দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়

pakistan bicketউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: প্রথম ম্যাচে বিশাল ব্যবধানে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানকে ৩৭ রানে হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

টসে জিতে পাকিস্তান অধিনায়ক মেসবাহ উল হক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানায়। শুরুতেই ইনিংসের প্রথম ওভারের শেষ বলেই ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান শিবিরে বড় ধাক্কা লাগে। দলীয় ২ রানের মাথায়ই মো. ইরিফানের বলে ওমর আকমলের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন বর্তমান সময়ের সবচাইতে মারকুটে ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল। পরে দলের ড্যারেন ব্রাভো, পোলার্ড ও ডোয়াইন ব্রাভোর ব্যাটিং নৈপূন্যে উইন্ডিজ নির্ধারিত ৫০ ওভারে আট উইকেট হারিয়ে ২৩২ রান করতে সমর্থ হয়। ড্যারেন ব্রাভো করেন ৫৪, ডোয়াইন ব্রাভো ৪৩। শেষে পোলার্ড খেলেন ২৭ বলে ৩০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস।
পাকিস্তানের পক্ষে শহীদ আফ্রিদী ও সাঈদ আজমল দুটি করে এবং মোহাম্মাদ ইরফান ও আসার আলী একটি করে উইকেট তুলে নেন।

২৩৩ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে একেবারে নিয়মিত বিরতিতেই উইকেট হারিয়েছে পাকিস্তান। নাসির জামসেদের ৫৪ তেমন কোন কাজেই আসেনি। চারটি জীবন পেয়ে তিনি এই অর্ধশতক করতে সমর্থ হন। নাহলে হারের ব্যবধানটা আরো বড় হতে পারতো। কিন্তু অপর প্রান্তে কেউই তার মত ভাগ্যবান না হওয়ায় একে একে তিনি আসা যাওয়া দেখেন আজমল শেহজাদ, মোহাম্মদ হাফিজ, মেসবাহ ও আসাদ সফিকের। পরে দলীয় ১৩৭ রানের মাথায় তিনি নিজের উইকেটটি হারালে পাকিস্তানের সকল চাওয়া পড়ে ওমর আকমলের উপর। চেষ্টাও করেছিলেন তিনি। খেলেন অনবদ্য ৫০ রানের ইনিংস। এরই মধ্যে পাকিস্তানের হার যখন নিশ্চিত তখন তিনি প্রায় একাই লড়েছেন। কিনু শেষ রক্ষা করতে পারলেননা। ৪৮ তম ওভারের চতুর্থ বলে তিনি আউট হয়ে ফেরত গেলে পরের বলেই আসাদ আলীর আউটের মধ্যদিয়ে পাকিস্তানের ৩৭ রানের জয় নিশ্চিত হয়।

উইন্ডিজের পক্ষে সুনীল নারায়ন ৪টি উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হন।

এই জয়ের মধ্যদিয়ে সিরিজে ১-১ এ সমতা আসলো।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.