কল্পদৃশ্যটি যদি সত্যিকার হয়!

0

তুলি সঙ্গীতা:

মনে করি, একটি চমৎকার কল্পদৃশ্য, যেখানে আপনি বাবা হতে যাচ্ছেন আর প্রিয়তমা স্ত্রীর হাত ধরে আছেন। তাকে সান্ত্বনা ও সাহস দিচ্ছেন অনাগত সন্তানের আগমনের কথা বলে। তার যন্ত্রণাক্লিষ্ট মুখেও হাসি আপনার সাহসের বাণী শুনে, তাকে এম্বুলেন্স থেকে নামাবার পরে Emergency তে নাম ধাম রোগের বিবরণ enlisted করালো পুরুষ ডাক্তার।

Stretcher করে Gynae& Obst এ নেবার পরে এগিয়ে এলো পুরুষ নার্স আর পুরুষ ডাক্তার। তার যাবতীয় পরীক্ষা তারাই করছেন। সারা রাত তাকে trial এ রাখা হবে Normal Deliveyর জন্য, তিনি প্রস্রাব করলে bedpan দেয়া – সরিয়ে নেয়ার কাজ করছেন পুরুষ আয়া, মানে wardboy আরকি! তার PVE/ Per Vaginall examination করে বাচ্চার মাথা নিচে এলো কিনা দেখছেন পুরুষ ডাক্তার! Delivery আর বাবু আসার পরে তাকে breastfeeding দেয়ানোর কাজ করছেন পুরুষ ডাক্তার ও নার্স!

কারণ, ভদ্র মেয়েদের তো সন্ধ্যার পরে আর বাইরে যেতে নেই! event management হোক বা ডাক্তারি, ভদ্র পরিবারের শিক্ষা অনুযায়ী কেউই বাইরে যাননি সেদিন। কিন্তু ছেলেদের বেলায় তো কোন শিক্ষা নেই।নজরের পর্দা বা অনুমতি ছাড়া কোন কাজই না করা তো পৌরুষের পক্ষে অবমাননাকর। কাজেই, ডাক্তার বা পুরুষ নার্স বা ওয়ার্ডবয়ের মাঝেও কেউ থাকতেই পারেন তেমন ‘পুরুষ’!!

এবার বাড়ি ফিরে এলেন, দেখলেন আপনার দেড় বছরের কন্যা সন্তানকে পাশের বাড়ির আংকেল চকোলেট খাইয়ে শান্ত করতে নিয়ে গিয়েছিল আর ফেরত দেয়নি, খুঁজতে গিয়ে পেলেন তাকে মৃতপ্রায়, নর্দমার ধারে! কারণ ওকে শালীন পোশাক পরা তখনো শেখাতে পারেন নি আপনি। আর আংকেল তো পুরুষ মানুষ, আগুন বলে কথা, মোম গলিয়ে ফেলেছেন by nature, you know!

দৌড়ে গেলেন মায়ের কাছে কাঁদতে কাঁদতে, গিয়ে দেখলেন অশীতিপর পক্ষাঘাতগ্রস্ত ৮০ বছরের বৃদ্ধার হাঁটুর নিচে কাপড় নেই বলে তাকে পর্যাপ্ত শাস্তি দিয়ে গিয়েছে এই সমাজেরই কোন ‘পুরুষ’!! কল্পদৃশ্যটি ভালো লেগেছে? লাগেনি? কেন, এসবই তো আজকাল চারপাশে দেখছি মানুষের(!!) মুখে আর কলমের ডগায়!

ভালো না লাগলে, নিজেকে আর নিজের ভাই-বন্ধু-ছেলেকে শেখান যে, ‘না’ শব্দের মানে ‘না’! ধর্মশিক্ষা, শালিনতা, নজরের আব্রু শুধু স্ত্রী নয়, পুরুষদেরও কিছু বলে।

পুনশ্চ: এই সমাজে কেউ কেউ সুযোগের অভাবে ভালো মানুষ সেজে থাকে। নিজের মেয়ের জামাই আর ছেলে এমন ধারা ভালো মানুষ হবে তা যদি না চান, তবে ছেলে-ভাই-বন্ধুকেও সঠিক শিক্ষা দিন। এমনকি নিজের মনকেও। যা অন্যায় তা ‘কিন্তু’/ ‘যদি’ ছাড়াই অন্যায়।

লেখাটি ১,৩৭১ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

RFL
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.