রাশিয়া যুদ্ধজাহাজ পাঠাচ্ছে ভূমধ্যসাগরে

Russian ship
ফাইল ছবি

উইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: রাশিয়া আগামী কয়েকদিনের মধ্যে একটি সাবমেরিন-বিধ্বংসী জাহাজ এবং একটি ক্ষেপণাস্ত্র বহনকারী জাহাজ পাঠাবে ভূমধ্যসাগরে। সিরিয়ায় পশ্চিমা দেশগুলো হামলার প্রস্তুতি নেওয়ার মাঝেই রাশিয়া এ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স।

রুশ জেনারেলের একটি সূত্র বলছে, পূর্ব ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলে পরিস্থিতি নতুন মোড় নিচ্ছে। সে কারণেই নৌবাহিনীর সাজসজ্জায় কিছুটা পরিবর্তন আনা হচ্ছে।

সূত্রটি জানায়, একটি বড় সাবমেরিন-বিধ্বংসী জাহাজ কিছুদিনের মধ্যেই নর্দার্ন নৌবহরে যোগ দিতে যাচ্ছে, পরবর্তীতে এখানে যোগ দেবে কৃষ্ণসাগরের নৌবহর থেকে আসা রকেট ক্রুজার মস্কভা।বর্তমানে এটি উত্তর আটলান্টিক থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিচ্ছে। খুব শিগগিরই একটি ট্রান্সআটলান্টিক ভয়েজ শুরু হতে যাচ্ছে জিব্রাল্টার প্রণালীর দিকে। তাছাড়া এই শরতেই ভারিয়াগ নামে প্রশান্ত মহাসাগরীয় নৌবহরের একটি রকেট ক্রুজার ভূমধ্যসাগরে রুশ নৌবাহিনীতে যোগ দেবে বলেও জানায় সূত্রটি।

অন্যদিকে দেশটির সরকারি বার্তা সংস্থা রিয়া নভোস্তি নৌবাহিনীর একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ভূমধ্যসাগরে রুশ নৌবাহিনীতে আনা পরিবর্তনের সাথে সিরিয়ায় চলমান উত্তেজনার কোন সম্পৃক্ততা নেই। এটি তাদের নিয়মিত পরিবর্তনেরই অংশ।

অপেক্ষায় জাতিসংঘ

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন বৃহস্পতিবার বলেছেন, সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের বিষয়ে তদন্ত দলের রিপোর্টের অপেক্ষা করছেন তারা। এ সপ্তাহেই রিপোর্ট দেওয়ার কথা। এদিকে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ যেকোনো হামলা প্রতিহত করার অঙ্গীকার করেছেন।

এর আগে বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, সিরিয়ায় আঘাত হানার ব্যাপারে তিনি এখনও সিদ্ধান্ত নেননি।এদিকে পশ্চিমা বোমারু বিমানগুলো প্রস্তুতি নিয়ে থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র এবং এর মিত্র দেশগুলো রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারের ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার অপেক্ষা করছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.