আসুন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির গল্প শোনাই

0

অজন্তা দেবরায়:

পত্রিকার পাতা খুললেই খবর আসে হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলার, সাঁওতাল পল্লীতে আক্রমণের, সংখ্যালঘুদের ভূমি-গ্রাসের, সংখ্যালঘু নির্যাতনের।আমাদের বাংলাদেশের সব মানুষই কি তবে সাম্প্রদায়িক?

“না।”

“সাম্প্রদায়িক” বাংলাদেশের যে সাম্প্রতিক চিত্র আমরা দেখতে পাই, তা কেবল ধর্মের রাজনীতিকরণ, রাজনীতির ধর্মীয়করণ তথা জন বিভাজনের মাধ্যমে ক্ষমতাতন্ত্র সুরক্ষিত রাখার সামগ্রিক প্রচেষ্টার ফসল।

আমাদের ব্যক্তিগত সামাজিক জীবনে এখনো আমরা মিলেমিশে বসবাস করি। ঝড় তুফানের সময় ধর্ম নির্বিশেষে মানুষকে মসজিদে আশ্রয় নিতে এখনো দেখা যায়। বাজারের মসজিদের ইমাম সাহেব আসরের নামাজের পরে এখনো ক্ষেত্রমোহন বাবুর সাথে চা খেতে খেতে গল্প করেন। বন্ধুত্ব করার সময় এখনো আমরা চিন্তা করি না, বন্ধুর নামটা পূজা, নাকি আয়শা। আর আমরা এভাবেই মিলেমিশে থাকতে চাই।

সামনে আসছে কুরবানী ঈদ ও দূর্গা পুজা।

মুসলমান ও বাঙালি হিন্দুদের এই দুটি বৃহৎ ধর্মীয় উৎসবকে সামনে রেখে আবহমান বাংলার অসাম্প্রদায়িক রূপকে তুলে ধরার একটি ধারাবাহিক উদ্যোগ নিয়েছে Humane First Movement. বাংলাদেশের আনাচে-কানাচে ঘটে যাওয়া সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আর সৌহার্দ্যের ঘটনাগুলো প্রকাশ করবো আমরা। ফেসবুকে এবং ই-বুক আকারে।

https://www.facebook.com/HumaneFirst/posts/454866808225748

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বাড়ানোর লক্ষ্যে নেয়া দুই মাসব্যাপী আমাদের ধারাবাহিক এই অনলাইন ক্যাম্পেইনে আপনিও যোগ দিতে পারেন।

আপনাদের জীবনে ঘটে যাওয়া কিংবা আপনাদের জানা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঘটনাগুলো আমাদের কাছে লিখে পাঠান। ছবি বা ভিডিও পাঠাতে পারেন। ধারাবাহিক ভাবে আমরা এগুলো প্রচার করবো। অনলাইনে কত আকথা-কুকথাও তো মানুষ পড়ে, হাজার হাজার শেয়ার হয়। আমরা শেয়ার করবো সম্প্রীতির কথা, মানুষে-মানুষে সম্মান-প্রীতি-ভালোবাসার কথা। এর মাধ্যমে আমরা মানুষকে ভাবাতে চাই, হারিয়ে যেতে বসা সৌহার্দ্যের সম্পর্ক ফিরিয়ে আনতে চাই।

এ সংক্রান্ত আপনার অভিজ্ঞতা/লেখা/ছবি/ভিডিও আমাদের পাঠাতে পারেন ইনবক্স এ। অথবা ইমেইল করতে পারেন।

ই-মেইল : [email protected]

আপনার দেখা / জীবনে ঘটে যাওয়া সম্প্রীতির ঘটনার গল্পগুলোই হয়তো অনেক মানুষের চিন্তা চেতনায় পরিবর্তন নিয়ে আসবে, আগামী কোরবানি ঈদে কোনো দুষ্কৃতিকারী ঝামেলা বাঁধানোর জন্য কোনো মন্দিরের পাশে গিয়ে কোরবানির বর্জ্য ফেলার সাহস করবে না, দূর্গা পূজায় মণ্ডপ রক্ষায় পাশে থাকবে মুসলমান ভাই-বন্ধুরাই।
সম্প্রীতির বন্ধন হবে মজবুত।

আশা করি আপনাদের পাশে পাবো।
জয় হউক মানুষের।

#BeHumaneFirst

লেখাটি ১,১৪৪ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

RFL
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.