সাইবার ক্রাইমে দেশের সেবার মান

0

তনয়া দেওয়ান:

হন্যে হয়ে মেয়েটা ঘুরছে গুগলের অলিতে-গলিতে, যদি কোনো সাইবার ক্রাইমে সেবা পাওয়া যায়, মেয়েটা খুঁজে পেল সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ দেওয়ার জন্য পুলিশের কিছু মোবাইল নাম্বার, অতঃপর কল, তারপর শুনতে হয়, সংযোগ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। মেইল করার জন্য কিছু ঠিকানা জোগাড় করা হয়, পাঠানোও হলো, কিন্তু রিপ্লাই আসে না। এই হচ্ছে আমাদের দেশের সাইবার ক্রাইমে সেবার মান।

এতকিছু করে যখন মেয়েটা ক্লান্ত, তখন কেউ বলছে প্রাইভেসি না দিলে তো এমন হবেই, আর কেউ বলছে ব্লক করে দাও,  রিপোর্ট করে দাও, অনেকে আবার বলছে থানায় গিয়ে জিডি করতে। 

যে দেশে ফোন করলে পুলিশের নাম্বার বন্ধ থাকে,  সে দেশে থানায় গিয়ে জিডি করে কী হবে বলতে পারেন? 

– আমি বলতে পারি। তারা এমন ভাবে আমার সাথে কথা বলবে যেন আমিই আমার ছবি দিয়ে ফেক আইডি খুলেছি। এরপর তো আসবে প্রশ্নের বাণ, আমার কয়জন শত্রু, কী করে তারা, কোথায় থাকে, কীভাবে তারা শত্রু হয়েছে,  ব্লা ব্লা ব্লা  ……..

আর যারা প্রাইভেসি দিতে বলছে,  তাদের কাছে আমার প্রশ্ন,  ঘরের মেয়েকে নিরাপত্তা দিতে পারেন না,  তাই কি নিরাপত্তার নাম দিয়ে বাইরে থেকে ঘর তালা মেরে রাখতে চাচ্ছেন ? আচ্ছা,  আপনাদের কখনো কি মনে হয় না নিরাপত্তা যে দিতে পারছেন না এই লজ্জা আপনাদেরই ?

আর যারা ব্লক রিপোর্ট করতে বলছেন, তাদেরকে বলবো, জী ভাই, তা তো না বললেও করা হবে, কিন্তু একবারও কি ভেবেছেন, এই ফেক আইডি বন্ধ হলেও সে আরেকটা আইডি খুলতে পারবে? আপনারা কি মনে করেন না এদের চেহারা উন্মোচিত হোক?

কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, কীভাবে?  প্রযুক্তি আমাদের শুধু অপব্যবহার করার সুবিধা দিয়েছে, অপব্যবহারকারীদের ধরার সুবিধা দেয়নি, দিলেও আমাদের জনসাধারণের নাগালের বাইরে। অবশ্য দেয়নি যে, এটাই বা বলি কী করে! উন্নত বিশ্বে তো প্রযুক্তির মাধ্যমেই কতো বড় বড় সন্ত্রাসী ঘটনা সামাল দেওয়া হচ্ছে। 

কিন্তু এটা তো বাংলাদেশ। এখানে এভাবেই হয়তো চলতে থাকবে ……  তাও স্বপ্ন বুনে যাই বাংলাদেশের সাইবার ক্রাইমে সেবার মান উন্নত হবে একদিন ।

বিঃদ্র : দেশের কেউ আর্জেন্ট সাইবার ক্রাইমে সেবা দিতে না পারলেও সাত সমুদ্র তেরো নদীর ওপার থেকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ খুব কম সময়ের মধ্যেই এই সেবাটা দিয়েছে। আর সেই সেবা গ্রহণকারী আমি নিজে,  তনয়া দেওয়ান।

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লেখাটি ১৪৯ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.