মানিকের গল্প নিয়ে নির্মিত ‘ছেলেমানুষী’র অপেক্ষায়

ফাহমি ইলা:

গত মাসে যখন সাকি ফারজানা-আমজাদ হোসেনের (আপা-ভাইয়া) বাসায় যাই তখন রাত জেগে সাকি আপার কাছে তার স্বপ্নের কথা শুনছিলাম। স্বপ্নের নাম ‘ছেলেমানুষী’, সাধনার নামও বটে!

‘ছেলেমানুষী’ সাকি ফারজানা আপুর প্রথম পরিচালিত ফিল্ম। ফিল্মটির দৈর্ঘ্য একুশ মিনিট। শর্টফিল্ম হয়তো আমরা অনেকেই দেখি না, এর সম্পর্কে জানিও না এমন মানুষ এখন অবশ্য কম আছে। আমি তো বছর দশেক আগেও জানতাম না। কিন্তু এরপর যখন শর্টফিল্ম দেখি, ভালো লাগে। মনে হয়েছিলো-‘এ বেশ কষ্টের কাজ! অল্প সময়ে কোনো ঘটনাকে ফুটিয়ে তোলা বা মেসেজ দেয়া তো সহজ কাজ নয়!’

সাকি আপা যখন ‘ছেলেমানুষী’ গল্পটি শোনায়, তখন তার বর্ণনার ধরনেই চোখের সামনে ফুটে উঠছিলো দৃশ্যগুলো! সে ভালো বক্তা, শিক্ষক হলে শিক্ষার্থী মহলে ফেমাস হতেন নিঃসন্দেহে! মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গল্প ‘ছেলেমানুষী’র অবলম্বনে নির্মিত ‘ছেলেমানুষী’ ফিল্মটি আমাদের দেখাবে দেশভাগের পরের পটভূমিতে ধর্মের দোহাই দিয়ে কীভাবে হিন্দু-মুসলমান দাঙ্গা হয়েছিলো! ধর্মের দোহাই দিয়ে শত শত বছর ধরে পাশাপাশি বাস করা আত্মার আত্মীয় মানুষগুলো কী ছেলেমানুষি করেই না ঝগড়া-ফ্যাসাদ-বিবাদে জড়িয়ে পড়ে! হিন্দু বৌয়ের বানানো আচার খেয়ে গল্পে মেতে ওঠে মুসলমান বৌ, সেখানে ধর্ম নেই, আছে জীবনের সরল গল্প। যেখানে দুটো ভিন্ন ধর্মের শিশু ধর্মের ছেলেমানুষীর ঊর্ধ্বে উঠে মেতে থাকে খেলায়। তাদের মনে যে তখনো দাগ কাটেনি ধর্মের খড়গ!

সাকি আপার গল্প শুনতে শুনতে অন্নদাশংকর রায়ের দুটো লাইন মনে পড়েছিলো-‘তেলের শিশি ভাঙল বলে খুকুর পরে রাগ করো, তোমরা যে সব বুড়ো খোকা ভারত ভেঙে ভাগ করো! তার বেলা!’

‘ছেলেমানুষী’ মুক্তি পাবে আগামী ‘জানুয়ারি’তে। আমি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। রাজীব দত্তের করা পোষ্টার দেখে এক চিলতে ভালো লাগার হাসি ফুটেছিল মুখে। এদিকে পরিচালক থেকে শুরু করে অভিনেতা-অভিনেত্রীরা বিভিন্নসময় বিভিন্ন দৃশ্যের ছবি পোস্ট করে লোভ বাড়িয়ে দিয়েছেন।

‘ছেলেমানুষী’র অপেক্ষায় আছি।

শেয়ার করুন:
  • 36
  •  
  •  
  •  
  •  
    36
    Shares
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.