ফের মনে করিয়ে দেই, “নারীবাদ” আসলে কী!

0

আফরোজা চৈতী:

নারীবাদ-নারীবাদী, এ দুটো শব্দই গত কয়েকদিন ধরে বহুলভাবে উচ্চারিত এবং চর্চিত হচ্ছে। অনেকে এটার ভুল ব্যাখ্যা পর্যন্ত দিচ্ছেন। যদিও নারীবাদ নিয়ে প্রচুর লেখালেখি, সভা সেমিনার অতীতে হয়েছে, এখনও হচ্ছে, তারপরও আরও একবার একটু ঝালাই করিয়ে নেয়ার জন্যই এই লেখা।

নারীবাদ মানেই কি নারী? না। বরং নারীবাদী শব্দটা শুধুই নারীর জন্য প্রযোজ্য নয়। বরং নারীবাদী নারী-পুরুষ দু তরফের জন্যই সমান প্রযোজ্য একটি শব্দ।

পুরুষতান্ত্রিক শব্দটাও তেমনি। নারী পুরুষ উভয়েই এই ধারণায় বিশ্বাসী হতে পারেন। আবার কেউ দুটো ধারণা বা মতবাদেই আধাআধি বিশ্বাসী হতে পারে। ব্যক্তিভেদে তার অবস্থানভেদে এবং জীবনধারা অনুযায়ী এই মতবাদ বা ধারণাগুলোর সমন্বয় ঘটতে পারে।

আফরোজা চৈতী

নারীবাদ একটি রাজনৈতিক মতবাদ। নারীকে তার প্রজনন ক্ষমতার কারণে তার একই সাথে দশটা কাজ করার ক্ষমতাকে সর্বোপরি তার অনুভূতির সুক্ষ্মতাকে পুরুষ ভয় করেছে। আর এই ভয় থেকেই নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে তারা একটার পর একটা বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। পোশাক থেকে শুরু করে জীবনযাপনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই সমাজ ও ধর্ম তাকে পুরুষের অধীনস্ত করেছে। এই যে শুধুমাত্র নারী হওয়ার কারণে পদে পদে সামাজিক ও ধর্মীয় বৈষম্যের শিকর হতে হয় একজন নারীকে, সেটার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয় নারীবাদ।

নারীবাদ কোন হাতিয়ার নয় বরং নারীবাদ একটি মতবাদ, পুরুষতন্ত্রের রাজনীতির বিরুদ্ধে দাঁড়ানো আর একটি রাজনৈতিক প্রক্রিয়া। যে মতবাদকে, যে রাজনীতিকে সফল করতে নারীবাদীদের দরকার রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি ও সঠিক জ্ঞানের পরিশীলিত সমন্বয়।

ষাটের দশকে ইউরোপে নারীবাদের যে সূচনা হয়েছিলো সেটার ছোঁয়া নব্বই এর দশকে এই দেশেও লেগেছিলো। কিন্তু সঠিক রাজনৈতিক পদক্ষেপ এর অভাবে সেই আন্দোলন “আমার শরীর আমি দিবো, যাকে খুশী তাকে দিবো”এর মাঝেই সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে। আসলে শরীর কখনই মুখ্য বিষয় হতে পারে না, বরং এখানে মুখ্য বিষয় নারী শরীর নিয়ে যাবতীয় রাজনীতি। নারী শরীর যেমন আকর্ষণীয়, তেমনি আকর্ষণীয় একটি পুরুষ শরীরও। কিন্তু পুরুষতন্ত্র নারী শরীরকে পণ্য করেছে, মেধার চেয়ে সর্বত্র অগ্রাধিকার পেয়েছে নারীর চামড়া সর্বস্ব সৌন্দর্য।

নারীবাদ কি তবে পুরুষের শরীর নিয়ে কথা বলবে? পুরুষকেও কি তার সৌন্দর্যের কাতারে নেয়ার জন্য আয়োজন হবে বিশ্ব সেরা পুরুষ প্রতিযোগিতার? এরই মধ্যে যদিও কিছু কিছৃ জায়গায় তা হচ্ছে। এই যে নারী পুরুষ নির্বিশেষে পণ্য হওয়ার যে পুরুষতান্ত্রিক প্রথা, নারীবাদ কথা বলে সেই নিয়মের বিপক্ষেই।

এখানে পুরুষ রাস্তায় হিসি করে তাই আমারও অধিকার চাই হিসি করার সেরকম নয় বিষয়টি। বরং সকল কন্যাশিশুর নিরাপদ যাতায়াত, নিরাপদ ঘর, রাষ্ট্রের দাবিতে সোচ্চার হয় নারীবাদ।”নারীবাদ” নারীর প্রতি সকল সহিংসতা, অন্যায় ও যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী এক সংগ্রামের নাম, একটি বিপ্লবের নাম।

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 330
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    330
    Shares

লেখাটি ৬৬৪ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.