“উন্নয়নের জন্য নৌকাকে বিজয়ী করুন”

PMউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: বন্দর নগরীর উন্নয়নে আবারও নৌকাকে নির্বাচিত করার আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার বহদ্দারহাট ফ্লাইওভারসহ ২১টি প্রকল্প উদ্বোধনের পর এক সুধী সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের জনগণের কাছে ভোট ও দোয়া চান।

প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের উন্নয়নে সরকারের আন্তরিকতার কথা বলতে গিয়ে বলেন, ‘এবার সরকার গঠনের পর যতবার চট্টগ্রাম এসেছি, ততবার টুঙ্গীপাড়াতেও যাইনি। এতে থেকে বোঝা যায়, চট্টগ্রামের উন্নয়নে আমরা কতটা আন্তরিক ও সচেষ্ট।’

চট্টগ্রামকে যানজট ও জলাবদ্ধতামুক্ত আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে তার সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

“একসময় এখানকার রাস্তাঘাট খারাপ ছিল। মহিউদ্দিন চৌধুরী যখন মেয়র ছিলেন, তখন চট্টগ্রামের চেহারা পাল্টে যায়। চট্টগ্রামকে যানজটমুক্ত আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।”

এ সময় প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের আকাঙ্খিত উন্নয়নে পিছিয়ে পড়ার কারণে বিএনপির সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, “১৯৯৬ থেকে ২০০১ পর্যন্ত আমাদের সরকারের ধারাবাহিকতা পরবর্তী সরকার ধরে রাখতে পারেনি।”

চট্টগ্রামের বিদ্যুৎ সমস্যার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামবাসীকে বলেন, “কিছু সমস্যা হচ্ছে, নতুন সঞ্চালন লাইন নির্মাণের কাজ চলছে, ভবিষ্যতে আর হবে না।”

প্রধানমন্ত্রী ২০০৮ সালের নির্বাচনে চট্টগ্রাম জেলা ও নগরী মিলিয়ে ১৬টি আসনের ১১টিতে মহাজোটকে বিজয়ী করাতে চট্টগ্রামবাসীকে ধন্যবাদ জানান। সেই সাথে আবারও সেবা করার সুযোগ চান।

চট্টগ্রামের উন্নয়ন নিয়ে ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন তিনি। তিনি বলেন, বন্দরের নিজস্ব অর্থায়নে বিমানবন্দর থেকে বারিক বিল্ডিং হয়ে কর্ণফুলী তৃতীয় সেতু পর্যন্ত এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ করা হবে, চট্টগ্রাম-ঢাকা মহাসড়ক চার লেনের কাজ চলছে, রেল লাইন উন্নত করার প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, গোমতী ও মেঘনা নদীর ওপর আরো দুটি সেতু নির্মাণ করা হবে, কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.