প্রবাসী নারী কর্মীদের কর্মনিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সরকারের উদ্যোগ

এক্সক্লুসিভ : বিশ্ব শ্রমবাজারে এদেশের নারী কর্মীদের সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। বিদেশে অবস্থানকারী নারী কর্মীদের কর্মস্থলে যাতে যথাযথ সম্মান নিয়ে কাজ করতে পারে সে ব্যাপারে সরকার গুরুত্বারোপ করেছে। একই সাথে এদেশের নারী কর্মীরা বিদেশে চাকরি নিয়ে যাতে কোনো ধরনের প্রতারণার শিকার না হয় সেজন্য একটি ওয়েবসাইট খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ওই ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই নারী কর্মীরা জানতে পারবেন কোন দেশে কী ধরনের চাকরি নিয়ে যাচ্ছেন। এক্ষেত্রে কোনো নারী কর্মী কোনো চাকরির বিষয়ে ঝুঁকি মনে করলে আগেই প্রতারণা থেকে রক্ষা পাওয়ার সুযোগ পাবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, বিদেশে এদেশের নারী কর্মীদের সব ধরনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। কারণ প্রবাসে কর্মরত অনেক নারী কর্মীকেই মারাত্মক নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে কাজ করতে হচ্ছে। কেউ কেউ বছরের পর বছর যৌন নিপীড়নের শিকার হচ্ছে। প্রবাসে নারী কর্মীদের এসব অহেতুক ঝুটঝামেলা থেকে রক্ষা করতেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ওয়েবসাইট চালু করতে যাচ্ছে। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে বিএমইটি কয়েকটি সংস্থার সহযোগিতায় এ ওয়েবসাইট তৈরি করছে।
সূত্র জানায়, বর্তমানে কোন দেশে কত নারী শ্রমিক কাজ করছেন এবং আগামীতে আরো কত শ্রমিক বিভিন্ন দেশে যাবেন প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে তৈরি ওয়েবসাইটে তার সব তথ্য থাকবে। এমনকি বিদেশে তারা কী কী কাজে যাচ্ছেন তারও বিস্তারিত বিবরণ থাকবে। যারা নতুন চাকরি নিয়ে যাবেন, তাদের বেলায় চাকরির ধরন কী, তাকে কি কাজ করতে হবে সব তথ্যই ওই ওয়েবসাইটে থাকবে। সহজেই যেন একজন নারী শ্রমিক জানতে পারেন তিনি যে দেশে চাকরি নিয়ে যাচ্ছেন সেদেশে তার চাকরি ও সে নিজে কতটা নিরাপদ। কারণ বিশ্বের অনেক দেশেই কয়েক লাখের বেশি নারী শ্রমিক কাজ করছে। একই সাথে নারী শ্রমিক বা কর্মীরা সৃষ্টি করছেন নতুন নতুন চাকরির বাজারও। যদিও বিদেশে নারী কর্মীদের মধ্যে বিশেষ করে নার্স, গার্মেন্টস ও গৃহকর্মীর সংখ্যাই বেশি।
সূত্র আরো জানায়, প্রবাসে এদেশের নারী কর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে ওয়েবসাইট তৈরির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি), ডি.নেট ও স্পেনের ওয়ার্ডফোর্জ ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় ও স্পেনভিত্তিক দাতা সংস্থা স্প্যানিশ এজেন্সি ফর ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্টের (এইসিআইডি) আর্থিক সহযোগিতায় কাজ চলছে। তবে এখনো ওয়েবসাইট তৈরি সম্পন্ন হয়নি। মূলত সময়মতো স্প্যানিশ অর্থ সহযোগিতা পাওয়া গেলেই ওয়েবসাইট তৈরি কাজ শুরু হবে। এ ওয়েবসাইটটি তৈরি হলে বিদেশ গমনেচ্ছু নারী কর্মীরা জেনেশুনে বিদেশ যাত্রার সিদ্ধান্ত নিতে সহজ হবে। কারণ কোন দেশ কাজের জন্য কতটা নিরাপদ ও ঝুঁকিমুক্ত ওয়েবসাইটে তার বিস্তারিত ঘরে বসেই জানা যাবে। একই সাথে নারীদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে ধারাভাষ্য, চলচ্চিত্র, ছবি ও লেখাযুক্ত একটি তথ্যবার্তাও প্রকাশ করা হবে। বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নারী কর্মীর চাহিদা বাড়ছে। এ পরিস্থিতিতে বিদেশে নারী কর্মীদের নিরাপদ রাখতেই এ প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার।
এদিকে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় নির্মিত ওয়েবসাইটের সাথে আরো কয়েকটি ওয়েবসাইটের লিংক দেয়া হবে। যাতে একজন নারী কর্মী সহজেই ওই ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারে। তাছাড়া ওয়েবসাইটের তথ্যবার্তা ব্যবহার করে বিদেশ গমনেচ্ছু নারী কর্মীদের তথ্যনির্ভর বৈধ ও নিরাপদ সিদ্ধান্ত নিতে সহজ হবে। মোদ্দা কথা, একজন নারী কর্মী বিদেশে চাকরি নিয়ে যেতে যা কিছু করণীয় তার সবকিছুই ওই ওয়েবসাইটে ও তথ্যবার্তায় থাকবে। কোন দেশের কী ধরনের নিয়ম-কানুন, সুবিধা-অসুবিধা, অধিকার এসব জেনেই একজন নারী শ্রমিক বিদেশ যেতে পারবেন। আর দেশ থেকেই সবকিছু জেনে বিদেশ গেলে সমস্যা মোকাবেলার মাধ্যমে নিজের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে কর্মজীবনকে সফল করাও সহজ হবে। একজন পুরুষ কর্মীর পাশাপাশি একজন নারী কর্মীও যাতে সমাজে মাথা উঁচু করে বিদেশে কাজ করতে পারেন এটাই সরকারের এ উদ্যোগের মূল উদ্দেশ্য।
অন্যদিকে গ্রামের একজন নারী শ্রমিক যদি মধ্যপ্রাচ্যের কোনো দেশে যেতে চান তাহলে তিনি ঘরে বসেই ওসব দেশের সমস্ত তথ্য জানতে পারবেন। জনশক্তি রফতানিকারক বা কোনো দালাল চক্রের শিকার থেকেও রক্ষা পেতে নারী শ্রমিকদের ওই ওয়েবসাইটটি ব্যাপকভাবে সাহায্য করবে। কারণ ওয়েবসাইট থেকেই নারীরা সংশ্লিষ্ট দেশ সম্পর্কে সকল তথ্য জানতে পারবেন। তাছাড়া সহজলভ্য তথ্যবার্তা সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্র, পল্লী তথ্য কেন্দ্র, প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও নারী উদ্যোক্তাদের বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে। এমনভাবে ওই তথ্যবার্তাটি তৈরি করা হচ্ছে যাতে বিদেশ কর্মী হতে ইচ্ছুক গ্রামাঞ্চলে অবস্থানরত নারীদের প্রশাসনিক, পরামর্শ ও ব্রিফিং সেবা প্রদানের মাধ্যমে তথ্যবার্তা কাজ করবে।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.