মামুলি সাংবাদিকতা

journalismউইমেন চ্যাপ্টার: ঐশীকে নিয়ে এতো কথা বলতে গিয়ে আমরা ভুলে গেছি ওর ছোট ভাই ঐহীর কথা। জানা গেল সে আছে পুলিশী হেফাজতে। আমাদের দেশে পুলিশী হেফাজত মানেই কিন্তু ভীতিকর এক স্থান। মাত্র সাত বছর বয়সে সে আছে সেই ভীতিকর হেফাজতে। কে তার হেফাজত করছে সেখানে? কিভাবেই বা করছে? কেউ কি জানি? সেও তো এই বয়সেই আমাদের সাংবাদিক দম্পতি রুনি-সাগরের সন্তান মেঘের মতোন জীবনের কদর্য রূপটা দেখে ফেলেছে। একমাত্র ভালবাসার আশ্রয়টা সে হারিয়ে ফেলেছে (সে কী জানে? সে কী দেখেছে মা-বাবার লাশ?

এখন এই বয়সে সে একা কিভাবে  আছে, কেউ বলছি না বা আগ্রহ নাই ওর বিষয়ে।  যখন তার মায়ের নেওটা হয়ে  ঘুরে বেড়ানোর কথা, তখন সে তার এই হঠাৎ পরিবর্তিত জীবনের সাথে কিভাবে মানিয়ে নিচ্ছে? আমরা সাংবাদিকরা ওর ছবি ছাপিয়ে দিয়েছি। ও এখন যেখানেই যাবে, সবার কৌতূহল-টিকা-টিপ্পনির কারণ হবে।আমাদের ভাবখানা এমন যে, ঘটনা যখন কিশোরী মেয়েকে নিয়ে, তখন শিশুর কথা পুছে কে!

এই ঘটনাটা পুরোটাই শিশুকেন্দ্রিক, বেশ কটি বাচ্চা ভিকটিম, একা ঐশী না। কিন্তু প্রাধান্য পাচ্ছে একা ঐশী। কেন? কিশোরী মেয়ে, তার ওপর উচ্ছৃ্ঙ্খলতার খবর পাওয়া গেছে, মাদকের খবর পাওয়া গেছে, আরও কি কি যেন। সেজন্যই কি এতো আগ্রহ ওকে ঘিরে? রগরগে কাহিনী তো ওকে নিয়েই ছাপানো যাবে, সেদিকেই ছুটছি আমরা। অভিযোগ প্রমাণ হওয়ার আগেই আমরা তার বিচার করে ফেলছি। ধন্য আমাদের সাংবাদিকতা!

ঐশীর রিমান্ড নিয়ে কথা উঠেছে, তার ক্ষেত্রে শিশু আইন মানা হচ্ছে কিনা, এই আইনে তাকে রিমান্ডে নেয়া যায় কিনা, এমন অনেক প্রশ্ন। কিন্তু এসব প্রশ্ন বিজ্ঞ আদালতে আলোচিত হয়নি। হচ্ছে সাধারণের মনে। তাই তারা এই রিমান্ডের বিরুদ্ধে কথা বলছে। কিন্তু একইভাবে আড়ালে থেকে যাচ্ছে ঐশীদের বাসার গৃহকর্মী সুমির কথা। কেউ বলছে না সুমির রিমান্ডের কথা। ও নিজেও তো শিশু। ওকে কি রিমান্ডে নেয়া যায় গরীবের মেয়ে বলে? নাকি ওর কোন মানবাধিকার নেই? ও কেন এই অপরাধের সাথে জড়িত হয়ে পড়লো, সেটাও কি বিবেচ্য নয়?

রাজধানীর চামেলীবাগের বাসায় পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তাঁর স্ত্রী স্বপ্না রহমানকে ঠাণ্ডা মাথায় খুন হতে দেখার পর ঐশীর সাথে বাসা থেকে বেরিয়ে গেল, কেন গেল? ওর মা-বাবা কোথায়?

উহ্য থাকছে ঐশীর সাথে গ্রেপ্তার হওয়া রনি/জনির কথা। ওর বয়স কত? তার কি পরিচয়? তার মা-বাবার খোঁজ কি কেউ জানি? বাকি সব বন্ধুরা?

একসাথে এতোগুলো মানুষ, তার ওপর শিশু, তাদের অধিকার সংক্রান্ত বোধ নিয়ে কাজ করার মতোন তেমন সাংবাদিকতা জ্ঞান কি সত্যিই আছে আমাদের? একটা নিউজের অ্যাঙ্গেল চারদিকে ছড়ানো। এই একটি ঘটনা মধ্যবিত্ত প্রতিটি ঘরের ডোরবেল বাজিয়ে দিয়েছে, আমরা কি এখনও দরজা বন্ধ করেই থাকবো, নাকি দরজা খুলবো, সেই দায় একান্তই আমাদের।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.