টেলিফিল্ম ‘বড় ছেলে’: দায়িত্ব হোক ছেলেমেয়ে উভয়ের

0

ঈহিতা জলিল:

কয়েকদিন ধরে সামাজিক মাধ্যমে “বড় ছেলে” টেলিফিল্ম নিয়ে ব্যাপক আলোচনা চলছে। আমিও দেখলাম। ভালোই লেগেছে। টেকনিক্যাল বিষয়গুলো নিয়ে আমি কিছু বলবো না। কারণ আমি ওসব এতো বুঝি না। আমি বুঝি গল্প-সংলাপ-অভিনয় আর কস্টিউম। একজন লেখকের লেখার সার্থকতা তখনই আসে যখন তাঁর সৃষ্ট চরিত্রগুলোর মধ্যে পাঠক/দর্শক নিজেকে দেখতে পান। পড়ে/দেখে মনে হবে আরে এতো আমি! ঐ লেখক কেমন করে আমার জীবনের গল্প জানলো!

এখানে কাহিনীকার সার্থক হয়েছেন। এটা আসলে বাঙালী সমাজের প্রায় প্রতিটা মধ্যবিত্ত পরিবারের গল্প। আমাদের সমাজের বড় সন্তান, বিশেষত ছেলে সন্তান জন্মানোর সাথে সাথে আমরা তাঁর উপর দায়িত্বের বোঝা চাপিয়ে দেই। ব্যতিক্রম নেই তা না। কিছু বড় কন্যা সন্তানও আছেন যারা পরিবারের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিজে আর জীবনে থিতু হোননি। একসময় মা-বাবা মারা গেছেন, ভাই-বোন যার যার সংসারে ব্যস্ত হয়েছেন। আর তিনি রয়ে গেছেন একা। কিন্তু ঐ যে আমি ব্যতিক্রম নিয়ে বলছি না। ঠিক যেমন এখনও বধূ নির্যাতনের হার বেশি, তেমনি পরিবারের বড় ছেলেটির উপর নির্ভরশীলতার হারও বেশি। দায়িত্ব পালন করতে করতে পরিবারের বড় ছেলেটি কখন যে নিজের সব স্বাদ-আহ্লাদ বিসর্জন দিতে থাকে, তার খবর আমরা ক’জন-ই বা রাখি!

আমরা তো আমাদের কথা বলি, “ভাইয়া আমার এটা লাগবে, নিয়ে আসিস! কিন্তু ভাইয়ার কাছে টাকা আছে কিনা তা কি ভাবি! বা ঐ মুহুর্তে ভাইয়ারও হয়তো কোনো ইচ্ছা থাকতে পারে!

টেলিফিল্মটির বিশেষ কিছু দৃশ্যের কথা না বললেই না, মায়ের হাতে ছোট ভাইয়ের পিকনিকে যাবার টাকা তুলে দিয়ে যখন বাবার কথা বলতে বলা হয়, এটাই আমাদের বড় ছেলে। প্রেমিকাকে ফিরিয়ে দেবার সময় যখন বলে, ছোটবোনের সন্তানের জন্য চিপস-চকলেটের প্যাকেট নিয়ে তাকেই ফিরতে হয়, তখন আসলে কিছু বলার থাকে না। লোকাল বাসের ট্র্যাভেল, তলা ক্ষয়ে যাওয়া স্যান্ডেল, সবকিছুই বাস্তব।

খুব প্রশংসা করতে চাই প্রেমের সম্পর্কটিকে যেভাবে দেখানো হয়েছে তার। আজকাল এমন প্রেম যে আছে তা বোধহয় সবাই ভুলতে বসেছিলো। তবে এই সম্পর্কের একটা জিনিস মানতে কষ্ট হচ্ছে। মেয়েটি তো শিক্ষিত। সে কেনো বিয়ের জন্য ছেলেটির চাকরির জন্য অপেক্ষা করবে! এ যুগের মেয়ে হিসাবে তাঁর কি ভালোবাসার মানুষটির সাথে সংসারের হাল ধরার কথা বলা উচিত ছিলো না! তিনি কি তাঁর বাবাকে বলতে পারতেন না তিনি চাকরি করে স্বাবলম্বী হয়ে তারপর বিয়ে করতে চান।

আসলে নাট্যকার আরেকটু হোমওয়ার্ক করতে পারতেন। যে সমস্যাটি তুলে ধরেছেন সেটি বাস্তব। তবে একজন সচেতন নারী হিসাবে আমি চাইবো এরকম কোনো সমস্যায় মেয়েটি বাবার পছন্দের ছেলেকে বিয়ে না করে ভালোবাসার মানুষটির পাশে শক্তি হয়ে দাঁড়াবে, দুর্বল হয়ে না। আশা করি আমরা আমাদের নাটকগুলোতে অমন বলিষ্ঠ নারী চরিত্র দেখতে পাবো। যে নারী শুধু পোষাকে আর সার্টিফিকেটে না, চিন্তাতেও আধুনিক। আমি কিন্তু এমন অনেক নারীকে চিনি, তাঁরা আছেন। আশাকরি আমাদের নাট্যকাররাও তাদের দেখতে পাবেন।

আচ্ছা আমরা কি এই অবস্থা থেকে বের হয়ে আসতে পারি না! কেনো শুধু পরিবারের বড় ছেলেটিকেই এতো কষ্ট ভোগ করতে হবে! কেন সে তার প্রেমিকাকে পাবে না!

আমাদের কী করা উচিত! আজকে যারা বড় ছেলে, কালকে তারাই বাবা। আসুন আমরা ছেলে-মেয়ে উভয় সন্তানকেই সমান শিক্ষায় শিক্ষিত করি এবং সচেতন করি। আমাদের মেয়েটিকেও ঐ মানসিকতা নিয়ে বড় করি যে পরিবারের প্রতি তার এবং তার ভাইয়ের সমান দায়িত্ব। যে দায়িত্ব বড় ছেলেটির মাথায় অনেক চিন্তা-যন্ত্রণার নাম, সেটি যদি ভাই-বোন ভাগ করে নেয়, কষ্ট অনেক কমে যাবে। বাবা-মায়েরা শেষ বয়সের জন্য সঞ্চয় করুন। সন্তান গ্রহণেও সচেতন হোন। আপনার আর্থিক সঙ্গতি বুঝে সন্তান নিন।

অনেক বড় ছেলে পরিবারের প্রতি সব দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করার পরও পরিবারের সদস্যরা শেষ বয়সে তাঁর একটু ভালো থাকাকে বাঁকা চোখে দেখেন। কেন ভাই, বড় ছেলেটির কি কোন সাধ-আহ্লাদ থাকতে নেই! সব দায়িত্ব কেনো শুধু বড় ভাইয়ার হবে? আসুন আমরা বোনেরাও দায়িত্ব নেই। বাবা-মায়ের হাতে তুলে দেই ভাই-বোনের দুজনের উপার্জনের টাকা। ভাইয়ার কাঁধে হাত রেখে বলি, ‘তুই এতো ভাবিস না ভাইয়া, বাবা-মা আমাদের দুজনের, দায়িত্বও আমাদের দুজনের। আমরা সবাই মিলে ঠিক ঠিক চালিয়ে নিবো’।

আমরা যারা মা-বাবা, আসুন আমরা আমাদের ছেলে সন্তানটিকে শুধুই সন্তান হিসেবে পালন করি, ভবিষ্যতের ফিক্সড ডিপোজিট না। আমাদের বড় ছেলেটি দায়িত্ব পালনের সাথে সাথে একটু নিজের ভালো লাগা-মন্দ লাগার দিকেও মনোযোগ দিক।

১১.০৯.১৭
সোমবার

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 7.5K
  •  
  •  
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7.5K
    Shares

লেখাটি ১৩,৯৫৪ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.