স্তন ক্যান্সার নিয়ে জানা কথা, তারপরও বলছি

0

দিবা খান:

ছবিটা দেখে ভ্রু কুচকানোর অথবা দাঁত কেলিয়ে হাসার কোন কারণও নেই।
ছবিটাতে ব্রেস্ট বা স্তন ক্যান্সারের কিছু লক্ষণ দেখানো হয়েছে মাত্র। যা আমাদের প্রায় অধিকাংশ পরিবারে এখন একটি কমন সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে।

*** হঠাৎ করে স্তন ফুলে যাওয়া, গোলাকার চাকার মতো শক্ত কিছু অনুভব করা, চামড়া কুঁচকে যাওয়া, চামড়ার রং অথবা আকৃতি পরিবর্তন, স্তনবৃন্ত দিয়ে তরল/রক্ত/পুঁজ বের হওয়া অথবা স্তনবৃন্তের অস্বাভাবিক পরিবর্তন।

পাঁচ মিনিট সময় নিয়ে আপনি নিজেই পরীক্ষা করে নিতে পারেন এধরনের কোন লক্ষণ আপনার আছে কি না। থাকলে অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যান।

কেউ চাইলে ছবিটা নিজের কাছে সেইভ করে রাখতে পারেন। কেন রাখবেন???
কারণ প্রত্যেকের (স্পেশালি মেয়েদের) মাসে অন্তত একবার এটা নিজে নিজে পরীক্ষা করা উচিত।
কেন উচিত??? বলছি…

ব্রেস্ট ক্যান্সার সম্পর্কে কিছু ঘাটাঘাটি করে দেখলাম প্রতিবছর ১৮.২% নারী ও পুরুষ মারা যায় ব্রেস্ট ক্যান্সারে!

আমেরিকার জাতীয় ক্যান্সার ইন্সটিটিউটের একটা রিপোর্টে বলা হয়েছে তাদের দেশে প্রতি বছর ২৩২,৩৪০জন নারী এবং ২২৪০ জন পুরুষে ব্রেষ্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাকেন। বাংলাদেশেও প্রতি বছর অসংখ্য মানুষ মারা যায় ব্রেষ্ট ক্যান্সারে।

ব্রেস্ট ক্যান্সারের সম্ভাব্য কিছু কারণ অথবা কাদের ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি আছে এটা জানতে চেষ্টা করে যা পেলাম তা হলো…..
এক্ষেত্রে হাই রিস্কে আছেন স্বাভাবিক বয়সের আগে পিরিয়ড শুরু/বন্ধ হয়ে যাওয়া নারীরা।
তাছাড়া স্বাভাবিক উচ্চতার চেয়ে বেশি উচ্চ/লম্বা মেয়েদেরও এই ঝুঁকি বেশি।

অতিরিক্ত মেদ, অতিরিক্ত এলকোহল গ্রহন, রেডিয়েশন, হরমোন রিপ্লেসম্যান্ট এবং জেনেটিক কারণেও ব্রেস্ট ক্যান্সার হতে পারে।

এবং ৫০+ নারীদের এই ঝুঁকি বেশি। তাই ৪০ বছর বয়সের পর প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর ব্রেস্ট এক্স-রে করে দেখা উচিত।

*** জেনে রাখা ভালো— শুধুমাত্র ব্রেস্ট ফিডিং ব্রেস্ট ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা কমিয়ে দেয় ৩০%।

***শুধুমাত্র নারীদের নয়, পুরুষদেরও ব্রেস্ট ক্যান্সার হয়।

লজ্জাবোধ থেকে এটা এড়িয়ে যাওয়ার কোন কারণ নেই। আপনার সচেতনতাই পারে আপনাকে এবং আপনার সঙ্গীকে ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি থেকে বাঁচাতে।

অক্টোবর মাস হচ্ছে ব্রেস্ট ক্যান্সার সম্পর্কে সচেতন করার মাস। নিজে সচেতন হোন এবং অন্যকে সচেতন করুন।

এটা নিয়ে কোন ধরনের রসিকতা বা আলতু ফালতু কমেন্ট করার কোন দরকার নাই। বরং শেয়ার করে অন্যকে সচেতন করুন। 😊

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 630
  •  
  •  
  • 4
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    634
    Shares

লেখাটি ৩,৫৫৭ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.