প্রথম বিয়ের পরে কিংবা দ্বিতীয় বিয়ের আগে

শাহরিয়া দিনা:

‘আমরা একবার বাঁচি, একবার মরি, বিয়েও একবার করি, আর প্রেমও একবার’ কুচ কুচ হোতা হ্যায় সিনেমার শাহরুখ খানের ডায়লগের দিন এখনো বহমান আছে কিনা তা নিয়ে বিতর্ক হতেই পারে। সিনেমার মতো জীবন হলে মন্দ হতো না আসলে। কিছু প্রেম, কিছু ট্রাজেডি, শেষমেষ হ্যাপি এন্ডিং! অথবা রুপকথার গল্পের মতো, অবশেষে তারা সুখে শান্তিতে বসবাস করিতে লাগিলো।

জীবন তো আর গল্প, উপন্যাস বা সিনেমার মতো নয়। মার্ক টোয়েন যেমনটা লিখেছিলেন, ট্রুথ ইজ স্টেঞ্জার দেন ফিকশান। জীবনের গল্প অদ্ভুত। একেকজনের একেকরকম। যে কাটায় জীবন সে জানে ব্যাথ্যা কেমন। অনুভব কত মধুর। নিজের অবস্থানে থেকে কাউকে দেখে একটা রায় দিয়ে দেয়া নির্বোধের পক্ষেই সম্ভব। কাউকে বিচার করতে হলে তার পরিস্থিতিতে নিজেকে দাঁড় করিয়ে চিন্তা করতে হয় বৈকী!

বিয়েটা মানুষ একবুক স্বপ্ন নিয়েই করে। একজনের সাথে জীবনটা ভাগাভাগি করে পরিবার গড়ার উদ্দেশ্যে। সেটা কোন কারণে সম্ভব নাহলে নিত্যদিনের মারামারি-কাটাকাটি বাদ দিয়ে স্বস্তির পথ ধরাই শ্রেয়। ধর্মীয় এবং আইনগত ভাবে বিয়ে একটা চুক্তি। আর চুক্তি মানেই সেটা বাতিলের ক্ষমতাও থাকে। তবে শখ করে কেউ-ই সংসার ভাঙ্গেনা। ইচ্ছে হল ভেঙ্গে দিলাম এমনও না। নিশ্চয়ই দুজনের মধ্যে অসহনীয় কিছু একটা তো থাকেই।

এইতো মাত্র কয়েকদিন আগে কক্সবাজারে আফরোজা নামের একটা মেয়ে খুন হয়েছে। খুন করেছে তার স্বামী বাপ্পি। খুন করে লাশটা উঠোনে পুঁতে রেখে প্রচার করেছিল পরকিয়া প্রেমিকের সাথে পালিয়ে গেছে আফরোজা। আফরোজার এটা দ্বিতীয় বিয়ে আর বাপ্পির ছিল তৃতীয় বিয়ে। বাপ্পির আগের দুই বউ তাকে ছেড়ে গেছে অমানুষিক নির্যাতনের জন্য। আফরোজা যায়নি, তাই লাশ হতে হয়েছে তাকে। প্রথম বিয়ে ভেঙে যাবার পর একটা মেয়ে কার্যত পরিবার এবং সমাজের কাছে অগ্রহণযোগ্য হয়ে যায়। সেক্ষেত্রে দ্বিতীয় বিয়ে ভেঙে যাওয়া মানে তো মরার উপর খাঁড়ার ঘা। দ্বিতীয় বিয়েটা মেয়েদের জন্য বড় ধরনের জুয়া খেলা, যেখানে জীবন বাজি রাখতে হয়। এখানে ফেইল করলে তুমি শেষ। প্রথমবার যাও কষ্টমষ্ট করে বলে এক্সিডেন্ট, কিন্তু দ্বিতীয়বার ব্যর্থ হলেই বলে এর স্বভাব খারাপ। সমস্যা এর মধ্যেই। এখন দ্বিতীয়বারে কেউ যদি আফরোজার বরের মতো বর পায়, তার কিছু করার থাকে না আসলে। এখানে বলে রাখি আফরোজার স্বামী বাপ্পি কিন্তু অশিক্ষিত না, সে একজন কলেজ শিক্ষক।

এবার আসি সমাজের উঁচু তলায়। শমী কায়সারের তৃতীয় বিয়ে নিয়ে অনলাইনে বেশ ভালোই ট্রল হলো। যদিও শমীর এতে কিছুই যায়-আসে না। শমী কায়সার শিক্ষিত এবং স্বাবলম্বী নারী। তিনি একা থাকবেন নাকি বিয়ে করবেন সে সিদ্ধান্ত একান্তই তার। বাস্তবায়নও তারই হাতে। আমাদের এতো হাসির কারণ কী তবে? কারণ একটা মেয়ের তিন নম্বর বিয়ে শুনলেই কেমন জানি লাগে। অথচ আবার দেখেন, আমাদের নবীজী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর প্রথম স্ত্রী খাজিদার তিন নম্বর বিয়ে ছিল তাঁর সাথে।

বিয়ে শুনলেই আমাদের চোখে ভাসে যৌনতা। যেন শরীরের জন্যই বিয়ে করা। একটা মেয়ের কিন্তু পঞ্চাশের পরে মেনোপজ হয়ে যায়। স্বাভাবিক নিয়মে তখন তার যৌন চাহিদাও কমে আসে। সেক্ষেত্রে গুলতেকিন বা শমী কায়সার নিশ্চয়ই শুধুমাত্র সেক্সুয়্যাল কারণে বিয়ে করেননি! দিনশেষে নিজের একটা মানুষ লাগে। আজকে মনটা ভালো নেই বলার মতো, বৃষ্টিতে বারান্দায় বসে এক কাপ চা খাওয়ার মতো সঙ্গী দরকার। যে মানুষটা থাকে আমার জন্য। যার জন্য ঘরে ফিরবার ইচ্ছে হয়। ঘরটাকে সংসার মনে হয়।

কারো দ্বিতীয় তৃতীয় বিয়ে শুনলে তেড়ে আসা মানুষের চাইতে আধুনিক এবং বাস্তব চিন্তার অধিকারী নাটোরে সেই শতবর্ষী বৃদ্ধ। যিনি ১০৫ বছরে বিয়ে করেছেন ৮০ বছরের কনেকে। ধন্যবাদ ওই বৃদ্ধ এবং বৃদ্ধার সন্তানদের যারা উৎসবমুখর পরিবেশে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা উদযাপন করেছে। আমাদের তথাকথিত শিক্ষিত শহুরে সমাজও কিন্তু বাবা-মায়ের দ্বিতীয় বিয়ে সহজে মানতে পারেনা। বিধবা মা কিংবা বিপত্নীক বাবা’র বিয়ে প্রায় অসম্ভব। সাম্প্রতিক সময়ে বাবার দ্বিতীয় স্ত্রীকে ভাড়াটে খুনী দিয়ে খুন করানোর ঘটনাও এলো পত্রিকার পাতায়।

বিয়ের জন্য জীবন না, জীবনের জন্যই বিয়ে। বিয়ে টিকিয়ে রাখতে পরে পরে মার খেয়ে আফরোজাদের মতো লাশ হয়ে প্রাপ্তির খাতায় কিছু সমবেদনা হয়তো জোটে। তবে লাশের কাছে কারো কান্নাতেও লাশের কিছু যায়-আসে না। বিয়ে চিরকাল টিকবে এমন গ্যারান্টি যেমন নেই তেমনি বিয়ে ভাঙা মাত্রই আবার বিয়ে করতে হবে এমন কথাও কোথাও বলা নেই। বাবা/ভাইয়ের সংসারে বোঝা হবার ভয়ে কারো দাসী হওয়াটাও কোন ভালো সমাধান হতে পারে না কখনোই। নিজের বোঝা নিজেই বহন করার সামর্থ্য অর্জন জরুরি।

মানুষ সামাজিক প্রাণী তার পক্ষে একা বাস করা কঠিন। একলা থাকাটা অনেক বড় যোগ্যতা যা সবার থাকে না। সুতরাং মানুষ সঙ্গী চায়। পোড় খাওয়া মানুষ মানসিক দিক থেকে যেমন শক্ত হয় তেমনি কেউ কেউ আরও দুর্বল হয়ে পরে। দুর্বল হলেই ভুলভাল সিদ্ধান্ত নেয়, যা আরও বড় ক্ষতির কারণ হয়। একলা বলেই কাউকে দরকার এমন না হয়ে হওয়া উচিত তোমাকে দরকার বলেই একলা আছি। অন্যে কী বলবে বলে নয়, নিজে মন থেকে চাইলেই কেবল বিয়ে, তার আগে নয়।

শেয়ার করুন:
  • 603
  •  
  •  
  •  
  •  
    603
    Shares
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.