‘আমার দেশ’ পত্রিকা বিষয়ে হাইকোর্টের রুল

amardeshউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: বিকল্প প্রেসে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকা ছাপাতে সরকারের বাধা দান কেন বেআইনি ঘোষিত হবে না- তা জানতে চেয়ে দুই সপ্তাহের রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

পত্রিকা কর্তৃপক্ষের এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে বুধবার সরকারের প্রতি এই রুল জারি করেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও এবিএম আলতাফ হোসেনের অবকাশকালীন বেঞ্চ।

স্বরাষ্ট্র সচিব, তথ্য সচিব, পুলিশের আইজি, ঢাকার জেলা প্রশাসক, ডিএমপির রমনা জোনের সহকারী কমিশনার (এসি), রমনা ও তেজগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) বিবাদী করে এই রুল জারি করা হয়। দুই সপ্তাহের মধ্যে তাদেরকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

শুনানিতে আমার দেশের পক্ষে ছিলেন, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ জে মোহাম্মদ আলী ও রিট আবেদনকারীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট সালেহউদ্দিন এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল জাহাঙ্গীর কবির।

কথিত স্কাইপিতে কথোপকথন প্রকাশ, ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত, ও রাষ্ট্রদ্রোহসহ নানা অভিযোগে গত ১১ এপ্রিল দৈনিক আমার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়।

তার বিরুদ্ধে পবিত্র কাবা শরিফের গিলাফ পরিবর্তনের ছবি বিকৃত ও মিথ্যা ক্যাপশান দিয়ে প্রকাশের মাধ্যমে মুসলামানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে আরও একটি মামলা দায়ের করা হয়।

মাহমুদুর রহমানের গ্রেফতারের পর ওই রাতেই আমার দেশের ছাপাখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়।

এরপর দু’দিন দৈনিক সংগ্রামের ছাপাখানা আল ফালাহ প্রিন্টিং প্রেসে পত্রিকাটি ছাপা হলে ১৩ এপ্রিল পুলিশ বাধা দেয়। সেই রাতেই রমনা থানায় দৈনিক সংগ্রামের ছাপাখানায় বেআইনিভাবে দৈনিক আমার দেশ ছাপানোর অভিযোগে মাহমুদুর রহমানের মা মাহমুদা বেগম ও দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদকে আসামি একটি মামলা দায়ের করেন সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট (প্রকাশনা) নাসরিন সুলতানা।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে বিকল্প প্রেসে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকা ছাপাতে সরকারের বাধা দানের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করে আমার দেশ কর্তৃপক্ষ।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.