পোশাককে আর কত দায়ী করবেন?

0

মালবিকা লাবণি শীলা:
বুঝলাম খোলামেলা, টাইট কাপড় পরা প্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েদের দেখে কামুক পুরুষের জিভ দিয়ে লালা পড়ে। সেজন্যে হিজাব দিয়ে চুল ঢেকে নিজেকে আড়াল করার প্রয়াস পাচ্ছে অনেকে। খুব ভালো কথা, আপনার চুল আপনি ঢেকে রাখবেন নাকি মুড়িয়ে ফেলবেন সেটা নিতান্তই আপনার ব্যক্তিগত ইচ্ছা।
হিজাব পরার পরেও কিন্তু তনু ধর্ষিতা হয়েছে, ধর্ষকের লিপ্সা তাতেও মেটেনি। মেরেই ফেলেছে মেয়েটিকে। অন্তত তনুকে কেউ উস্কানিমূলক কাপড় পরে ধর্ষণের আহ্বানকারী বলতে পারেনি। যাক, মরে গেলেও ইজ্জত তো বেঁচেছে! দুই বছর হয়ে গেলো, আমরা দেখলাম দুইবার পোস্ট মর্টেমের নামে ভানুমতীর খেল। বিচারের নামে লবডঙ্কা।
ধর্ষণ হচ্ছে একটি মেয়ের প্রতি করা সবচেয়ে জঘন্যতম অন্যায়। আমার এক কলেজের বন্ধু বিয়ের পর স্বামীর সাথে মিলিত হতে খুব ভয় পেতো। স্বামী প্রবরটি শত বাধা, অনুরোধ, এমনকি কান্না উপেক্ষা করে ওর ওপর উপগত হতো। “না” শোনার মানসিকতা অনেক অসভ্য পুরুষেরই গড়ে ওঠেনি। উঠবে কিভাবে? ধর্ম যেখানে নারীকে ভোগ্যপণ্য  বানিয়ে মূক প্রাণীতে রূপান্তরিত করেছে! সিনেমা আর নাটকে বলা হচ্ছে, নারীর “না” মানে হ্যাঁ।
আসলে ধর্ষকের পক্ষেই কাজ করে যাচ্ছে সবাই। অ‍্যাসিড নিক্ষেপের বিরুদ্ধে কঠোর আইন হওয়ার পর এই অপরাধ অনেকটাই কমে এসেছে। নইলে কয়েকবছর আগেও পত্রিকা খুললেই অ‍্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনা চোখে পড়তো।
কিন্তু ধর্ষণের বিরুদ্ধে আইনের এই শিথিলতা কেন? দৃষ্টান্তমূলক কয়েকটি শাস্তি দিলেই তো বাকিরা গুটিয়ে যেতো, নিদেনপক্ষে অপরাধ করার আগে দুবার ভাবতো। তা না করে ধর্ষকের সাথে বিয়ে দেওয়ার মতো ন্যাক্কারজনক আইন হচ্ছে। মেয়েদের বিয়ের বয়েস কমিয়ে এনে শিশু ধর্ষণের রাস্তা খুলে দেয়া হচ্ছে।
একজন বয়স্ক মানুষ ক্লাস টুতে পড়া একটি শিশুর দিকে কামনার চোখে তাকাচ্ছে এই পেডোফিলিয়াকে খবরের কাগজে এমনভাবে প্রচার করছে যে এটা খুব স্বাভাবিক একটা ব্যাপার! ময়মনসিংহে কয়েকদিন আগে তিনবছরের একটি শিশু ধর্ষিতা হয়। আট বছরের মেয়ে ধর্ষিতা হবার পর বিচার না পেয়ে হতভাগ্য অপমানিত পিতা সন্তানসহ রেলগাড়ির নিচে পড়ে আত্মহত্যা করেন।
বেঁচে থাকলেও এই বাচ্চাগুলোর মনোজগতে যে ব্যাপক বিশাল নেতিবাচক প্রভাব পড়বে সেটা কেউ ভেবেছেন? দেশের প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলীয় নেত্রী দুজনই মহিলা হবার পরেও এই অমানবিক বিষয়গুলো কিভাবে একের পর এক ঘটে যাচ্ছে! পুলিশ অথবা প্রশাসন কেন এই বিষয়গুলোকে প্রায়োরিটি দিচ্ছে না?
প্রাপ্তবয়স্ক মেয়েদের ক্ষেত্রে তো মেয়েগুলোকেই দোষ দেয়া হয়, নির্লজ্জ, বেহায়া, বেলেল্লা, কাপড়চোপড়ে আমন্ত্রণ.. ইত্যাদি ইত্যাদি। কিন্তু এই শিশুগুলোর কোথায় কোন যৌন আবেদন ছিলো, আমাকে কেউ একটু বলবেন কি?

লেখাটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন:
  • 968
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    968
    Shares

লেখাটি ৪,৬০৯ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.