মিটু লিখতে গেলে যেসব গুণ থাকা বাধ্যতামূলক!!!

0

কাজী নাজিয়া মুশতারী:

তো, বাচ্চারা, আমরা কী শিখলাম?? মিটু তে লিখতে/বলতে হলে আমাদের যা যা যোগ্যতা থাকতে হবে তা নিম্নরূপ:

১# আপনাকে/আমাকে/ আমাদেরকে অবশ্যই দেশ কাঁপানা সুন্দ্রী হতে হবে, অসুন্দ্রীদের বাইডিফল্ট ফিমেল জেনিটাল থাকে না, তারা ক্লিব লিঙ্গের মানুষ, তাই তারা কখনো যৌন হেনস্থার শিকার হতেই পারেন না। কোন অসুন্দ্রী এসব বলতেসে, তাও ঘটনার এতো বছর পর তার মানে বেটির এখন বিখ্যাত হওয়ার খায়েশ জাগছে, তাই মাঝ বয়সে এসে এসব নোংরামি!!! শুরু করসে নাদান ভূষি সেলিব্রেটিদের লইয়া।

২# উক্ত ঘটনা ঘটার সময় অবশ্যই চার পাঁচজন সাক্ষী থাকতে হবে, কেয়া বাত হ্যায়!! আর ঘরের মধ্যে কিছু হইলে ওটা অতি অবশ্যই মিউচুয়াল লাগালাগি ওটায় কোন হেনস্তা হতেই পারেনা।

৩# আপনি/আমি /আমরা যদি প্রাণোচ্ছল, হাসিখুশি, এক্টিভ, শুদ্ধ উচ্চারণে কথা বলা ওয়েল ড্রেস সেন্সওয়ালা মানুষ হই, তাহলে আমাদের কপালে অতি অবশ্যই যৌন হেনস্থা বরাদ্দ, কারণ আমরা এসব করিই হেনস্থা হওয়ার জন্য, যৌন নিপীড়নকারীর চোখে পড়ার জন্যেই আমাদের এতো রং, ঢং, রস..

৪# নিপীড়ক অবশ্যই সমাজ নির্ধারিত ছোটলোক গোত্রীয় যেমন, রিক্সাওয়লা, বাস ট্রাকের ড্রাইভার হেল্পার, মুটে মজুর টাইপের লোকজন হবে এরা এরকমই হয়, কিন্তু নিপীড়ক কখনোই সমাজ নির্ধারিত উচ্চশ্রেণীর লোকজন যেমন শিক্ষক, শিল্পী, নাট্যকার, বিজ্ঞানী, কবি সাহিত্যিক, ধর্মীয় গুরু, এরা হবেন না, কারণ এঁরা বাইডিফল্ট মেল জেনিটালহীন পুরুষ, অসুন্দ্রীদের মতো এনারাও ক্লীব, এনাদের কোন যৌনাকাঙ্ক্ষা বা উত্তেজনা নেই, এরা পুরাই ফেরেস্তা বরাবর লুকজন।

৫# নিপীড়ক যদি মৃত হয় তাহলে ওয়াল্লাহি বিল্লাহী ইয়ামিন জালেক!! অসভ্য মেয়েমানুষ লজ্জা লাগে না মরা মানুষটা যে কিনা ‘বড় ভালু লুক’ ছিল তাকে নিয়ে এসব বলতে?? সেই হিসাবে হিটলার, মুসোলিনি, আমাদের গো আজম ও নাৎসী ও রাজাকার বাহিনী বর্তমানে দুধে ধোওয়া ও গঙ্গার উৎসমুখের পানিতে নাওয়া তুলসী হয়ে গেছে, প্লিজ এদের কেউ গালি দিবেন না, হিংসা করবেন না, তারা বড় ভাল লোক ছিলেন।

এবং লিস্ট ইজ গোয়িং অন.. হিসাবে মিটু তে সামিল হয় বাংলাদেশের শতকরা ১০০ ভাগ মেয়েই, কার এই এক্সপেরিয়েন্স নাই সেটা খুঁজতে গেলে ঠগবাছতে গাঁ উজাড় হয়ে যাবে। এই সত্যি মেনে নিয়ে নিজের ভুল স্বীকার করে মানুষ হওয়ার চেষ্টা করলে নেক্সট জেনারেশনের মেয়েরা হয়তো আরেকটু কম হেনস্থা হবে, তারপরের জেনারেশন তারচে কম, এভাবে একসময় হেনস্থা পুরা বন্ধ হবে, কিন্তু সত্যিটা না মেনে অযথা এঁড়ে তর্ক করলে কাজের কাজ কিছু হবে না, আপনারা রেডি তো সত্যিটা মানতে???

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 818
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    818
    Shares

লেখাটি ৪,৬২১ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.