শুভ জন্মদিন হে বীর!

Mandelaউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: আজ ১৮ জুলাই, দক্ষিণ আফ্রিকা তথা সারাবিশ্বের অবিংসবাদিত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলা ওরফে মাদিবার ৯৫তম জন্মদিন আজ। প্রিটোরিয়ার হাসপাতালে জীবন-মরণ সংকটের মাঝেই এলো আরেকটি শুভদিন। লাখো স্কুলশিশুর কণ্ঠে জন্মদিনের গান দিয়ে শুরু হলো নতুন একটি দিনের। সঙ্গে পুরো বিশ্ব এই ভোরে ভালবাসা জানাল সেই মানুষটির জন্য, যার আজীবন সংগ্রামে কালো মানুষের পৃথিবীতে ঘটেছিল নতুন দিনের সূচনা।
এক মাসেরও বেশি সময় ধরে প্রিটোরিয়ার মেডিক্লিনিক হার্ট হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়ছেন বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের অবিসংবাদিত নেতা ও দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ও প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট নেলসন ম্যান্ডেলা। কৃত্রিম শ্বাসযন্ত্রের মাধ্যমে বেঁচে আছেন প্রিয় এই নেতা। আজকের দিনটিও তাই হাসপাতালেই কাটছে।
ফুসফুসের সংক্রমণে ভুগতে থাকা ম্যান্ডেলাকে গত ৮ জুন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দক্ষিণ আফ্রিকা সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, তার অবস্থা ‘সংকটাপন্ন’ তবে, ‘স্থিতিশীল’। চিকিৎসকদের একটি দল বার বারই পরিবারকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে বলা হলেও প্রেসিডেন্ট হাউস থেকে বলা হয়েছে, এখনও আশা যায়নি। পরিবারও দাবি করেছে, তিনি মাঝে মাঝেই সাড়া দিচ্ছেন।
১৯১৮ সালের ১৮ জুলাই জন্ম নেয়া নেলসন ম্যান্ডেলা তার নিজের দেশের মানুষের কাছে অনেক বেশি পরিচিত ‘মাদিবা’ নামে। এটি তার গোত্রের নাম।
কালো মানুষের অধিকারের পক্ষে আন্দোলনের কারণে লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনে স্নাতক ম্যান্ডেলাকে তারুণ্যের ২৭টি বছর কাটাতে হয়েছে রবেন দ্বীপের কারাগারে। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা দুই মেয়ে ও স্ত্রীসহ ঘুরে এসেছেন সেই দ্বীপটি থেকে, শ্রদ্ধা জানিয়ে এসেছেন নেলসন ম্যান্ডেলার প্রতি, বলেছেন, ম্যান্ডেলা তার জীবনের অন্যতম প্রেরণা।
ম্যান্ডেলার জন্মদিন উদযাপনে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বেছে নেয়া হয়েছে ৬৭ সংখ্যাটি।মুক্ত জীবনের ৬৭টি বছর দেশের জন্য কাজ করেছেন মাদিবা। সেই ভাবনা থেকেই বৃহস্পতিবার অন্তত ৬৭ মিনিট সেবামূলক কাজে ব্যয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার মানুষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনগুলো। আর এই আয়োজনে ইতোমধ্যে শামিল হয়েছেন ব্রিটিশ ব্যবসায়ী রিচার্ড ব্র্যানসনসহ বিভিন্ন দেশের রাজনীতিবিদ ও তারকারাও।
রবেন আইল্যান্ডে ম্যান্ডেলার ২৭ বছরের কারাজীবনে ১০ বছর সঙ্গী ছিলেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা। প্রিয় নেতার জন্মদিনে তিনি প্রিটোরিয়ায় দরিদ্র মানুষের জন্য আবাসন ব্যবস্থার ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন। জুমা বলেছেন, ম্যান্ডেলার এবারের জন্মদিন হবে তাঁর কর্মজীবনের ওপর ফোকাস করে। তিনি দেশের মানুষকে তাদের সময় ৬৭টি মিনিট দেশগড়ার কাজে নিয়োজিত করার আহ্বান জানিয়েছেন। বলেছেন, ‘আজ আমাদের প্রতিটি চিন্তায়-চেতনায় যেন মাদিবা থাকেন, তাঁর কাজ থাকে, দেশপ্রেম থাকে। একটি উন্নত সমাজ গড়ার কাজে মাদিবার আত্মত্যাগ, অবদান যেন আমরা আমাদের কাজের মধ্য দিয়ে দেখাতে পারি’।

ম্যান্ডেলার গ্রাম ওমতাতার মুভিজোরে একই দিনে তাঁর নামে যাত্রা শুরু করছে একটি নতুন স্কুল। গির্জাগুলোতে মাদিবার জন্য বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন রয়েছে। শ্রমিক সংগঠনগুলোও বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে কেপটাউনের সেন্ট জর্জ’স ক্যাথেড্রালে।
জন্মদিন উপলক্ষে আফ্রিকান শিল্পী জন অ্যাডমস ও পল ব্লুমক্যাম্প মাদিবার বিশাল দুটি প্রতিকৃতি এঁকেছেন, যেগুলো নিউইয়র্কের টাইমস স্কয়ারে টাঙিয়ে দেয়া হবে। ফিলিপাইন আর নরওয়েতেও থাকছে স্কুল শিশুদের জন্য বিশেষ আয়োজন।
চলতি বছর ম্যান্ডেলার জন্মদিন জাতিসংঘের উদ্যোগে উদযাপিত হচ্ছে ‘নেলসন ম্যান্ডেলা আন্তর্জাতিক দিবস’ হিসাবে। যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশেও এ উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের।
বিশ্বজুড়ে এমন উদযাপনের মধ্যেই আশা নিয়ে হাসপাতালের দিকে তাকিয়ে আছে ম্যান্ডেলার পরিবার। ম্যান্ডেলার মেয়ে জেনানি একটি টেলিভিশনকে বলেন, “আমরা আশা করছি, যে কোনো সময় তিনি বাড়িতে ফিরে আসবেন।” এদিকে জন্মদিন উপলক্ষে দেশের প্রথম স্মার্ট আইডি কার্ড দেয়া হচ্ছে ম্যান্ডেলাকে। তাঁর মেয়ে জিনজি ম্যান্ডেলা এটি গ্রহণ করবেন।
১৯৯০ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাওয়ার পর দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন তিনি। বর্ণবাদের অবসান ঘটিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় অবদানের জন্য ম্যান্ডেলাকে নোবেল শান্তি পুরস্কার দেয়া হয়। তিনি শুধু নিজ দেশেই নয়, সারাবিশ্বের মুক্তিকামী মানুষের অন্যতম প্রেরণা হয়ে আছেন।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.