অপহরণের ১৭ দিন পর মুক্তি

rangamati-opohoronউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: অপহরণের ১৭ দিন পর খাগড়াছড়িতে মুক্তি পেলেন রাঙ্গামাটিতে অপহৃত টেলিটকের হয়ে কাজ করা বি-টেকনোলজির ৫ কর্মী।

শুক্রবার ভোর ৪টায় তাদের খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার মেরুং এলাকায় মুক্তি দেয়া হয় বলে জানিয়েছেন, রাঙামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. হাবিবুর রহমান।

মুক্তি দেয়ার খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন তাদের উদ্ধার করে নিরাপত্তা হেফাজতে রেখেছেন।

মুক্তিপ্রাপ্ত পাঁচজন হলেন- বি-টেকনোলজির সহকারী প্রকৌশলী আক্তার হোসেন, সুপারভাইজার সুজাউদ্দিন ও মুজিবুর রহমান এবং টেকনিশিয়ান ইমরুল হোসেন ও হেমায়েত হোসেন।

প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে মুক্তির পর তারা সুস্থ আছেন। তাদের খাগড়াছটি থেকে রাঙ্গামাটি নিয়ে আসা হচ্ছে।
গত ৮ জুলাই টেলিটকের টাওয়ার নির্মাণ কাজ দেখতে গিয়ে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার মারিশ্যায় অপহৃত হন তারা ৬জন। পরে টেলিটকের স্থানীয় প্রতিনিধি মন্টু চাকমাকে (৩৮) ওইদিনই ছেড়ে দেয়া হলেও বাকী পাঁচজনের মুক্তির জন্য তিন কোটি টাকা মুক্তিপণ দাবী করে অপহরণকারীরা।

অপহৃত প্রকৌশলী আক্তার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, অপহরণের দিন তাঁদের চোখ বেঁধে মোটরসাইকেলে করে নিয়ে যাওয়া হয়। কোনো নির্দিষ্ট স্থানে তাঁদের রাখা হয়নি। এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় নিয়ে যাওয়া হতো। প্রতিদিন দুই বেলা করে খাবার দেওয়া হয়েছে।

ঘটনার পরবর্তীতে গত ১২ তারিখে বাঘাইছড়ি থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। পুলিশ জানায় যৌথ অভিযানে অপহৃতদের উদ্ধার করা গেলেও এর সাথে জড়িতদের ধরা যায়নি। তবে তাদের ধরার জন্য এখন অভিযান চালানো হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার আমেনা বেগম।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.