“বাবা হয়ে ওঠা কঠিনতর কাজ”

0

শাশ্বতী বিপ্লব:

আমার বরাবরই মনে হয়েছে, মা হয়ে ওঠার চাইতে একজন প্রকৃত বাবা হয়ে ওঠা কঠিনতর কাজ।

সন্তান গর্ভে আসার সাথে সাথে একজন নারী ধীরে ধীরে মা হয়ে ওঠেন। প্রকৃতি তাকে সাহায্য করে। সন্তানকে গর্ভে ধারণ করা, তাকে দুধ খাওয়ানোসহ নানাভাবে মায়ের সাথে সন্তানের জৈবিক নির্ভরশীলতা গড়ে ওঠে। সাথে সাথে গড়ে ওঠে মানসিক যোগাযোগও। একজন মা চাক বা না চাক, প্রকৃতিগতভাবেই সেটা হয়। বাবার সাথে যেটা কখনই হয় না। নিজের ভিতরে আরেকটি প্রাণের তিলে তিলে বেড়ে ওঠার অনুভূতি বাবারা কখনও পান না।

একজন পুরুষকে বাবা হয়ে উঠতে হয় তার মানবিক গুণাবলী দিয়ে। যে বাবাদের সেই মানবিক অনুভূতির ঘাটতি পড়ে, সন্তানকে নিয়ে তাদের কোন পিছুটান কাজ করে না। একটি শিশু তার ঔরসজাত, শুধুমাত্র এই জানাটা সবাইকে বাবা করে তোলে না। প্রকৃতি এখানে পুরুষের সাথে স্পষ্টতঃই বৈষম্য করেছে।

সন্তান ধারণের বা নিজের শরীরের অংশ হিসেবে সন্তানকে অনুভব করার জৈবিক বা শারীরিক অনুভূতি থেকে পুরুষকে বঞ্চিত করেছে প্রকৃতি। তাই অনেক বাবার ক্ষেত্রেই, সন্তানের ভালোমন্দের চাইতে নিজের জীবনের চাওয়া পাওয়া, সাফল্য ব্যার্থতা বড় হয়ে ওঠে। তারা নানা অযুহাতে সন্তানকে ছেড়ে যেতে পারে অনায়াসে। সেখানে সন্তানের প্রতি কোন দায়বোধ কাজ করে না। অথবা, শুধু অর্থের যোগান দিয়েই সেই দায়টুকু পালন করতে চান।

কিন্তু এর বাইরে অসংখ্য বাবা আছেন, যাদের কাছে সন্তানের মঙ্গলই সবচেয়ে বড় বিবেচনার বিষয়। গর্ভে ধারণ না করেও যাকে তিনি নিজের অস্তিত্বের অংশ মনে করেন। এই বোধ সাধারণ নয়। এই বোধটাকে অর্জন করতে হয় বিবেক আর মনুষ্যত্ব দিয়ে।

তাই পৃথিবীর সকল বাবা, যারা প্রকৃতই বাবা হয়ে ওঠেন, তারা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি মানবিক গুণাবলীর অধিকারী হন। শুধু নিজের সন্তান নয়, অন্যের সন্তানের প্রতিও তার অসীম মমতা কাজ করে। কারণ তিনি তার চিন্তায়, মননে, অন্তরের গভীরে বাবা হয়ে ওঠেন। পরিবারে তো বটেই, একটি সুন্দর সমাজ গঠনেও এরকম বাবাদের ভূমিকা অপরিসীম।

মায়ের পাশাপাশি আমাদের এরকম অনেক মানবিক বাবাকে দরকার। যারা বাবা বলতে শুধুমাত্র নিজের ঔরসজাত হওয়া নয়, বরং বাবা শব্দটার/ চরিত্রটার প্রকৃত গুরুত্ব অনুধাবন করেন।

বাবা দিবসে একরম সকল বাবাকে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা এবং কৃতজ্ঞতা

লেখাটি ৩,০৪৭ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

RFL
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.