শফীকে দোররা মারার দাবি

sofi-hefajotউইমেন চ্যাপ্টার (২৪ জুলাই): পবিত্র ধর্মের অপব্যখ্যা দিয়ে নারীদের নিয়ে হেফাজতের আমীর আহমদ শফী অশ্লীল, নোংরা বক্তব্য দেয়ায় আলেম ও নারী সমাজের পক্ষ থেকে গ্রেফতারের দাবির পর এবার শফীকে ধরে এনে কোরানের বিধান অনুসারে প্রকাশ্যে ৮০টি দোররা মারা দাবি উঠেছে।

নারী সংগঠনগুলোর সমন্বয়ে গঠিত সেক্যুলার ইউনিটির উদ্যোগে বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত আহমদ শফীর কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশে এ দাবি জানান বক্তারা।

পেশাজীবী নারী পরিষদের সভাপতি মাহফুজা খানমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নারী নেত্রী শিরিন আখতার, রোকেয়া রফিক, মুক্তিযোদ্দ শিরিন বানু মিথিল, নারী সাংবাদিক আক্তার জাহান মল্লিক, ফ্যাশন ডিজাইনার বিবি রাসেল, পাক্ষিক অনন্যা’র সম্পাদক তাসমিমা হোসেন, বাংলাদেশ সম্মিলিত ইসলামী জোটের সভাপতি হাফেজ মাওলানা জিয়াউল হাসান প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, নারীদের তেঁতুলের সঙ্গে তুলনা করে অশ্লীল ও ন্যাক্কারজনক অবস্থান প্রকাশের পর দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনা, ক্ষোভ এমনকি গ্রেফতার ও বিচারের দাবির মধ্যেই এবার নারী-পুরুষের বিরুদ্ধে নোংরা কথা বলার ঔদ্ধত্য দেখিয়েছেন বিএনপি-জামায়াতের আশির্বাদপুষ্ট হেফাজত নেতা।

নারী নেত্রীরা বলেন, সংবিধানে স্পষ্ট রয়েছে নারী-পুরষের সমান অধিকার, কিন্তু আহমদ শফী নারীদের অধিকার বঞ্চিত করে ঘরে বন্দি করে রাখতে চান। এ ধরনের নোংরা মনোভাবের কারণে তার বিচার করতে হবে। তারা আরো বলেন, তেঁতুল নিয়ে তিনি যে কথা বলেছেন তাতে সমগ্র পুরুষদেরও তিনি অপমান করেছেন। গার্মেন্টস কর্মীদের নিয়ে তিনি যে মনোভাব তুলে ধরেছেন তা অত্যন্ত নোংরা মনের পরিচয়। এ ধরনের মনোভাব কখনোই ইসলাম সমর্থন করে না। তিনি ধর্মের দোহাই দিয়ে নিজেই ধর্ম লঙ্ঘন করছেন।

শফীর নারী বিরোধী বক্তব্যকে প্রধানমন্ত্রী ‘নারীদের জন্য অবমাননাকর’ বলে উল্লেখ করলেও বিরোধীদলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া এ নিয়ে কোনো মন্তব্য না করায় নারী নেত্রীরা বিরোধী নেত্রীর সমালোচনা করেন। যারা ইসলামের নামে নারীদের নিয়ে বিভিন্ন ফতোয়া দিচ্ছেন তাদের সাবধান হওয়ার জন্য বক্তারা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

তারা বলেন, ‘হাদিস শরীফে আছে মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের বেহেশত। মাওলানা শফী এ বক্তব্যের দিয়ে সেই মাকে অপমান করেছেন। এ বক্তব্যের মাধ্যমে শফী মানুষের ধর্মীয় বিশ্বাসের উপর আঘাত করেছেন।’ তারা অনতিবিলম্বে এ বক্তব্য প্রত্যাহার করে মাওলানা শফীকে জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান। হাফেজ মাওলানা জিয়াউল হাসান বলেন, নারীকে অপবাদ দিয়ে বক্তব্য দেয়ার অপরাধে কোরানের বিধান অনুসারে হেফাজতে ইসলামের আমির মাওলানা শাহ আহমদ শফীকে ধরে এনে ৮০টি দোররা মারতে হবে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.