সরকার গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করছে

rijvi
ফাইল ছবি

উইমেন চ্যাপ্টার: পুলিশ নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নেতা-কর্মীদের ঢুকতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন রুহুল কবির রিজভী। পুলিশ বেষ্টনির মধ্যে থাকা কার্যালয়ের ভেতরে শনিবার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন তিনি। তিনি এই ঘটনাকে গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ বলে উল্লেখ করেন।

নির্দলীয় সরকারের দাবিতে আগামী ২৫ অক্টোবর বিএনপির ডাকা সমাবেশকে কেন্দ্র করে গত কয়েকদিন ধরেই নয়া পল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছে পুলিশ। ফকিরাপুল মোড় থেকে বিজয়নগর পর্যন্ত বিভিন্ন গলিতেও পুলিশের অবস্থান রয়েছে। একইদিন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ রাজপথে থাকার ঘোষণা দেওয়ায় মানুষের মধ্যে একধরনের আতংক কাজ করছে।

সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সদস্যদেরও বিএনপি কার্যালয়ের সামনে দেখা যাচ্ছে। গোয়েন্দা সংস্থার একটি সাদা মাইক্রোবাস ও প্রিজন ভ্যানও সেখানে রয়েছে।

শনিবার সকালে যুবদলের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আবদুস সালাম আজাদ কার্যালয়ে এলেও পুলিশ তাকে ঢুকতে দেয়নি। কার্যালয়ের প্রধান ফটকে ভেতর থেকে তালা লাগিয়ে রাখা হয়েছে।

রিজভী বলেন, “গত দুইদিন ধরে নেতা-কর্মীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। কেউ এলে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

“কোনো কারণ ছাড়াই সরকার দেশের একটি বৃহত্তম রাজনৈতিক দলের কার্যালয় পুলিশ দিয়ে এভাবে অবরুদ্ধ করে রাখা গণতান্ত্রিক রীতিনীতির পরিপন্থী। বিরোধী দলকে দাবিয়ে রাখতে সরকার এসব কাজ করছে বলে আমরা মনে করি।”

রিজভী গত বৃহস্পতিবার রাতে নয়া পল্টনের কার্যালয়ে ঢোকেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক আমিনুল ইসলামসহ কয়েকজন নেতা এবং অফিস সহকারীরা বিএনপি কার্যালয়ে রয়েছেন।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.