ফেমিনিস্ট ট্রেনিং এর ফাঁকে ফাঁকে-৪

0

মারজিয়া প্রভা:

সাংগাতের প্রতিদিনের কোর্সের শুরুতেই থাকে এই কোর্স নিয়ে আমাদের যাবতীয় মতামত কী, সেই নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ! গতকাল আমার পালা ছিল! কমলাজিকে বললাম, ‘কমলাজি আপনার প্রথম ট্রেইনিং শেষ করে রুমে গিয়ে ব্রা পরা ছেড়ে দিছি।’
কমলাজিও এককাঠি সরেস! বলে, দেখাও তো। আমিও হাসতে হাসতে কামিজ আর ওড়না সরিয়ে বললাম, নো স্ট্রাইপ! নো ব্রা! কমলাজি দুই হাত ছুঁড়ে বললো, আরেহ ফ্রিডম! ফ্রিডম!

গতকাল ভারতে সমকামী আইন বৈধ হওয়াতে আমরা সবাই মিলে Death of 377 প্ল্যাকার্ড ধরেছি। আর চিৎকার করে বলেছি, “মার গ্যায়া, মার গ্যায়া, ৩৭৭ মার গ্যায়া”।

এতো এতো প্যাট্রিয়ার্কি নিয়ে কথা বললাম, কিন্তু জগতে কেবল প্যাট্রিয়ার্ক সিস্টেমই আমাদের নারীদেরকে কন্ট্রোল করে না। তাহলে পৃথিবী সব মেয়েই অপ্রেসড থাকতো। প্যাট্রিয়ার্কির পাশাপাশি আছে class, cast, race, majority/ minority, north/ south। নর্থ সাউথ নতুন দিনের কথা৷ আগে যেটা ডেভেলপড বা ডেভেলপিং কান্ট্রি বলতাম। এখন নর্থ কান্ট্রি মানে ধনী, পয়সালা, ডেভেলপড হওয়া দেশ। আর সাউথ হলাম গিয়ে আমরা। কামলা খাটা দেশ।

এবার চলুন পৃথিবীতে মারজিয়া প্রভার অবস্থা দেখি।

**প্যাট্রিয়ার্কি আমাকে শাসন করছে, আমি পিছিয়ে আছি, সেক্ষেত্রে আমি মাইনাস।

**ক্লাস আমার মিডল ক্লাস। অবশ্যই দেশে ওয়ার্কিং ক্লাস পিপলের চেয়ে আমি ভালো অবস্থানে আছি। এখানে আমি প্লাস।

**আমার পরিচিত সমাজে কাস্ট নাই। তাই এই জায়গায় আমি নিউট্রাল।

**আমার গায়ের রং ব্রাউন। race বলতে সাদা আর কালো রঙই বুঝায়। তাই race এ আমি মাইনাস।

**আমি মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছি, সেই হিসাবে আমি প্লাস। কিন্তু আমি বহুদিন ধরেই নাস্তিক্যবাদ চর্চা করছি, সেই জায়গায় আমি মাইনাস।

**আমি সাউথ কান্ট্রির মানুষ। মানে আমি অনুন্নত দেশের মানুষ। এইটাও মাইনাস।

অতএব ছয়টি ক্যাটাগরির মধ্যে আমার একটা প্লাস আছে। অর্থাৎ শুধু প্যাট্রিয়ার্কি আমাকে কন্ট্রোল করছে না, মাইনরিটি, সাউথ কান্ট্রি এর একটা বাদামী রঙ এর মেয়ে হিসাবে আমি কন্ট্রোলড হচ্ছি, আমার আইডেন্টিটি তৈরি হচ্ছে। আবার মিডল ক্লাস বলে আমি সুবিধাও পাচ্ছি।

এবার বলেন, সব কয়টা প্লাস আছে এই মুহূর্তে বিশ্বের কোন ব্যক্তির?

রাইট! ডোনাল্ড ট্রাম্প! প্যাট্রিয়ার্কিতে সে প্লাস, ক্লাস, রেস, নর্থ, মেজরিটি সবেতে সে প্লাস। তাই সে এখন সারা পৃথিবীতে রুল ওভার করছে।

আর সবগুলাতে মাইনাস কে?

আমাদের দেশে দলিত সম্প্রদায়ের কোন নারী। তাই সে কেবল নারী হিসেবেই শাসিত শোষিত হচ্ছে না! একজন পিছিয়ে পড়া কাস্ট, ওয়ার্কিং ক্লাস, সাউথ কান্ট্রির বাদামী গায়ের রংগের নারী হিসেবে শোষিত হচ্ছে!

এই আইডেন্টিটি ঠিক করাটা খুব জরুরি! তাহলে বোঝা যাবে, ঠিক কতটা ভারনারেবল অবস্থায় আমরা আছি! আপনি আছেন!

বাংলাদেশ অনলাইন নারীবাদ চর্চা করার অনেককে একটা টার্ম ছুঁড়ে দেওয়া হয় এলিট নারীবাদী! অনেক জ্ঞানওয়ালা মানুষই এসব বলে!

সেই ডিয়ার ব্রাদারদের বলতে চাই, কোন দলিত বা গার্মেন্টস নারীর শোষণ শাসনের ডাইমেনশন বহু। তার অবস্থা ভারনারেবল। কিন্তু শহুরে মিডল ক্লাস নারীর অবস্থাও আদুরে পুটুসপুটুস না। সেও ভারনারেবল। ছয় ক্যাটাগরির মধ্যে গার্মেন্টস ওয়ার্কার নারীর সব মাইনাস হলেও, ঢাকার মিডল ক্লাস নারীরও কিন্তু ছয় ক্যাটাগরির মধ্যে দুইটা মাইনাস।

তাই আপনি না বুঝলেও আপনার বোঝা উচিত এবং জানা উচিত, বাংলাদেশের নারীরা

#প্যাট্রিয়ার্কি দ্বারা শোষিত শাসিত হচ্ছে
#নর্থ কান্ট্রি দ্বারা শোষিত হচ্ছে
#Race দ্বারা শোষিত হচ্ছে

এই তিন শোষণের জোরে ক্লাস আর মেজরিটির সুবিধা আসলেও সব নারীদেরকে খুব বেশি সুবিধা দিচ্ছে না।

তাই এলিট ফেমিনিজম কইয়া যারা বাংলাদেশের ফেমিনিজম চর্চাকে নালিফাইড করতে চায়, তারা আসলে ঘুমায় ঘুমায় স্বপ্ন দেখছে!

তাদের জাগানো দরকার!

(ছয় ক্যাটাগরি দিয়ে আপনিও পৃথিবীতে আপনার অবস্থান খুঁজে বের করতে পারেন)

রাতে সময় করে গতকালকে আমাদের তৈরি করা একটা প্রেজেন্টেশনের গল্প বলব। আজ কালচার নাইট। সবাই সবার দেশের ট্র‍্যাডিশনাল গান দিয়ে নাচবে। স্পেশাল ডিনারও নাকি আছে! উফ!!!!

#Sangat
#23th_Feminist_Capacity_Building_Up_Course
#Day_4

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 173
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    173
    Shares

লেখাটি ৭৯০ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.