নিজের কথা বলো মেয়ে, বার বার বলো

0

জান্নাতুন নাঈম প্রীতি:

বনানী ধর্ষণের শিকার মেয়েদেরকে বাড়ি ছাড়তে বলে দিয়েছে তাদের বাড়িওয়ালা। এর কারণ হচ্ছে মেয়েটি ধর্ষণের শিকার হয়েছে। আমার খুব জানতে ইচ্ছে করছে- ঠিক একইভাবে যদি তার মেয়েটি ধর্ষণের শিকার হতো, তাহলে তিনি কী করতেন?

আসলে তুমি মেয়ে হলে- ধর্ষণের শিকার হলে অথবা ছেলেটি প্রতারণা করলে, কোনো কারণ ছাড়াই ছেড়ে চলে গেলে, সম্পর্কটি ভেঙে দিলেও তুমি যে ছ্যাঁকা খেয়েছো, তোমার মন যে ভেঙে গিয়েছে তা বলা বারণ। অথচ তুমি যদি ছেলে হতে তাহলে লাইনের পর লাইন বিরহের কবিতা লিখে, ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়?’ জাতীয় গান গেয়ে তোমার শিল্পগুণ একেবারে বিকশিত হতো! কিন্তু যেহেতু তুমি মেয়ে, কাজেই কাঁদলেও আস্তে, হাসলেও আস্তে। নইলে তোমাকে ‘বাতিল মাল’ বা পরিত্যক্ত জিনিস হিসেবে বিবেচনা করা হবে!

যে মেয়েরা এরকম বাতিল হয়ে আত্মহত্যা না করে যদি বেঁচে থাকে, তার দুঃখগুলির কথা বলে, তখন এই সমাজের কাছে বাতিল মাল হিসেবেই বিবেচিত হয়। চিরকাল পুরুষতান্ত্রিক সমাজ নারীর সংজ্ঞা নির্ধারণ করে দিয়েছে। যেমন- নারীর বুক ফাটবে, কিন্তু মুখ ফুটবে না। আবার এও বলে দিয়েছে যে- অভাগার গরু মরে, কিন্তু ভাগ্যবানের মরে বৌ! অর্থাৎ মেয়ে হলে এই সমাজের কাছে তোমার দাম গৃহপালিত পশু গরুর চেয়েও কম!

যে সমাজ বারবার করে তোমাকে হারাতে চায়, সেই সমাজের কাছে নিজের হার স্বেচ্ছায় মেনে নিয়ে আত্মহত্যা করায় আমার আপত্তি আছে। এরচেয়ে প্রভা নামের ওই মেয়েটি ঢের ভালো, যার প্রাক্তন প্রেমিক যৌনদৃশ্যের একটি ভিডিও অনলাইনে ছেড়ে দেবার পরেও সে এখনও বীরদর্পে মিডিয়ায় কাজ করছে। সেই মেয়েটি ঢের ভালো, যে এসিডে ঝলসে গিয়েও ঘুরে দাঁড়িয়েছে। সেই মেয়েটি ঢের ভালো, যে বারবার ধর্ষিত হয়েও মরে যায়নি। বরং জীবনকে ভালবেসে উঠে দাঁড়িয়েছে।

জীবনের সবচেয়ে বড় যুদ্ধ রণক্ষেত্রে গিয়ে করতে হয়না। ওটা জীবনের প্রতিটি চলার পথে করতে হয়। জীবনে একবার হেরে গিয়ে মরে গেলেই জীবন জয় করা যায়না। জয় করতে হয় বারবার হেরে গিয়ে। কারণ হার মেনে নিয়ে টিকে থাকাটা জীবনের সবচেয়ে বড় যুদ্ধ!

শোনো মেয়ে, আত্মহত্যার মতন ভুলটি আর কোরো না। কারণ একবার জিতে গিয়ে বার বার হেরে যাওয়ার চেয়ে, বার বার হেরে গিয়ে একবার জিতে যাওয়াটা গৌরবের। সেই গর্বটা জীবন জয়ের! মনে থাকবে?

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

লেখাটি ২,৭২০ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.