৭১-এ বয়সের জন্য শিশুও ছাড় পায়নি: তুরীন

turin afrozউইমেন চ্যাপ্টার (১৫ জুলাই): একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতে ইসলামের তৎকালীন আমির গোলাম আযমের সর্বোচ্চ শাস্তি না হওয়ায় প্রসিকিউশনের সদস্য ব্যারিস্টার তুরীন আফরোজ এক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, “একাত্তরে বয়সের কারণে কাউকে ছাড় দেয়া হয়নি। সেসময় বয়সের কারণে কোনো শিশুও ছাড় পায়নি। কোনো বৃদ্ধ বা নারীকেও বয়সের কারণে ছাড় দেয়া হয়নি।

অপরাধ প্রমাণ হওয়া সত্ত্বেও যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমের সর্বোচ্চ শাস্তি (ফাঁসি) না হওয়ায় কয়েকটি টিভি চ্যানেলের কাছে এভাবেই ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।
তুরীন বলেন, তারা এ বিষয়ে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন। গোলাম আযমের অপরাধ সর্বোচ্চ শাস্তির মতো অপরাধ। কিন্তু তাকে শারীরিক অবস্থার কারণে ‘কনসিডার’ করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বাংলাদেশকে সব সম্ভবের দেশ অভিহিত করে তুরীন বলেন, “৪২ বছর পর যেমন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হচ্ছে, তেমনি সব অপরাধ প্রমাণ হওয়ার পরও সর্বোচ্চ শাস্তি হচ্ছে না।”
তিনি বলেন, “শাস্তির ব্যাপারে আমাদের অসন্তোষ রয়েছে।”

মানবতাবিরোধী অপরাধের মূল পরিকল্পনাকারী, ষড়যন্ত্রকারী, উস্কানিদাতা, প্ররোচনাকারী ও সম্পৃক্ততাকারী হিসেবে পাঁচ ধরনের ৬১টি অভিযোগে গোলাম আযমকে সোমবার বিভিন্ন মেয়াদে মোট ৯০ বছর বা আমৃত্যু কারাদণ্ডের রায় দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.