আজমেরীকে গ্রেপ্তারের দাবি জানালেন ত্বকীর বাবা

toki hottyaউইমেন চ্যাপ্টার: নারায়ণগঞ্জের কিশোর ত্বকী হত্যা মামলার অন্যতম সন্দেহভাজন জাতীয় পার্টির সাংসদ নাসিম ওসমানের ছেলে আজমেরী ওসমানকে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বী। গতকাল বুধবার আজমেরীর কার্যালয় থেকে রক্তমাখা একটি জিনস প্যান্ট, দুটি লাঠি ও রক্তমাখা নাইলনের রশি উদ্ধার করে র‌্যাব।

আজমেরীর এই কার্যালয়টি স্থানীয়ভাবে ‘টর্চার সেল’ (নির্যাতনকেন্দ্র) হিসেবে পরিচিত। ত্বকী খুন হওয়ার পরপরই ওর বাবা এবং নারায়ণগঞ্জের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী এই টর্চার সেলটির কথা উল্লেখ করেছিলেন এবং দ্রুত এতে অভিযান চালানোর দাবি জানিয়েছিলেন। তাছাড়া জেলার প্রগতিশীল মহল থেকেও এই দাবির পক্ষে জোরালো সমর্থন ছিল।

অবশেষে গতকাল বুধবার দুপুর ১২টা থেকে বেলা দুইটা পর্যন্ত র‌্যাব শহরের আল্লামা ইকবাল রোডে আজমেরীর মালিকানাধীন ‘উইনার ফ্যাশন’-এ অভিযান চালায়। এ সময় আজমেরী সেখানে ছিলেন না। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেখান থেকে তাঁর দুই গাড়িচালক ও এক নিরাপত্তা প্রহরীকে আটক করা হয়। একই সময় ত্বকী হত্যার আরেক সন্দেহভাজন রাজীবের বাসায়ও র‌্যাব অভিযান চালায়। তাঁকেও বাসায় পাওয়া যায়নি।

আজমেরী আওয়ামী লীগের সাবেক সাংসদ শামীম ওসমানের ভাতিজা।
নারায়ণগঞ্জের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি তাঁর ছেলে হত্যার পর থেকেই অভিযোগ করে আসছেন, আজমেরীর ওই কার্যালয়টি ‘টর্চার সেল’। এখানে তাঁর ছেলে তানভীর মুহাম্মদ ত্বকীকে নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জের অনেক ব্যবসায়ীকে ধরে এনে এখানে নির্যাতন করে মোটা অঙ্কের চাঁদা আদায় করা হতো বলেও অভিযোগ রয়েছে।

গত মার্চে সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চ ওসমান পরিবারের পাঁচটি ‘টর্চার সেল’-এর তালিকা জেলা পুলিশ সুপারের কাছে দিয়েছিল। সেখানে আজমেরীর এ কার্যালয়ের নাম ছিল। লে. কর্নেল জাহাঙ্গীর আলম ও স্কোয়াড্রন লিডার মাসুদ রানার নেতৃত্বে গতকাল আজমেরীর কার্যালয়ের প্রায় ১০০ গজের মধ্যে বিপুলসংখ্যক র‌্যাব সদস্য অবস্থান নেন। পরে একটি দল কার্যালয়ে ঢুকে তল্লাশি শুরু করে। সেখানে একটি কাগজের কার্টন থেকে রক্তমাখা আকাশি রঙের একটি জিনসের প্যান্ট ও রান্নাঘর থেকে কাপড়ে পেঁচানো রক্তমাখা গজারির দুটি লাঠি উদ্ধার করা হয়। রান্নাঘরের মেঝেতে রক্তের দাগ দেখা গেছে। লাঠি ও মেঝের রক্ত শুকিয়ে কালো হয়ে গেছে।

পরে র‌্যাব সদস্যরা আজমেরীর কার্যালয়ের ভেতর ও বাইরে লাগানো আটটি ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরা, এলসিডি মনিটর, গুলির চিহ্ন থাকা একটি কর্নার শোকেস, একটি সোফা, পিস্তলের বাঁটের ভাঙা অংশ, দুটি টেঁটা ও ইয়াবা সেবনের সরঞ্জামাদি জব্দ করেন।

র‌্যাবের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা বলেন, আজমেরীর কার্যালয়ের দেয়ালে ও কর্নার শোকেসে অসংখ্য গুলির চিহ্ন রয়েছে। তিনি রাতে মাদক সেবনের পর দেয়াল, শোকেস ও সোফা লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তেন।

গত ২৯ জুলাই একটি মাদক মামলায় নারায়ণগঞ্জ বিচারিক হাকিমের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীরোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন ইউসুফ হোসেন (লিটন)। জবানবন্দিতে তিনি ত্বকী হত্যায় নিজের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে বলেন, জাপা নেতা হাজি রিপনের জামতলার বাড়িতে তাঁর ছেলে সালেহ রহমান (সীমান্ত), ভ্রমর, আবুল কালাম সিকদারসহ অন্যরা নির্যাতন চালানোর পর শ্বাসরোধ করে ত্বকীকে হত্যা করেন। পরে লাশ ব্যাগে ভরে নৌকায় করে শীতলক্ষ্যা নদীতে ফেলে দেওয়া হয়। তাঁর তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব সদস্যরা দুই দফা শীতলক্ষ্যায় অভিযান চালান। র‌্যাব সালেহ রহমানকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.