আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় না গেলে নারীরা চাকরি হারাবে: প্রধানমন্ত্রী

PMউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় না গেলে লাখ লাখ শ্রমিক চাকরি হারাবে।

বৃহস্পতিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে নিজ বক্তব্যে হেফাজতে ইসলামের আন্দোলনকে বিএনপির সমর্থন দেয়াকে ইঙ্গিত করে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

সম্প্রতি হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শফীর দেয়া এক বক্তব্যে তিনি নারীদের নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, নারীদের ক্লাস ফাইভের বেশি পড়ানো যাবেনা। নারীরা কাজ করার জন্য আজ সংসারে বরকত নেই বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

এর পূর্বে গণজাগরণবিরোধী হেফাজতের ১৩ দফাতেও বলা হয় নারী পুরুষের একসাথে চলাফেরা বন্ধ করার কথা। সে ১৩ দফায় বিএনপি সমর্থন দিয়েছিলো। দলটির কিছু শীর্ষ নেতাকে শাপলা চত্ত্বরের হেফাজতের সেই জনসভায় উপস্থিত থাকতেও দেখা যায়।

প্রধানমন্ত্রী শফীর সেই ওয়াজের প্রসঙ্গ তুলে ধরে বলেন, “এখন নারীদের নিয়ে অনেক কথা শুনতে হচ্ছে। মেয়েদের আয়-উপার্জনের পথ বন্ধ করার চেষ্টা চলছে। আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসতে না পারলে লাখ লাখ গার্মেন্টসকর্মী চাকরি হারাবে।”

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের মাধ্যমে দেশের মানুষের আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ হচ্ছে। রায় একদিন বাস্তবায়ন হবেই।

তিনি আরো বলেন, একটি দলই শুধু বিচার চায়না, সেটি বিএনপি। তাদের রায় নিয়ে কোন নীরব ভূমিকা বলে দিচ্ছে তারা এই রায়ে সন্তুষ্ট নয়। তারা কোন প্রতিক্রিয়াই দিচ্ছেনা। তার মানে ধরে নেয়া যায় তারা যুদ্ধাপরাধীদের সমর্থন দিচ্ছেন।

ট্রাইব্যুনালের রায় মেনে নিতে সবার প্রতি আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। রায় প্রত্যাখ্যান করে হরতালের সমালোচনাও করেন তিনি।

পবিত্র রমজান মাসে জামায়াতের হরতালের তীব্র সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ইসলামের নামে যারা রাজনীতি করে, তারা রোজার মাসে কীভাবে হরতাল দেয়?”

কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “একটা কোটা দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। মেয়েদের কোটা আছে। তাহলে কি নারীরা চাকরি পাবেনা? মুক্তিযোদ্ধাদের উত্তরসূরীরা চাকরি পাবেনা? একাত্তরে মুক্তিযোদ্ধারা জীবনে ঝুঁকি নিয়ে যুদ্ধ না করলে কয়জন চাকরি পেত এখন? তাহলে কি রাজাকার, আল-বদর আর আল-শামসরা এদেশে থাকবে? তারাই দেশ চালাবে?”

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষ্কর্য সহ বিভিন্ন স্থানে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগকারীদের সতর্ক করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সকল ভাংচুরকারীর ছবি আছে। মৌখিক পরীক্ষার সময় তাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।”

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.