ভোটাভুটিতে ছয় সদস্যের মধ্যে চারজনের সমর্থন পাওয়ায় ৫ হাজার ৩০০ টাকা ন্যূনতম মজুরি নির্ধারণের খসড়া প্রস্তাব চূড়ান্ত করা হয় বলে জানিয়েছেন বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কে রায়।  শ্রমিকপক্ষের দুই প্রতিনিধিও এই প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন।

নিম্নতম মজুরী বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কে রায়ের সভাপতিত্বে সভায় বোর্ডের বাকি পাঁচ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন।

এদিকে আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বৈঠক শুরু হলে নিম্নতম মজুরি বোর্ডের কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ করেন তিনটি শ্রমিক সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।  প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিম্নতম মজুরি আট হাজার টাকার দাবিতে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট ও বাংলাদেশ গার্মেন্ট শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নেতা-কর্মীরা বোর্ডের কার্যালয় ঘেরাও করে বিক্ষোভ শুরু করেন।

গত বৃহস্পতিবারের অষ্টম সভায় মালিকপক্ষ চার হাজার ২৫০ টাকার নতুন প্রস্তাব দেয়। এর মধ্যে মূল মজুরি দুই হাজার ৫০০, বাড়িভাড়া এক হাজার, চিকিত্সা ভাতা ২৫০, খাদ্য ভর্তুকি ৩০০ ও যাতায়াত ভর্তুকি ২০০ টাকা। তবে শ্রমিকপক্ষ এই প্রস্তাবের বিরোধিতা করলে বোর্ডের নিরপেক্ষ সদস্য সমঝোতার জন্য পাঁচ হাজার টাকার বিকল্প প্রস্তাব দেন।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.