পরীমনি এবং অন্য ‘রাতের রাণী’রা যা প্রমাণ করলো

আনা নাসরীন:

পুলিশকে বাইরে দাঁড় করিয়ে রেখে লাইভে এসে পরীমনি যা করলো সেটাকে আমার কাছে ন্যাকামিই মনে হয়েছে। আমার মনে হয় ও সবসময়ই কারণে-অকারণে ন্যাকামি করে লাইমলাইটে থাকার চেষ্টা করে। তা না হলে বাইরে অত অত মিডিয়া দেখেও সে পুলিশকে খুনি/ডাকাত ভাবার কোনো কারণ নেই। এর আগের ঘটনায়ও ওর ন্যাকা কান্না আমি দেখেছি ও বিরক্ত হয়েছি। অভিনয়ে পরিপক্ক না হওয়ায় সহজেই তার ন্যাকামি ধরা পড়ে যায়!

কম লেখাপড়া জানা বোকাসোকা গ্রাম্য মেয়েটা এখনো বোঝেইনা কখন কী করতে হয়, আর কী না করতে হয়। কিন্তু আগে পিছে বিবেচনা করে দেখলে বোঝা যায় ওর উপর যে অন্যায়গুলো হচ্ছে তা সত্যিই বিভৎস, সেই পরিপ্রেক্ষিতে এসব ন্যাকা কান্না তার না কাঁদলেও চলতো। টিআরপি বাড়ানোর লোভে উন্মাদ হয়ে সে বরাবর যেসব হাস্যরসের সৃষ্টি করে ফেলে তা একপাশে রেখে যদি নিরপেক্ষভাবে কেবল তার অপরাধকে বিশ্লেষণ করা যায় তাহলে বোঝা যায় পরীমনি আদতে নিরপরাধ, সে আসলে প্রকট প্রভাবশালী কোনো ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গের রোষানলের শিকার।

এই যে বিশাল এক ব্যাটালিয়ন নিয়ে পরীমনিকে গ্রেফতার করতে আসা হলো কোনও প্রকার গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়াই, এ থেকে কি প্রমাণ হয় না যে পরীমনির বিরুদ্ধে আসলে কোনও অপরাধের প্রমাণ পুলিশের কাছে নেই? সে যদি সত্যিই মারাত্মক কোনো অপরাধে অভিযুক্ত হয়ে থাকতো- তাকে কি এসব স্থূল বিষয় দেখিয়ে তাকে এরেস্ট করতে হতো?

পরীমনির বিরুদ্ধে শেষ পর্যন্ত যে কয়টা অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে তা হলো – তার বাড়িতে মদের বোতল, মিনিবার, উত্তেজক বড়ি পাওয়া গেছে। আরেকটি অভিযোগ হলো তিনি পর্নোগ্রাফির সাথে জড়িত – যা একেবারেই প্রমাণহীন ও ভিত্তিহীন। যদিও অপারেশন কালে কোনো মিডিয়া সামনে থাকে না তবু তার ফ্ল্যাটে যেসব পাওয়া গেছে বলে দাবি করা হয়েছে সে দাবি যদি সত্যি বলেও ধরে নেই, তাহলে কী পাচ্ছি?

উত্তেজক বড়ি শুধু পরীমনি কেন সেটা আপনিও খেতে পারেন, এর জন্য কোনো লাইসেন্সও লাগে না। আর মদের খালি বোতল তো অনেকেই ফুটপাত থেকে কিনে নিয়ে বাসায় রাখেন খাবার পানি রাখার জন্য, তা আমরা জানিই। এমনকি দু’চার বোতল মদও স্বচ্ছল মানুষরা ঘরে রাখেন মেহমান আপ্যায়নের জন্য। আমি এমন অনেককেই দেখেছি – যারা নিজে মদ্য পান না করেও একটা দুটা বোতল মদ রাখেন কেবলমাত্র আতিথেয়তার তাগিদে। সামর্থ্য থাকলে কেনই বা রাখবে না! আপনারা কি বাড়িতে চা বিস্কুট রাখেন না মেহমানদের জন্য?

অনেকের মনে কৌতূহল থাকতে পারে বড়লোকেরা মদকে কেন ‘চা বিস্কুট’ বানিয়ে ফেলছে! আসলে মানুষের যখন পেট ভরা থাকে তখন মানুষ মন ভরার জন্য কিছু করতে চায়। যথেষ্ট পরিমাণ খাবারের বন্দোবস্ত হয়ে গেলে তখন মানুষ ফুল কিনবে, বই কিনবে, সিনেমা দেখার জন্য একটা প্রজেক্টর কিনবে, হোম থিয়েটারের ব্যবস্থা করবে, মদ কিনবে এটাই স্বাভাবিক। যার সামর্থ্য কম সে দশটা বই কিনবে, যার সামর্থ্য বেশি সে বাড়িতে একটা লাইব্রেরি বানাবে। আমি খুব কম বড়লোকই দেখেছি যার বাড়িতে একটা মিনিবার নেই।

অনেকের পক্ষে যেহেতু তা দেখার সুযোগ হয় না, তাই হয়তো তারা ভাবে বাড়িতে একটা মিনিবার থাকার মানেই বুঝি সে দিনরাত মদ খেয়ে বেড়ায়। আসলে তা কিন্তু নয়, সে তার অবসর সময়ে পরিমিত মাত্রাতেই তা পান করে থাকেন অন্যকে বিরক্ত না করে। তবে কারো মদ্যপান যদি অন্যের কোনও ক্ষতির কারণ সৃষ্টি হয় তা নিঃসন্দেহে অপরাধ, সেরকম কোনও অপরাধ সংঘটিত হয়ে না থাকলে শুধুমাত্র মদ্যপান বা বাড়িতে মদ রাখার জন্য কাউকে দোষী ভাবা গোড়ামী ও অজ্ঞতা।

আমরা কি একটি মজার ব্যাপার লক্ষ করছি যে শুধু মেয়ে মডেল ও এক্টরদের বাড়িদেই এই অভিযানগুলো পরিচালিত হচ্ছে, কোনো নায়ক বা পুরুষ মডেলদের সাথে এসব হতে দেখা যাচ্ছে না কেন? মদ কি এদেশে কেবল মেয়েরাই পান করেন, পুরুষরা করেন না? নাকি নারীর জন্য যা অপরাধ, পুরুষদের জন্য তা অপরাধ বলে গণ্য হচ্ছে না? অথবা যেটা পুরুষের জন্য অপরাধ নয় তা কেবল নারীর লিঙ্গ বিবেচনায় অপরাধ!

পরীমনির আগে আরো দুইজন তথাকথিত নারী মডেলকে গ্রেফতার করা হয়েছিল, যাদের সম্পর্কে পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা মিডিয়ার সামনে প্রকাশ্যে বলেছিলেন তারা ‘রাতের রাণী’। তারপর এই বিশেষণের সমর্থনে তাদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ শুনিয়েছেন। একজন অভিযুক্তকে মিডিয়ার সামনে এনে কোন নোংরা বিশেষণ দেয়া এবং সেটার সমর্থনে নানা কথা বলা অভিযুক্তর সাংবিধানিক এবং আইনি অধিকারের পরিপন্থী। কে আদতে কতটা অপরাধী এবং তার জন্য তার কতটা শাস্তি হবে কিংবা বেকসুর খালাস পাবে সেটা একান্তই আদালতের এখতিয়ার, পুলিশের নয়। এই দেশের পুলিশ পুরুষ অভিযুক্তর ক্ষেত্রেও প্রকাশ্যে আপত্তিকর মন্তব্য করে, তবে নারীর ক্ষেত্রে অনেক ক্ষেত্রে তার লিঙ্গ এবং যৌন জীবনকে অনেক বেশি হাইলাইট করা হয়।

নারীর শিক্ষা, ভ্রমণ ও পোশাক থেকে শুরু করে পান ও খাদ্যাভ্যাস, যৌন জীবন সব কিছুতেই সমাজ ও রাষ্ট্রের এই যে চোখ রাঙানি সেটা প্রমাণ করে যে এ রাষ্ট্র এখনো বর্বর যুগেই বাস করছে।

শেয়ার করুন:
  • 486
  •  
  •  
  •  
  •  
    486
    Shares
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.