আমাদের অনেক ‘সুশীলা’ প্রয়োজন

লুবনা ইয়াসমিন:

আমি গাইনীর ডাক্তার নই, তবে একজন জনস্বাস্থ্য ও পুষ্টি পেশাজীবী হিসাবে স্বাভাবিক প্রসবের পক্ষে আমৃত্যু বলে যাবো। আমার বিশ্বাস, আমার বক্তব্য সচেতনতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। তবে মায়ের জীবন বাচাঁতে সিজারিয়ানের পক্ষেও আমি বলবো।

আমার পরিবারের লোকজনের (আমার নিজের বোন ও চাচাতো বোন) ঠিক সময়ে সিজারিয়ান না করার কারণে দুইটি স্টিল বার্থ (মৃত বাচ্চা প্রসব) হয়েছে।
এই অসহ্য যন্ত্রণাময় কাহিনী বলতে গেলেও খুব কষ্ট হয়।
তাই সিজারিয়ান এর পক্ষে ও বিপক্ষে মতামত প্রদানের উদ্দেশ্যে “Stakeholder’s Consultation on Pervention of Unnecessary Cesarean Section ” মিটিং এ অংশ নিয়েছিলাম আমি।
গত ৩০ শে জুলাই এটি অনুষ্ঠিত হয়।

ওই মিটিংয়ে উপস্থিত বিজ্ঞ গাইনি ডাক্তারগণ স্বীকার করেছেন, স্বাভাবিক প্রসবের জন্য আমাদের অনেক সুশীলার (Traditional Birth Attendent -TBA) প্রয়োজন। আলোচনায় সমস্যা ও সমাধান হিসেবে উঠে এসেছে অযথা সিজারিয়ান না করার ব্যাপারে। আমি আয়োজকদেরকে বলার চেষ্টা করেছিলাম Violence during pregnancy নিয়ে।

বাংলাদেশের ঢাকায় অবস্হানরত অনেক গাইনি প্রফেসর-ডাক্তাররা উপস্হিত ছিলেন। এছাড়াও সাংবাদিক, সোশ্যাল এক্টিভিস্টরাও ছিলেন।

কেউ কেউ বলেছেন সিজারিয়ান বিষয়টি টাকাওয়ালা পরিবারের আভিজাত্যের ব্যাপার। তাদের ভাষ্যমতে,
“To posh to Push”-তারা স্বাভাবিক প্রসব বেদনা সহ্য করে প্রসব করতে চায় না।
আবার অনেক গাইনির সিনিয়র ডাক্তার বলেছেন, অনেক নতুন ডাক্তার আছেন যারা কখনোই স্বাভাবিক ডেলিভারি না দেখেই ডাক্তার হয়েছেন। তারা জানেন না, স্বাভাবিক ডেলিভারি কত সহজ ও নিরাপদ।
“They don’t know how to conduct a normal delivery. Accordingly we have lost the Beauty, Art and Science of a normal delivery “.

ডাক্তার শায়লা ম্যাডাম বলেছেন,
“নরমাল ডেলিভারির সময় পাশে ডাক্তার থাকার কোনো দরকার নাই, বা প্রয়োজন নাই, কিন্তু অবশ্যই একজন দক্ষ ধাত্রী থাকা বাঞ্ছনীয়।
আমাদের অনেক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ধাত্রী প্রয়োজন।”
তিনি পুরো অডিয়েন্সকে প্রশ্ন করছেন,
“আজকের এই রুমে কোনো সিজারিয়ান মানুষ আছেন কিনা! “
কাউকেই খুঁজে পাওয়া যায়নি যে সিজারিয়ান বেবি ছিল।

তিনি প্রশ্ন করেছেন, “তখন যদি নরমাল ডেলিভারি হতো, তবে এখন কেন নয়!
আমাদের প্রয়োজন সচেতনতা আর মেডিকেল এথিকস মেনে চলা।
ব্যবসায়িক মনোবৃত্তি ত্যাগ করা।
রেফারেল সিস্টেমের ব্যবহার ও যথাযথ প্রয়োগ বৃদ্ধি করা।”

আমাদের traditional birth attended (TBA) রা কোথায়?
তাদের যোগ্য সম্মান দিয়ে ফিরিয়ে আনার দরকার।
আরো যোগ্য TBA তৈরি করা দরকার প্রত্যেকটি এলাকার জন্য।

আমার বক্তব্য ছিল:
———————-
একজন সেবা প্রদানকারী/ধাত্রীকেও প্রশিক্ষণের সময়ে প্রয়োজনীয় বিষয়ে সচেতনতার পাশাপাশি নিম্নলিখিত বিষয়ে অবগত করা দরকার।

১। ডেলিভারি করার সময় প্রসূতি মা ও তারঁ পরিবারের সাথে ভালো ব্যাবহার করা।

২। প্রসবকালীন ব্যথা সম্পর্কে মাকে জানানো।

৩। মাকে সাহস যোগানো।

৪। কীভাবে দম নিয়ে জোরে পুশ করতে হবে তা আগেই মাকে জানানো। হালকা পুশ করতে করতে মা যেন হয়রান না হয়ে যায়। শক্তি ক্ষয় যেন না হয়।

৫। বাচ্চা প্রসবের আগেই মাকে মায়ের বুকের দুধ খাওয়ানোর ব্যাপারে মাকে অবগত করানো।

৬। মা যেন ঠিক মতন বাচ্চাকে colostrum feeding করাতে পারে সেইক্ষেত্রে পূর্ণাঙ্গ সহোযোগিতা করা।

৭। কীভাবে বুকের দুধ খাওয়াতে হবে তা দেখিয়ে দেওয়া ও মুখে বলে দেওয়া।

অপ্রয়োজনীয় সিজারিয়ান কেন হয়?

১। একজন সাধারণ নারী যখন বাসায় থাকে তখন তারঁ physical activity তেমন থাকে না। তাই শারীরিক ভাবে সে স্বাভাবিক প্রসবে প্রস্তুত থাকে না।

২। এই সময়টাতে যদি পরিবারের সবাই গর্ভবতী নারীকে পর্যাপ্ত সময় দেয়। হেঁটে চলার এবং স্বাভাবিক কাজকর্ম করার পরামর্শ দেয়, তবে স্বাভাবিক প্রসব বেদনা সহ্য করে ডেলিভারি করা সম্ভব।

৩। চাকরিজীবী মেয়েদের গর্ভকালীন নির্যাতনের মাত্রা দ্বিগুণ হয়ে যায়।

প্রথমত অফিসের বস থেকে শুরু করে সহকর্মিরাও বিরূপ ব্যবহার করেন ওয়াসরুমে যাওয়া থেকে শুরু করে পানি খাওয়া পর্যন্ত।

এমনিতেই কাজের কারণে শরীর ও মন ভালো থাকে না, তার উপর সেইসময়ই যত কাজের চাপ বাড়ে বলে মনে হয় একজন হবু মায়ের কাছে।

অনেক বসই অনেক ভিনডিকটিভ আচরণ করে। যা মেয়েটি কাউকে বলতেও পারে না আবার সইতেও পারে না।

২। বাসায় ফিরে রেস্টে এ থাকলে শ্বশুরকুলের কথা শুনতে হয়। শাশুড়ি হয়তো বলেই বসে, “আমরা কি বাচ্চা পয়দা করি নাই?”

৩। স্বামী ভদ্রলোক sperm delivery করেই নিশ্চিন্ত হয়ে যান এবং পিতা হবার জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন।

৪। তার এই sperm delivery হওয়ার কারণে যে একটি মেয়ে পুরোপুরি বদলে গিয়ে অন্য সত্তায় রুপান্তরিত হচ্ছে, সেই খবর কেউ রাখে না।

৫। বয়স হয়ে যাওয়ার কারণে এবং অফিস থেকে ছুটি নেওয়ার কারণে সে আর এই কষ্ট যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় তাই সিজারিয়ান এ যেতে চায়। নিশ্চিত শিশুর জন্মদান।

We should Stop violence during pregnancy at home and out ( office).
We have to educate our educated husband and bosses ( both male and female) to treat pregnant women with love and care to stop unnecessary cesarean.

শেয়ার করুন:
  • 478
  •  
  •  
  •  
  •  
    478
    Shares
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.