আমার জীবনে পুরুষেরা

0

তিস্তা রায়:

#With_Love
পিরিওডস্ এর প্রোবাবল ডেট মনে থাকে না কোনোকালেই,তাই আমার হবু ডাক্তার প্রেমিক পাক্কা এক বছরের ডেটচার্ট তৈরি করে নিজের মোবাইলে সেট করে রেখেছিল আর আমাকেও প্রতি মাসে সেটা মনে করিয়ে দিত…..অবাক কান্ড!সে একজন পুরুষ!

শীতের সন্ধ্যে নেমেছে সবে..গ্রামে একটা পুকুরের ধারে বসে বকবক করছি কয়েকজনের সাথে..হঠাৎ চশমাটা হাতে নিয়ে খেলতে খেলতে সেটা পড়ে গেলো জলে!আমি কিছু বলার আগেই কনকনে ঠান্ডা জলে ঝাঁপিয়ে পড়ে যে তুলে এনেছিল আমার হাই পাওয়ারের চশমা…সে কিন্তু একটা ছেলে!

স্নান করে উঠে বাবার পায়ের পাতার উপর দাঁড়িয়ে চুল মুছিয়ে নেওয়াটা ধরি না, তবে বাড়ির একটা বিয়ের অনুষ্ঠানে মা-কাকিমারা নিজেরা সাজতে ব্যস্ত থাকায় আমায় শাড়ি পরিয়ে সাজিয়ে দিয়েছিল ছোটকাকু আর ভাই মিলে স্পষ্ট মনে আছে….অদ্ভুত! ওরাও নাকি পুরুষমানুষ!

আশ্চর্যের আরো আছে বাকি!

বাসের অকথ্য ভিড়ে স্কুলের সিন্থেটিক শাড়িপরা আমি যখন ঘেমে নেয়ে ভারী অর্গানিকের বই আর ব্যাগ নিয়ে ক্রমাগত বসে থাকা এক কাকিমার কাছে গঞ্জনা শুনছি,তখন যিনি নিজের সিট ছেড়ে উঠে আমায় বসতে বলেছিলেন,তিনি একজন পুরুষ…

একদিন অতর্কিতে ব্যাচে ব্রেশিয়ারের স্ট্র্যাপ বেরিয়ে যাওয়ায় সব মেয়েদের হাসাহাসির মাঝে যে বন্ধুটা আমাকে ইশারায় ব্যাপারটা জানিয়েছিল,সে একজন পুরুষ…
সর্দি মুছতে দেখলে যখন আমার বান্ধবীদের সহজাত প্রতিক্রিয়া হয়, ‘ও ম্যা গো!’, তখন যে বন্ধুটা প্রতিবাদ করে বলে,’তোদের কি কখনো ঠান্ডা লাগে না?’…সেও একজন পুরুষ..

আমার হঠাৎ বেরিয়ে পড়ার পাগলামিতে, নাক-চুল টেনে মারপিট করার দুষ্টুমিতে,’ইঁদুর-বাঁদর-জানোয়ার-শাঁকচুন্নী’ বলার খুনসুটিতে, ক্রমাগত জ্বালাতন আর ঝগড়ার খ্যাপামিতে আর শেষ বিকেলের হলুদ আলোয় কাঁধে মাথা রাখার স্বস্তি জুড়ে যারা আছে তারা প্রত্যেকেই তো পুরুষ…

জাতটা এমন যে, চোখের জলটা মনের কোনে বারুদ হয়ে জ্বলতে দেয়…জাতটা এমন যে, চাকরির চেষ্টায় হন্যে হয়ে ভালোবাসাকেও যেতে দেয়!…জাতটা এমন যে, মাসের শেষ সঞ্চয়টুকু জমিয়ে প্রিয় মানুষের জন্য কিনে আনে গিফট্!…জাতটা এমন যে, মায়ের কথা বলতে গিয়ে বুড়ো বয়সেও কাঁদতে পারে…।

এখন যদি বলেন মাতাল, দাঁতাল, শয়তান, ইভটিজার, ধর্ষকদের কথা কেন এড়িয়ে যাচ্ছি, তাহলে বলবো, চোখটা আধবোঁজা নয়, পুরোটা খুলে দেখতে…কারণ, সবাই সমান হয় না। তাছাড়া, ধর্ষণ তো মনেরও হয়।
আচ্ছা, একটু ভেবে সত্যি করে বলুন তো,
“আমার যদি একটা ছেলে থাকতো…” কিংবা “তোমার কোনো ভাই বা দাদা নেই!!!” এইরকম বাক্যগুলো মেয়েদের মুখেই কি বেশী শোনেননি?

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 1K
  •  
  •  
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1K
    Shares

লেখাটি ৪,৭১১ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.