ভালবাসা স্বাধীনতার সন্তান – ২

0

শেখ তাসলিমা মুন:

‘ভালবাসা স্বাধীনতার সন্তান’ আমার পূর্বের লেখাটির ধারাবাহিকতা হিসেবে এটি তার দ্বিতীয় অংশ।

প্রথম পর্বে আমি ভালবাসা বিষয়ে একটি সংক্ষিপ্ত আলোচনার প্রয়াস করেছিলাম। ভালবাসা আসলে কি, কেন মানুষ ভালবাসার ‘নিড’ এর কাছে সমর্পণ করে, কেনইবা মানুষ বারবা্র ভালবাসার কাছে পরাজিত হয়, ব্যর্থ অনুভব করে আর ভালবাসার সেই ‘নিড’ এর উৎসই বা কী?

উৎপত্তি, বিকাশ এবং মানুষের মনোস্তাত্বিক একাকিত্বের দিকগুলো উল্লেখ করেছিলাম। শেষ করেছিলাম এ বলে, ‘ভালবাসা স্বাধীনতার সন্তান।’

ভালবাসা যে একটি স্বাধীন অ্যাক্ট, আর স্বাধীনতার উপর দাঁড়িয়ে, আর সেই ভালবাসার পরিপূরক কিছু শব্দ নিয়ে আজ কথা বলবো। সেগুলোর উপরই ভালবাসা দাঁড়িয়ে থাকে। শব্দগুলো আমাদের পরিচিত। আমি শুধু সেগুলো কীভাবে ভালবাসাকে অ্যাসোসিয়েট করে বা কীভাবে সম্পূর্ণ স্বাধীন, সে বিষয়টি তুলে ধরবো। যা ভালবাসার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

ভালবাসা মূলত কেয়ার (পরিচর্যা), রেসপনসিবিলিটি (দায়িত্ববোধ), রেসপেক্ট (শ্রদ্ধা) এবং ইন্সাইট (অন্তর্দৃষ্টি) শব্দগুলোর সাথে অঙ্গাঙ্গিভাবে সম্পর্কিত। সেগুলোর মর্মার্থ একটি ভিন্ন আঙ্গিকে তুলে ধরার চেষ্টা করবো।

প্রথমেই দেখি পরিচর্যা বা কেয়ার বলতে কী বুঝি?
পরিচর্যা শব্দের সাথে আমাদের মানসে একটি চিত্র ফুটে ওঠে। মা ও শিশু। মায়ের শিশুর প্রতি ভালবাসায় পরিচর্যা একটি বড় উপাদান। আধুনিক সময়ে এখন মা নয় শব্দটি প্যারেন্ট হিসেবে ব্যবহার করাই শ্রেয়। বাবা বা মা তার শিশুকে পরিচর্যা ছাড়া বাঁচিয়ে রাখতে সক্ষম নয়। বিষয়টি একটি ‘প্রয়োজন’। পরিচর্যা ছাড়া শিশুকে বাঁচানো বা বড় করে তোলা সম্ভব নয়।
জীবনের পরিচর্যা ভালবাসা। আমাদের আগে জীবন ভালবাসতে হবে। জীবনকে পরিচর্যা, ভালবাসার পরিচর্যা।

এখন ভালবাসার ক্ষেত্রে পরিচর্যা ও কনসিডারেশন বা বিবেচনা বোধ গুরুত্বপূর্ণ। আর এই পরিচর্যা ও কনসিডারেশন বা বিবেচনা বোধ ভালবাসার যে দিকটি অ্যাসোসিয়েট করে, তার নাম রেসপন্সিবিলিটি। দায়িত্ববোধ বা দায়িত্বশীলতা। এখানে একটি বিষয় খুব কেয়ারফুলি দেখতে অনুরোধ করবো, রেসপন্সিবিলিটিকে আমরা প্রায়ই ডিউটির সাথে মিশিয়ে ফেলি। ভালবাসার ক্ষেত্রে ডিউটি নয়, রেসপনসিবিলিটি বিষয়টি দরকারি। আর ডিউটির সাথে এখানে রেসপনসিবিলিটিকে একভাবে দেখলে বিপর্যয় আসতে বাধ্য। ‘ডিউটি’ এমন একটি অ্যাক্ট, যা কারো ওপর ‘বাধ্যবাধকতা’ আরোপ করা হয়। কিন্তু রেসপনসিবিলিটি সম্পূর্ণ স্বাধীন একটি অ্যাক্ট বা কাজ।

আর এই রেসপনসিবিলিটি সম্পূর্ণভাবে টাইরানি এবং পজেজিভনেসে পৌঁছুতে পারে অতি সহজে যদি ভালবাসায় রেসপেক্টের অভাব থাকে।

উপরে যেমন বলেছি, রেসপনসিবিলিটির সাথে ডিউটি মিশিয়ে ফেলার কোনো সুযোগ নেই, তেমনি জানতে হবে রেসপেক্ট বা শ্রদ্ধার সাথে ভীতির কোনো সম্পর্ক নেই। রেসপেক্টও একটি স্বাধীন অ্যাক্ট। রেসপেক্ট এমন একটি অ্যাক্ট, যা অন্যের স্বকীয়তা ও স্বাধীনতাকে বিশ্বাস করে এবং প্রমোট করে। অন্যের চলার পথকে সহজ ও তার পদ্ধতিতে বিকাশে আগ্রহী থাকে।

রেসপেক্ট ভালবাসার সাথে সম্পর্কিত যখন তখন ভালবাসা কোনক্রমেই এক্সপ্লয়টেশন শব্দটি এক্সিস্ট করে না। ভালবাসায় পরোক্ষ এবং প্রত্যক্ষ দুভাবেই এক্সপ্লয়টেশনের উপস্থিতি থাকে। এমনকি মনস্তাত্ত্বিকভাবেও। আমার দরকারে আমি ভালবাসি। এটি এক ধরনের এক্সপ্লয়টেশন। ভালবাসাকে আমার ক্র্যাচ যার উপর আমি ভর করে হাঁটবো এমনভাবে দেখলে ভালবাসা সেটি মেনে নেয় না। মুখ থুবড়ে পড়ে।
সেখানে রেসপেক্ট শব্দটির মূল অর্থের দিকে আমাদের দৃষ্টি ফেরাতে হবে। আমি ভালবাসি তাকে। আমার প্রয়োজনে নয়। এটাই শ্রদ্ধা। এ শ্রদ্ধার অভাব ভালবাসা সহ্য করে না। এবং এভাবেই রেসপেক্টও ভালবাসায় একটি স্বাধীন উপাদান।

কিন্তু এই যে শ্রদ্ধা, এই শ্রদ্ধা সম্ভব নয় যদি শ্রদ্ধা যাকে করবো তাকে যদি না চিনি। এই চেনাটা যার কারণে হয়, তার নাম ইনসাইট। অন্তর্দৃষ্টি। অন্তর্দৃষ্টি দ্বারা পরিচালিত না হলে পূর্বে উল্লেখিত কেয়ার (পরিচর্যা) বা রেসপনসিবিলিটি (দায়িত্ববোধ) হয়ে ওঠে অন্ধ। এই ইনসাইট আমাদের সমগ্র বিষয়টি অনুধাবন করতে সহায়তা করে।

অন্তর্দৃষ্টি ভালবাসার ক্ষেত্রে সেজন্য আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। এ অন্তর্দৃষ্টি আমাদের যে বিষয়গুলো বাহির এবং ভেতরের বিষয়গুলো বুঝতে সক্ষম করে। সে বিষয়গুলো দৃশ্যমান নয়, বা প্রকাশিত নয় সে বিষয়গুলো বুঝতে সাহায্য করে। একজন মানুষের উদ্বিগ্নতা, একাকীত্ব বা বিষণ্ণতা বুঝতে সাহায্য করে। অন্তর্দৃষ্টি মানুষকে সমব্যাথি বা এম্প্যাথিটিক হতে সাহায্য করে।

এক কথায় বলা যায়, ভালবাসার সকল উপাদান কেয়ার (পরিচর্যা), রেসপনসিবিলিটি (দায়িত্ববোধ, রেসপেক্ট(শ্রদ্ধা)র পরিচালিকা শক্তি ইনসাইট(অন্তর্দৃষ্টি)। এই উপাদানগুলো এক একটি স্বাধীন অ্যাক্ট। প্রতিটি অ্যাক্ট স্ব স্ব ফ্রিডমের উপর দাঁড়িয়ে। এর কোনটাই বাধ্যতামূলক নয়। ‘বাধ্যবাধকতা’য় পীড়িত নয়। বাধ্যবাধ্যকতায় পীড়িত হলেই ভালবাসা ব্যর্থতায় পর্যবসিত। বাধ্যবাধ্যকতায় পীড়িত করেই আমরা ভালবাসাকে আর্ত রুগ্ন এবং মৃত করে ফেলেছি।

ভালবাসা সকল অর্থে স্বাধীন একটি অ্যাক্ট। ফরাসি ভাষায়, L’amour est L’enfant de la libertè (Love is the child of freedom)!

ভালবাসা স্বাধীনতার সন্তান।

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 126
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    126
    Shares

লেখাটি ৫৬৬ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.