পিরিয়ড পভার্টি নির্মূলে নিউজিল্যান্ডের উদ্যোগ

উইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক:

পিরিয়ড পভার্টি নির্মূলে সবগুলো স্কুলে বিনামূল্যে স্যানিটারি প্যাড দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এক ঘোষণায় বলা হয়েছে, দেশটির হাই স্কুলগুলোর মেয়েদের এখন থেকে আর স্যানিটারি প্যাড কিনতে কোনো টাকা লাগবে না। সারাবিশ্বে নারীরা যখন স্যানিটারি পণ্য থেকে বঞ্চিত, দরিদ্র এবং অনুন্নত দেশগুলো যখন নারীর এই সমস্যাকে চিহ্নিত করতেই ব্যর্থ হচ্ছে বা একদমই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছে না, নিউজিল্যান্ড তখন এই বিষয়টিকেই গুরুত্ব দিয়ে সবচাইতে প্রয়োজনীয় পণ্য হিসেবে বিবেচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দেশটির এই সিদ্ধান্ত নারী জাতির সামনে এক সম্ভাবনার পথ তৈরি করলো।

পিরিয়ড পভার্টিকে মোকাবিলার প্রাথমিক ধাপ হিসেবে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা এরডার্ন সবগুলো স্কুলে বিনামূল্যে স্যানিটারি পণ্য দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে বলেছেন, পিরিয়ড বা মাসিকের সময়টাতে শুধুমাত্র স্যানিটারি প্যাড এর অভাবের কারণে কোনো মেয়েকে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করতে না হয়, সেজন্যই এই উদ্যোগ।

এই প্রকল্পটি ২৬ লাখ নিউজিল্যান্ড ডলার পরিকল্পনার অংশ, যা পিরিয়ড পভার্টি নির্মূলে গত মাসেই ঘোষণা করা হয়। জুলাই থেকে প্রকল্পটি চালু হবে এবং ২০২১ সাল নাগাদ প্রতিটি স্কুল এ কার্যক্রমের আওতায় আনা হবে।

এই উদ্যোগ সম্পর্কে জেসিন্ডা এরডার্ন বলেন, শুধুমাত্র স্যানিটারি প্যাড কিনতে না পেরে নয় থেকে ১৮ বছর বয়সী প্রায় ৯৫ হাজার মেয়ে পিরিয়ড চলাকালে বাড়িতে অবস্থান করে। বিনামূল্যে এগুলো বিতরণের একমাত্র উদ্দেশ্যই হলো যাতে এই জনগোষ্ঠী শিক্ষা থেকে পিছিয়ে না পড়ে। এছাড়াও শিশু দারিদ্র্য এবং তাদের কঠিন জীবনযাপন লাঘব করাও এই উদ্যোগের লক্ষ্য। তিনি বলেন, প্রতি মাসের এই নির্দ্দিষ্ট সময়টাতে স্যানিটারি প্যাড সরবরাহ করা কোনো বিলাসিতা নয়, এটা প্রয়োজন।

এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, দরিদ্র দেশগুলোতে অর্ধেকেরও বেশি নারী ও কন্যাশিশু বাধ্য হয় পিরিয়ডের সময় পুরনো ন্যাকড়া, ঘাস, কাগজ ব্যবহার করতে। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের মতো ধনী দেশগুলো সাম্প্রতিক সময়ে অর্থনৈতিক সাফল্য লাভের পরও শিশু দারিদ্র্য এবং আশ্রয়হীনতার মতোন বিষয়গুলো নির্মূল করতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। ২০১৯ সালের এক জরিপ অনুযায়ী নিউজিল্যান্ডে ১৩ থেকে ১৭ বছর বয়সী প্রতি ১২ জন কন্যাশিশুর একজন স্কুল বাদ দিতে বাধ্য হচ্ছে মাসের নির্দ্দিষ্ট সময়টাতে। এমনিতেই এসব কন্যাশিশুর জীবন নানা কারণেই বিপদগ্রস্ত থাকে, এরই মধ্যে এই পিরিয়ড পভবার্টি তাদেরকে শিক্ষা থেকেও বঞ্চিত করছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ যখন এই সমস্যাটি চিহ্নিত করে সঠিক পদক্ষেপ নিতে পারছে না, তখন নিউজিল্যান্ডের এই উদ্যোগ অবশ্যই উজ্জ্বল দৃষ্টান্তস্বরূপ।

তবে, নিউজিল্যান্ডই প্রথম নয়, তারও আগে স্কটল্যান্ড এই পদক্ষেপ নেয়। এবছরেরই ফেব্রুয়ারিতে দেশের সকল নারী ও কন্যাশিশুর জন্য স্যানিটারি প্যাড বিনামূল্যে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় দেশটি।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.