ফোনে আঁড়িপাতার খবর জানতেন না ওবামা

0

Obama-Merkelউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেলের ফোনে আঁড়ি পাতার প্রথম খবরটি জানার পরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট দুঃখ প্রকাশ করেছেন তাঁর কাছে।

জার্মান গণমাধ্যমে প্রকাশিত নতুন একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের ফোনে আঁড়ি পাতার ব্যাপারটি ২০১০ সাল থেকেই জানতেন।

বিবিসি বলছে, যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা এনএসএ এমন অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে। সংস্থাটির প্রধান জেনারেল কিথ আলেক্সান্ডার এক বিবৃতিতে বলেছেন, তিনি কখনো এমন কোন বিষয় প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলাপ করেননি।

বিষয়টি নিয়ে দু’দেশের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটছে এবং এ নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে পুরো ইউরোপ জুড়েই। এমনকি খোদ যুক্তরাষ্ট্রেও এনএসএ এর এমন কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে বিক্ষোভ হয়েছে।  ওয়াশিংটনের কাছে বিষয়টির একটি বিশ্বাসযোগ্য ব্যাখ্যা দাবি করেছেন জার্মানির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হ্যান্স পিটার ফ্রেডেরিখ।

মি ফ্রেডেরিখ বলেন, ‘এখন যুক্তরাষ্ট্র নীতিগতভাবে এ বিষয়ে সকল তথ্য উপস্থাপনে বাধ্য। আমরা বিষয়টির পূর্ণাঙ্গ ব্যাখ্যা এবং আসলে বিষয়টি কি তা জানতে চাই’।

জার্মান পত্রিকায় প্রকাশিত ঐ প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সূত্রগুলোর উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়, মার্কেলের ওপর নজরদারির কথা ২০১০ সালে ওবামাকে জানিয়েছিলেন এনএসএ’র তৎকালীন প্রধান কিথ আলেক্সান্ডার।

আর বিষয়টি জানার পরও ওবামা এই গোয়েন্দা নজরদারি থামাতে বলেননি বরং তা চালিয়ে যেতে বলেন।

জার্মান পত্রিকার রিপোর্টে আরও বলা হয়, ২০০২ সাল থেকেই মিসেস মার্কেলের ফোনে আঁড়ি পাতা হচ্ছিল। যার তিন বছর পর মিসেস মার্কেল চ্যান্সেলর হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

এদিকে জার্মানির বিরোধী রাজনীতিবিদদের মধ্য থেকেও বিষয়টি নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা হয়েছে।

গ্রিন পার্টির ক্রিস্টিয়ান স্টোরবেল বলেছেন, ‘চ্যান্সেলরকে এর আগে তথ্য দেওয়া হয়েছিল যে যুক্তরাষ্ট্র এবং যুক্তরাজ্য জার্মান নাগরিকদের ওপর গোপনে নজরদারি করছে। কিন্তু বিষয়টির কোন সমাধান করতে ব্যর্থ হয়েছেন’।

গত বুধবার মার্কিন গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে মোবাইল ফোনে আঁড়ি পাতার প্রথম খবরটি জানার পরই মার্কেল যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টকে ফোন করেন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট সেজন্য চ্যান্সেলরের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লেখাটি ১ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.